শিরোনাম

বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - গ্রামীণফোনের প্যানেল আলোচনায় ডিজিটাল চট্টগ্রামের রূপরেখা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - সনি’র দুর্দান্ত এক আপকামিং ফোনের তথ্য ফাঁস |
প্রথম পাতা / টেলিকম / আদালতের রায় পেলে আজ রাতেই বন্ধ হবে সিটিসেল!
আদালতের রায় পেলে আজ রাতেই বন্ধ হবে সিটিসেল!

আদালতের রায় পেলে আজ রাতেই বন্ধ হবে সিটিসেল!

citycell20151125083411 copy

মোবাইল ফোন অপারেটর সিটিসেলের কার্যক্রমে বাধা না দিতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি আজ রোববার অনুষ্ঠিত হবে। বিটিআরসি বুধবার আপিল বিভাগে এ আবেদন করে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আদালতের রায় পক্ষে আসলে আজ রাতেই সিটিসেলের কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে চায় বিটিআরসি। এদিকে সিটিসেলের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিটিআরসি’র আপিলের ব্যাপারে তারা সম্পূর্ণ অবগত এবং আজ রোববারে অনুষ্ঠিতব্য শুনানির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘আইনানুযায়ী যেকোন অপারেটরের স্পেকট্রাম যেকোন সময় বাজেয়াপ্ত করার সম্পূর্ণ ক্ষমতা বিটিআরসি রাখে। তারা সম্পূর্ণ আইন মতেই অপারেটরটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।’ এর আগে সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বরের আগে সিটিসেলের কার্যক্রমে বাধা না দিতে বিটিআরসিকে আদেশ দেন বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদের হাইকোর্ট বেঞ্চ। উল্লেখ্য, সরকারের কাছে বকেয়া ৪৭৭.৬৩ কোটি টাকা পরিশোধ করতে না পারায় সিটিসেলকে লাইসেন্স কেন বাতিল করা হবে না তার কারণ দর্শনোর জন্য ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয় বিটিআরসি।

এদিকে আদালতের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, যেহেতু আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সিটিসেলকে কারণ দর্শানোর জবাব দেওয়ার সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে, সেহেতু এই সময়ের আগে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমে বিঘ্ন ঘটানো যাবে না। সিটিসেলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রোকনউদ্দিন মাহমুদ। আর বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই রাকিব ও সৈয়দ মাহছিব হোসেইন।

বকেয়া পরিশোধ করতে না পারায় সিটিসেলের লাইসেন্স কেন বাতিল করা হবে না, সে বিষয়ে ১৭ আগস্ট প্রতিষ্ঠানটিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠায় বিটিআরসি। এ বিষয়ে জবাব দিতে সিটিসেলকে ৩০ দিনের সময়সীমাও বেঁধে দেওয়া হয়েছে। সিটিসেলের গ্রাহকদের বিকল্প সেবা বেছে নেওয়ার জন্য ৩১ জুলাই নোটিশ জারি করে বিটিআরসি। নোটিশে ১৬ আগস্টের মধ্যে গ্রাহকদের বিকল্প সেবা বেছে নেওয়ার সময় বেঁধে দেওয়া হয়। সময়সীমা পরবর্তীতে ২৩ আগস্ট মঙ্গলবার পর্যন্ত বাড়ায় বিটিআরসি।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top