শিরোনাম

রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - উদ্বোধনের অপেক্ষায় শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্ক | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আপনারই কিছু ভুল হয়তো অজান্তে ফোনের পারফরম্যান্স খারাপ করছে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - খুলনায় দুইদিনের বেসিক আরডুইনো কর্মশালা অনুষ্ঠিত | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - ঢাকা মহিলা পলিটেকনিককে স্যামসাং এর পক্ষ থেকে অত্যাধুনিক ল্যাব হস্তান্তর  | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - সিডস্টারস ঢাকায় দেশের সেরা স্টার্টআপ সিমেড হেলথ | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মডেম হিসেবে ব্যবহারের উপায় | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আসছে নকিয়ার আরও দুই ফোন | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - ফেসবুকের পাঁচ মজাদার অপশন যা জানেন না অনেকেই | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - প্যাটার্ন লকও নাকি অনিরাপদ! | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - ৭-১০ ডিসেম্বর বাংলাদেশে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭ |
প্রথম পাতা / ক্যারিয়ার / উচ্চ বেতনের পেশা-ওয়েব ডেভেলপার
উচ্চ বেতনের পেশা-ওয়েব ডেভেলপার

উচ্চ বেতনের পেশা-ওয়েব ডেভেলপার

অনলাইনে কাজের চাহিদার শীর্ষে রয়েছে ওয়েব প্রোগ্রামিং, আর্টিকেল রাইটিং, পিএইচপি, এইচটিএমএল ও গ্রাফিক্স ডিজাইন। মজার বিষয় হলো গ্রাফিক ডিজাইনার ও এসইও জানা লোক অনলাইনে যথেষ্ট থাকলেও ওয়েব প্রোগ্রামিং জানা লোকের সংখ্যা কম। সম্প্রতি মার্কেটপ্লেস ইল্যান্স তাদের এক জরিপে জানায়, প্রতিমাসে বিশ্বব্যাপী প্রায় ১ মিলিয়ন ওয়েবসাইট অনলাইনে যুক্ত হচ্ছে। আর এই বিশাল সংকটটি চোখে পড়বে তখনই যখন আপনি ওডেস্ক, ইল্যান্স বা এই ধরনের আউটসোর্সিং সাইটগুলোর জব অফারগুলো দেখবেন। ওয়েব ডেভেলপিং কাজের জন্য আবেদনের সংখ্যাও একেবারে কম, তাই সেখানে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।  লিখেছেন রবি হাসান
web-design

ওয়েব ডিজাইনার হতে হলে কি কম্পিউটার সায়েন্স থেকে পাশ করতে হবে?

