শিরোনাম

মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - ইন্টারনেটের মাধ্যমে ক্ষমতায়নে একসাথে কাজ করবে গ্রামীণফোন ও ব্র্যাক | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - স্যামসাং মোবাইল নিয়ে এলো ‘স্যামসাং টুইন উইন’ অফার | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - পাঠাওয়ের নতুন সার্ভিস ‘পাঠাও ফুড’ এর উদ্বোধন | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - আড্ডা টিভির “হোক কলরব”- ডিজিটাল যুগের তরুণদের ওপেন মাইক শো | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - দেশজুড়ে এখন বন্ধুদের এক নম্বর নেটওয়ার্ক | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - প্লে স্টোর থেকে আরও ৬০টি অ্যাপ সরিয়েছে গুগল | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - হ্যাকিংয়ের কবলে ব্ল্যাকওয়ালেটের ওয়েবসাইট | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - শাওমি এমআই৬ পেল ওরিও আপডেট | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - বাণিজ্য মেলায় লিনেক্সে ১০%-২০% পর্যন্ত ছাড়! | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 16, 2018 - বাজারে এলো দেশে তৈরি দ্বিতীয় স্মার্টফোন ‘প্রিমো ই৮এস’ |
প্রথম পাতা / অর্থনীতি / অনলাইন পেমেন্ট সমাধানে চালু হলো ডিবিবিএল এর ভার্চুয়াল কার্ড
অনলাইন পেমেন্ট সমাধানে চালু হলো ডিবিবিএল এর ভার্চুয়াল কার্ড

অনলাইন পেমেন্ট সমাধানে চালু হলো ডিবিবিএল এর ভার্চুয়াল কার্ড

ভার্চুয়াল কার্ড চালুর বিষয়ে সম্প্রতি দেওয়া বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে ইন্টারন্যাশনাল ভার্চুয়াল ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড(ডিবিবিএল )। গতকাল বেসিস ও ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই ভার্চুয়াল কার্ডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

dbbl

বেসিস সভাপতি শামীম আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান সায়েম আহমেদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে.এস. তাবরেজ ও বেসিসের পরিচালক সানি মো. আশরাফ খান। নির্দেশনা অনুযায়ী এই কার্ড গ্রহণের জন্য আবেদনকারীকে প্রোগ্রামার, ডেভেলপার বা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে প্রমাণ দেখাতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) থেকে অনুমোদন নেওয়া যাবে।

এই কার্ড পেতে হলে বেসিস বা আইসিটি ডিভিশনের দেওয়া মোবাইল অ্যাপ, গেম, হ্যাকাথন ইত্যাদির সার্টিফিকেট প্রমাণ হিসেবে দেখাতে হবে ও ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে নির্দিষ্ট ফরমে আবেদন করতে হবে। এ কার্ড ব্যবহার করে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেসে (উইন্ডোজ, অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, ব্ল্যাকবেরি, ফায়ারফক্স ইত্যাদি) গেমস, সফটওয়্যার লাইসেন্স, মোবাইল কিংবা গেমস অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট, ভেন্ডর সার্টিফিকেশন পরীক্ষার ফি, যেকোনো ডোমেইন নিবন্ধন, হোস্টিং, ক্লাউড সেবা, হ্যাকাথন ইত্যাদি ক্ষেত্রে বছরে সর্বোচ্চ ৩০০ ডলার অর্থ পরিশোধ করা যাবে। ফলে আন্তর্জাতিক লেনদেনে ডেভেলপার বা প্রোগ্রামারদের দীর্ঘদিনের সমস্যার সমাধান মিলবে এই ভার্চুয়াল কার্ডের মাধ্যমে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top