শিরোনাম

বুধবার, ফেব্রুয়ারী 21, 2018 - আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বাংলায় কাইজালা উন্মোচন করল মাইক্রোসফট | বুধবার, ফেব্রুয়ারী 21, 2018 - ওয়ালটনের ফোরজি ফোনে ক্যাশব্যাক | বুধবার, ফেব্রুয়ারী 21, 2018 - বইমেলায় ড. হাসান বাবুর নতুন বই ‘একটি স্বপ্ন একটি দেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ’ | বুধবার, ফেব্রুয়ারী 21, 2018 - খুলনায় বাংলালিংক এর ফোরজি চালু | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বন্ধ হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ডেটা ছাড়া তথ্যসেবা | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বাজারে এলো সিউ কম্প্যাক্ট ডেস্কটপ নেটওয়ার্ক লেবেল প্রিন্টার | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - জুতা পরে হাঁটলেই চার্জ হবে ফোন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - নতুন সংস্করণে আসুসের গেইমিং ল্যাপটপ | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - টাটা নিয়ে আসছে ড্রাইভারলেস গাড়ি | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - চার মোবাইল অপারেটর পেল ফোরজি লাইসেন্স |
প্রথম পাতা / অফবিট / আগামী বছরের মধ্যেই সুপার কম্পিউটার চলে আসবে ভারতের হাতে
আগামী বছরের মধ্যেই সুপার কম্পিউটার চলে আসবে ভারতের হাতে

আগামী বছরের মধ্যেই সুপার কম্পিউটার চলে আসবে ভারতের হাতে

indiaক্রমশ প্রগতির পথে এগোচ্ছে ভারত। ইতিমধ্যে মহাকাশে স্পেশ শার্টল পাঠিয়েছে ‘মোদী’র ভারত। তাতেই থেমে থাকতে রাজি নন দেশের গবেষকরা। আগামী বছরের মধ্যেই সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরী সুপার কম্পিউটার নির্মাণ করে ফেলবে ভারত। আর এর জন্যে প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই প্রকল্পের দায়িত্বে রয়েছে সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট অফ অ্যাডভান্সড কম্পিউটিং, যারা অতীতে দেশের প্রথম সুপার-কম্পিউটার ‘পরম’-এর নির্মাণ করেছে। সম্প্রতি এই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্ত মন্ত্রকের সচিব আশুতোষ শর্মা।

জানা গিয়েছে, গত বছর মার্চ মাসে ন্যাশনাল সুপারকম্পিউটিং মিশনের প্রস্তাবিত প্রকল্পকে অনুমোদন দেয় কেন্দ্র। এর আওতায় আগামী সাত বছরে ৮০টি সুপার-কম্পিউটার তৈরি করা হবে। যদিও তৈরি হওয়া সবকটি ভারতের জন্যে নয়। বেশ কয়েকটি বিদেশেও রফতানি হবে। মনে করা হচ্ছে, আগামী বছরের আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত প্রথম সুপার-কম্পিউটারের নির্মাণ সম্পূর্ণ হবে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, বর্তমানে এই সুপার-কম্পিউটার থেকে উৎপন্ন তাপকে নিয়ন্ত্রণ করার প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা চলছে। তবে এই সুপার-কম্পিউটার চালু রাখতে শুধু বিদ্যুৎ খরচ হবে অন্তত এক হাজার কোটি টাকার সমান হবে বলে দাবি মন্ত্রীর।  জানা গিয়েছে, এই সুপার-কম্পিউটারগুলিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রাখা হবে। জলবায়ু নিরিক্ষণ থেকে শুরু করে আবহাওয়ার পূর্বাভাস এবং ওষুধের গবেষণায় কাজে এই সুপার-কম্পিউটার ব্যবহার করা হবে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top