কম্পিউটার সায়েন্স থেকে পাশ করে তবেই ওয়েব ডিজাইনার হতে হবে, এটা ভাবাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। বেশিরভাগ ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কিত অফিসগুলোতে গেলেই দেখা যায় যে ৯০ শতাংশ ডেভেলপারের এডুকেশন ব্যাকগ্রাউন্ড কম্পিউটার সায়েন্সের বাইরে। তাই নিজের কম্পিউটার সায়েন্সে পড়ার ব্যাকগ্রাউন্ড না থাকলে ভয় পাওয়ার কিছুই নেই।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে কী করতে হবে?
পৃথিবীর যেকোনো কাজেই ধৈর্য, পরিশ্রম, কাজের প্রতি ভালোবাসা ও সঠিক দিকনির্দেশনা খুব প্রয়োজন। মাত্র ২০ হাজার টাকার চাকরির জন্য যদি জীবনের ৩০টি বছর ধৈর্যের সাথে পরিশ্রম করতে পারেন, তাহলে যেখানে একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে মাসে ৭০ থেকে ১ লক্ষ টাকা আয়ের সুযোগ রয়েছে সেখানে ৬ থেকে ৭ মাস ভালোভাবে পরিশ্রম করতে ক্ষতি কী! সবসময়ই অন্য কাউকে আউটসোর্সিং করতে দেখলে আফসোস করি, কিন্তু তাদের আয়কে লোভ না করে তারা কীভাবে এই জায়গাটা অর্জন করেছে সেটা খতিয়ে দেখাটাই গুরুত্বপূর্ণ। আর জীবনের শুরুতেই নির্দিষ্ট কোনোকিছুর জন্য নিজেকে ভালোভাবে যোগ্য করে তোলাই বুদ্ধিমানের কাজ। আমাদের দেশে ওয়েব ডেভেলাপিং কোর্স শেখানোর অসংখ্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে ৬ মাস কিংবা ১ বছরের মেয়াদি কোর্সে ভর্তি হয়ে মনোযোগের সঙ্গে কোর্সটি সম্পন্ন করুন। কোর্স সম্পন্ন হওয়ার আগেই আপনি আউটসোর্সিং করার যোগ্য হয়ে উঠবেন।
আয় কী রকম হতে পারে?
একজন ওয়েব ডিজাইনার ওয়েবসাইট লেআউট তৈরি, থিম তৈরি, এবং কোডিং করে থাকেন। এসইও বিষয়ক জ্ঞানগুলোও থাকা প্রয়োজন ওয়েব ডিজাইনারের। কারণ ওয়েবসাইটকে এসইও ফ্রেন্ডলি করে ডিজাইন করা একজন ওয়েব ডিজাইনারের দায়িত্ব।
এসব বিষয়ে দক্ষ একজন ওয়েব ডিজাইনারের বেতন সারাবিশ্বের যেকোনো জায়গাতে কিংবা মার্কেটপ্লেসগুলোতে ঘণ্টাপ্রতি ২০ ডলার হতে ৫০ ডলার হয়ে থাকে, যেখানে একজন গ্রাফিক ডিজাইনারের বেতন হয়ে থাকে ১০-২০ ডলার/প্রতি ঘণ্টা। এ রেট দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে আরও অনেক বেশি হয়ে থাকে।
ওয়েব ডিজাইনার নাকি ওয়েব ডেভেলপার হবো?
এ প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে আগে জানা দরকার ওয়েব ডিজাইন কিংবা ওয়েব ডেভেলপিংয়ের মধ্যে পার্থক্য।
ওয়েব ডিজাইন :ওয়েবসাইটের বাইরের দিকটা যা দেখছেন, অর্থাত্ ডিজাইন, লে-আউট, কালার সবকিছু ওয়েব ডিজাইনের মধ্যে পড়ে। আর এজন্য জানা থাকতে হয়, photoshop, html, css, jquery, javascript।
ওয়েব ডেভেলপিং :ওয়েবসাইটটির পেছনে যদি কোনো অ্যাপ্লিকেশন থাকে কিংবা ওয়েবসাইটটির যে যে অংশটুকু কোডিংকে স্পর্শ ছাড়া পরিবর্তন করা যায়, সেইটুকুই ওয়েব ডেভেলপিং।
ফেসবুক দিয়েই বুঝানোর চেষ্টা করি। ফেসবুকের কালার, লেআউট যা দেখছি, সেগুলোকে মিলিয়ে বলা যায় ওয়েব ডিজাইন। কিন্তু সেখানে রেজিস্ট্রার করা, তারপর আইডি দিয়ে লগইন করা, পোস্ট করা, ছবি আপলোড করা ইত্যাদি ওয়েব ডেভেলপিংয়ের কাজ। ওয়েব ডেভেলপের জন্য জানা থাকতে হবে, php, mysql প্রভৃতি।
