শিরোনাম

সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - গুগলের এই এয়ারপড হেডফোন যখন ট্রান্সলেটর | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - কম্পিউটার গেমের আসক্তিতে হতে পারে ভয়াবহ পরিণতি | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - ওটিসি ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা জরুরি | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - ইউরোপ ও আমেরিকায় মেডিক্যাল পড়াশোনা | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - ইউরোপ সাইপ্রাসে পড়াশোনা ও কাজ | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - আসুসের নতুন অষ্টম প্রজন্মের মাদারর্বোড বাজারে | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - ক্লাউড কম্পিউটিং মেলায় অংশ গ্রহন করছে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দল | রবিবার, অক্টোবর 15, 2017 - পাতায়া ভ্রমনের স্বপ্ন পূরণ | রবিবার, অক্টোবর 15, 2017 - বৃৃটিশ কাউন্সিল আয়োজিত বই পড়া প্রতিযোগিতার চুড়ান্ত পরীক্ষা সম্পন্ন | রবিবার, অক্টোবর 15, 2017 - ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো ডিজিটাল মার্কেটিং সামিট ও অ্যাওয়ার্ড ২০১৭ |
প্রথম পাতা / স্থানীয় খবর / আইসিটি ডিভিশনের কর্মকর্তাদের জন্য ১০ দিন-ব্যাপী পিপিআর ২০০৮ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন
আইসিটি ডিভিশনের কর্মকর্তাদের জন্য ১০ দিন-ব্যাপী পিপিআর ২০০৮ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন

আইসিটি ডিভিশনের কর্মকর্তাদের জন্য ১০ দিন-ব্যাপী পিপিআর ২০০৮ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন

 

ict“সরকারি ক্রয় কার্যক্রমের মাধ্যমে সরকারের নানা ধরণের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়িত হয়। অতীতে সরকারি ক্রয়ের ক্ষেত্রে কোন সুনির্দিষ্ট আইন ও বিধি ছিলো না। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগসমূহ সংস্থাভেদে অসামঞ্জস্যপূর্ণ নির্দেশনার ভিত্তিতে ক্রয় কাজ সম্পন্ন করতো। তাছাড়াও, এ সকল ক্রয় কাজে প্রক্রিয়াগত জটিলতা, বিলম্ব, ব্যবস্থাপনায় পেশাদারী দক্ষতার অভাব, নিম্নমানের সিডিউল বা টেন্ডার ডকুমেন্ট, টেন্ডার মূল্যায়নে দীর্ঘসূত্রিতা, ক্রয় চুক্তি অব্যবস্থাপনা, ক্রয় কাজে যথেষ্ট স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতামূলক ব্যবস্থার অনুপস্থিতি ছিলো।

তাই সরকারি ক্রয়ে সকল অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা দূর করতেই সরকার পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অ্যাক্ট ২০০৬ ও পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রুলস ২০০৮ প্রণয়ন করে। আমাদেরকে এই পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রুলস ২০০৮ যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে।” আজ বিকালে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সম্মেলন কক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও বিভাগের আওতা্ধীন সংস্থাসমূহের কর্মকর্তাদের জন্য পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রুলস ২০০৮ এর ওপর প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব পার্থ প্রতিম দেব এই আহবান জানান।

তিনি আরও বলেন, ১৯৭২ সালে সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের বাজেট ছিলো ৭৮৬ কোটি টাকা আর আজকের এই দিনে সে বাজেটের আকার দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকায়। এই ৪৫ বছরে আমাদের বাজেটের আকার বেড়েছে  প্রায় ৫১ হাজার শতাংশ। ফলে, সঠিকভাবে আর্থিক ব্যবস্থাপনার নৈতিক দায়িত্বও বেড়েছে। তাই, সরকারি অর্থ খরচ করার সময় আমাদেরকে অনেক বেশী সচেতন হতে হবে। মনে রাখবেন, সরকারি অর্থ মানে এ দেশের ১৬ কোটি মানুষের অর্থ। সরকারি অর্থের অপচয় রোধ করতে এবং সরকারি কাজে আরও বেশী মাত্রায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২০১১ সালের ০২ জুনে ই-জিপি চালু করেন। এতে ক্রয়কৃত পণ্য, কার্য ও সেবার গুণগত মান বেড়েছে অনেকগুণ। আমাদেরকে ডিজিটাল এই ক্রয় ব্যবস্থাপনাও সঠিকভাবে অনুসরণ করতে হবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উপ-সচিব মু.  জসীম উদ্দিন খান এর সঞ্চালনায় এই প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং বিভাগের আওতাধীন চার সংস্থার মোট ৩৭ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন। প্রতিদিন বিকাল ৩ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত এই প্রশিক্ষণ চলবে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর ১০ দিন-ব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শেষ হবে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top