শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - গুগল ফটোসে যে ভাবে ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও লুকাবেন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - মধ্যবিত্তের কথা ভেবে সস্তায় মাইক্রোম্যাক্সের নতুন ফোন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - নতুন ফিচারের ক্যামেরা নিয়ে উন্মুক্ত হলো নোকিয়া ৭ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - পেপালের ‘জুম’ উদ্বোধন করলেন সজীব ওয়াজেদ জয় | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - ম্যাক্সেল এর বিভিন্ন পণ্য নিয়ে আইসিটি এক্সপোতে মেট্রো কভারেজ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - সিঙ্গাপুরের মাস্টারকার্ড গ্লোবাল রিস্ক লিডারশিপ কনফারেন্স অনুষ্ঠিত | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - শুরু হলো এমসিসিআই অগ্রগামী ২০১৭ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - বিএমই দিচ্ছে আইসিটি এক্সপো উপলক্ষে তোশিবা পণ্যে বিশেষ অফার! | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - আইসিটি এক্সপো তে আসুসের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির নোটবুক | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - আইসিটি এক্সপোতে বিভিন্ন প্রোডাক্ট নিয়ে গ্লোবাল ব্র্যান্ডের অংশগ্রহন |
প্রথম পাতা / টেলিকম / ইন্টারনেটের দাম নির্ধারণের প্রক্রিয়া শুরু
ইন্টারনেটের দাম নির্ধারণের প্রক্রিয়া শুরু

ইন্টারনেটের দাম নির্ধারণের প্রক্রিয়া শুরু

dataমোবাইল ইন্টারনেটের প্রকৃত দাম কত হওয়া উচিত, তা নির্ধারণে কস্ট মডেলিংয়ের বহু প্রতিক্ষীত কার্যক্রম শুরু করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসি।আন্তর্জাতিকে টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের দু’জন বিশেষজ্ঞ এ জন্য কাজ শুরু করেছেন। তারা ধারাবাহিকভাবে বিটিআরসি ও অপারেটরগুলোর কর্মকর্তাদের সঙ্গে কর্মশালা করছেন।

আগামী কয়েক মাসের মধ্যে তারা ইন্টারনেটের দামের বিষয়ে প্রতিবেদন দেবেন। এর মাধ্যমে দেশে ইন্টারনেট ডেটার প্রকৃত দাম কতো হওয়া উচিত সেটি নিরূপিত হবে।এর আগে বিটিআরসি ভয়েস কল ও এসএমএসের কস্ট মডেলিং করে উচ্চ ও নিন্মসীমা বেঁধে দিলেও ইন্টারনেট ডেটার ক্ষেত্রে এটি কখনও হয়নি।এদিকে তিন দিনের বৈঠকে বিশেষজ্ঞরা অপারেটরগুলোর কাছে তাদের সংশ্লিষ্ট সকল ব্যয় ও আয়ের তথ্য চেয়েছেন। পরে এগুলো পর্যালোচনা করে ডেটার সর্বোচ্চ ও সর্বনিন্ম সীমা বেঁধে দেওয়া হবে।এ বিষয়ে বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, ডেটার কস্ট মডেলিং হলে গ্রাহকরা প্রকৃত দামে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

এর আগে গ্রাহকদের একাধিক আবেদনের প্রেক্ষিতে মোবাইল ডেটার মূল্য বেঁধে দেওয়ার উদ্যোগ নেয় বিটিআরসি। তবে শেষ পর্যন্ত তা হয়ে ওঠেনি।মাঝে একবার এ জন্য বিটিআরসিকে এক মাসের সময়ও বেঁধে দেয় ডিজিটাল বাংলাদেশ টাস্কফোর্সের নির্বাহী কমিটি।এর আগে ২০১৬ সালের শুরুতে কস্ট মডেলিং করার উদ্যোগ নেওয়া হলেও নানা করণে তা আর শুরু করতে পারেনি কমিশন।

মাঝে একবার আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের (আইটিইউ) কাছে এ বিষয়ে একজন বিশেষজ্ঞ পরামর্শক চেয়েছিল বিটিআরসি। তবে বিনা খরচায় ইউনিয়ন এ পরামর্শক দিতে চায়নি। পরে ২৫ লাখ ডলার ব্যয়ের চুক্তি করে আইটিইউ থেকে পরামর্শক পেল কমিশন।বিটিআরসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, উন্নত বিশ্বের কোনো দেশই কস্ট মডেলিং ছাড়া ইন্টারনেটের প্যাকেজ সাজায় না। এ ক্ষেত্রে একেক দেশ একেক পদ্ধতি অবলম্বন করে।তারা জানান, অপারেটরের খরচ, বিনিয়োগ ও লাভের অংক ধরেই পরে প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top