পার্থক্যটা জেনে গেলাম, এবার চলে আসি আসল প্রশ্নে অর্থাত্ আমি কোনটা হবো? ওয়েব ডিজাইনার নাকি ওয়েব ডেভেলপার?
যেকোনো ওয়েব ডেভেলপারকে আগে অবশ্যই ওয়েব ডিজাইনটা ভালোভাবে জানা থাকতে হয়। কিন্তু একজন ওয়েব ডিজাইনারের ওয়েব ডেভেলপিংয়ের বিষয়ে কোনো জ্ঞান থাকার দরকার নেই। অর্থাত্ ওয়েব ডিজাইনাররাই পরবর্তী সময়ে তাদের ক্যারিয়ারের ওপরের ধাপে যাওয়ার জন্য ওয়েব ডেভেলপিংটা শিখতে পারে।
toronto-fast-website-design-services1
যারা ব্যর্থ হয়, তার কারণ
♦কোডের জটিলতাকে ভয় করা :ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে সবসময়ের জটিল কোডের সম্মুখীন হওয়ার জন্য মনপ্রাণ দিয়ে আশা করবেন। ওয়েব ডেভেলপিং করতে গিয়ে যত বেশি কোডের জটিলতার সম্মুখীন হবেন, তত বেশি নিজের ভেতর কনফিডেন্ট তৈরি হবে। ওয়েব ডেভেলপারদের মনে রাখা দরকার, একজন ওয়েব ডেভেলপারদের কাছে অসম্ভব বলে কিছু নেই। এ বিশ্বাসটা ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই নিজের মধ্যে তৈরি রাখতে হবে। যেটুকু শিখেছি, এর বাইরে কিছু দেখলেই পারা যাবে না, এ বিশ্বাসটা একজন ওয়েব ডেভেলপারের ব্যর্থ ক্যারিয়ারের জন্য অত্যন্ত বেশি দায়ী।
♦খুব বেশি অন্যের উপর নির্ভরশীল :একজন ওয়েব ডেভেলপারকে সারাজীবন ধরেই শিখতে হয়। আপনি কারও কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে একটা পর্যায় পর্যন্ত যেতে পারেন। কিন্তু বাকি পথটা একা একাই হাঁটতে হবে। আর সেজন্য প্রচুর পরিমাণ গুগল থেকে সার্চ করে নিজে নিজে শেখার অভ্যাসটা শুরু থেকেই করে নিতে হবে। কোডিং সম্পর্কিত যেকোনো সমস্যার সমাধানই গুগলে পাবেন।
♦ রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট না করা :যত শিখবেন তার চাইতে বেশি প্রজেক্ট করার চেষ্টা করে যেতে হবে। যত বেশি প্রজেক্ট করবেন, তত বেশি কোডিংয়ের জটিলতার সম্মুখীন হবেন। আর এ বিষয়টি আপনাকে ভালো মানের ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে প্রস্তুত করবে। সুতরাং কোডিংয়ের জটিলতা আছে এ রকম কাজ করার চেষ্টা করুন প্রচুর পরিমাণে। কাছের কারও ওয়েবসাইট ফ্রি ডেভেলপিং করে কিংবা নিজের ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট ডেভেলপিং করেও রিয়েল লাইফ প্রজেক্টের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন।

♦ নিজের কাজের পোর্টফলিও না থাকা :কমপক্ষে ৫টি কাজের অভিজ্ঞতা থাকা ছাড়া আসলে চাকরি খুঁজলে কিংবা আউটসোর্সিং করতে গেলে কাজ না পাওয়ার আশঙ্কাটাই বেশি। এটা শুধু ওয়েব ডিজাইন কিংবা ওয়েব ডেভেলপিংয়ের ক্ষেত্রে না, যেকোনো সেক্টরের জন্য একই কথা প্রযোজ্য। এ কাজটি আমরা করি না দেখেই দক্ষ হওয়ার পরও বেশিরভাগ সময় বেকার বসে থাকি। শেখার শুরুর দিক থেকেই এদিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে নজর দেওয়া উচিত। ওয়েব ডিজাইনের ক্ষেত্রে একই ধরনের না করে আলাদা আলাদা ধরনের এবং জটিল কোডিংসহ ওয়েব ডেভেলপ করে সেগুলোকে কাজের পোর্টফলিও হিসেবে প্রস্তুত করুন।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top