শিরোনাম

বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - জেমসক্লিপ এবং অ্যাডকম লিমিটেড-এর সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - টানলেই ইলাস্টিকের মতো বাড়বে এই ব্যাটারি,দাবি গবেষকদের | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - টাকার চিন্তায় ডুবে থাকা মানুষই ফেসবুকে বেশি অ্যাক্টিভ:গবেষণা | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - হোয়াটস অ্যাপে নতুন ফিচার,গ্রুপ থেকেই ব্যক্তিগত মেসেজ | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - পোক ফিচারটি ফিরিয়ে আনছে ফেসবুক | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - গ্রামীণফোনের প্যানেল আলোচনায় ডিজিটাল চট্টগ্রামের রূপরেখা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম |
প্রথম পাতা / স্থানীয় খবর / অ্যাপস তৈরিতে বাংলাদেশের অপার সম্ভাবনা
অ্যাপস তৈরিতে বাংলাদেশের অপার সম্ভাবনা

অ্যাপস তৈরিতে বাংলাদেশের অপার সম্ভাবনা

মোবাইল অ্যাপস তৈরিতে বাংলাদেশে হাজার কোটি টাকার বাজারের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন গুগলের এজেন্সি ডেভেলপমেন্ট প্রধান বিকি রাসেল। সেই সাথে বিশ্ব বাজারে চলতি বছরেই অ্যাপসের বাজার ৩৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সোমবার রাজধানীর বেসিসের কার্যালয়ে গুগল ডেভেলপার গ্রুপ সোনারগাঁও এবং মোবাইল মানডে ঢাকা চ্যাপ্টারের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘মোবাইল অ্যাপ মার্কেটিং’ বিষয়ক এক সেমিনারে তিনি এসব সম্ভাবনার কথা বলেন।

তিনি জানান, বাংলাদেশে অ্যাপ নির্মাণের সঠিক উদ্যোগ নেওয়া হলে এখানে বিলিয়ন ডলারের বাজার হতে পারে। এই সম্ভাবনার অন্যমত কারণ হিসেবে তিনি জানান, বাংলাদেশের ৪ কোটি মোবাইল ব্যবহারকারীর ৮৬ শতাংশই কোনো না কোনো ধরনের অ্যাপস ব্যবহার করেন।

basis-app-dev

বাংলাদেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা,ভ্রমন,বিমানবন্দর,আইন শৃংখলা বাহিনী,ট্রাফিক সিস্টেম ইত্যাদি খাতকে দ্রুত অ্যাপের আওতায় নিয়ে আসার পরামর্শও দেন তিনি।

তার মতে,এর ফলে এক দিকে যেমন সেবা প্রদান করা সহজ হবে তেমনি প্রতিষ্ঠানগুলোর আয়ও বেড়ে যাবে বহুগুণে।

বিকি রাসেল বলেন, বিশ্বের ছোট বড় সকল প্রতিষ্ঠানই এখন জনপ্রিয়তা পেতে অ্যাপ নির্ভর হয়ে যাচ্ছে। আর এটি যেকোনো কাজ অনেক সহজ করে দেয় বলে এর জনপ্রিয়তা আরও বাড়বে।

এ সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাপস ব্যবহারের একটি চিত্র উপস্থাপন করে বাংলাদেশও তেমন হতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্রের ৭৫ শতাংশ ছোট খুচরা ব্যবসায়ী, ৭৭ শতাংশ বড় ব্যবসায়ী, ৭৫ শতাংশ ব্র্যান্ড, ৫৯ শতাংশ স্টোর এবং ৭৮ শতাংশ ফাস্ট ফুড শপ অ্যপ ব্যবহার করে।

ই কমার্সে অ্যাপের ব্যবহার দেশের মানুষের জীবন যাত্রা সহজ করাসহ অনেক বেকারের কর্মসংস্থান হতে পারে বলেও মনে করেন বিকে রাসেল।

তিনি বলেন, গত বছর ইবে অ্যাপের মাধ্যমে ২০ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে। তাছাড়া অ্যাপের মাধ্যমে অ্যামাজনের বার্ষিক আয় ৫ বিলিয়নেরও বেশী। তাই এ রকম রূপরেখা বাংলাদেশেও গ্রহণ করা সম্ভব হতে পারে।

অনুষ্ঠানে বেসিসের সাবেক সভাপতি ও ডাটাসফট সিস্টেমস (বিডি) লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী মাহবুব জামান, বেসিসের পরিচালক ও এমসিসি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী সানি মো. আশরাফ খান, গুগল বাংলাদেশের কান্ট্রি ইঞ্জিনিয়ারিং কনসালট্যান্ট ড. খান মো. আনোয়ারুস সালামসহ দেশের অ্যাপ নির্মতারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top