শিরোনাম

শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - গুগল এআরকোর উন্মোচন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - ছয় ক্যামেরার ফোরজি স্মার্টফোন নকিয়া ৮প্রো | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - উদ্ভাবনের জন্য ‘ওপেন গ্রুপ প্রেসিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড ২০১৮’ পেল বিসিসি | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - শাওমির নতুন ফোন এমআই ম্যাক্স ৩ | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - কুমিল্লায় আনুষ্ঠানিকভাবে ৪জি চালু করলো গ্রামীণফোন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - ট্রাভেল বুকিং এ যুক্ত হলেন সাকিব আল হাসান | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী 23, 2018 - অনলাইন পোর্টালের গুঞ্জনে ক্ষুব্ধ তাসকিন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - দর্শনার্থী নেই বেসিস সফটএক্সপোতে ! | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিসিএস নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - ২০১৭ সালে রবি’র লোকসান ২৮০ কোটি টাকা |
প্রথম পাতা / অর্থনীতি / উদ্যোগ / একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং ই-ক্যাব
একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং ই-ক্যাব

একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং ই-ক্যাব

a2iগত ২৮ মে ২০১৭, রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসএসএফ ব্রিফিং রুমে ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশন ডিজিটাল সেন্টার এর উদ্যোক্তাদের মাঝে ই-কমার্স সেবার বিষয়ে সচেতনতা তৈরি ও সম্প্রসারণের লক্ষ্যে একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এবং ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)-এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়-এর মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার এবং ই-ক্যাব এর প্রেসিডেন্ট জনাব রাজিব আহমেদ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন।

সমগ্র দেশব্যাপী একটি ই-কমার্স ইকোসিস্টেম প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে সমঝোতা স্মারকটি স্বাক্ষরিত হয়। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ই-কমার্স বাস্তবায়নের বিষয়ে প্রচার প্রচারণা, সচেতনতা তৈরী, বিভিন্ন প্রশিক্ষণের চাহিদা নিরুপণ, প্রশিক্ষণ কর্মসূচী পরিচালনা এবং কারিগরী সহায়তা প্রদানের বিষয়ে এটুআই প্রোগ্রাম ও ই-ক্যাব যৌথভাবে কাজ করবে।সমঝোতাস্মারকঅনুযায়ীএটুআইএবংই-ক্যাবই-কমার্স বিষয়ে পলিসি প্রণয়ন করবে এবং বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এছাড়া ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাদের জন্য মুক্তপাঠের মাধ্যমে অনলাইন প্রশিক্ষণের আয়োজন করবে। ডিজিটাল সেন্টার থেকে ই-কমার্স সিস্টেম চালু করার ক্ষেত্রে ক্রয় বিক্রয়ের বিষয়ে নলেজ পার্টনার হিসেবে কাজ করবে ই-ক্যাব। বাংলাদেশ পোষ্ট অফিসের মাধ্যমে পণ্য লেনদেনের যাবতীয় পদ্ধতির যোগসূত্র তৈরিতেও এ দুই প্রতিষ্ঠান কাজ করবে।

ডিজিটাল সেন্টার হলো ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ডে স্থাপিত তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর সেবা সমৃদ্ধ একটি আধুনিক কেন্দ্র। ইতিমধ্যে এসব ডিজিটাল সেন্টার থেকে ই- কমার্সের মাধ্যমে প্রায় ৫ কোটি টাকা মুল্যের পণ্য কেনাবেচা হয়েছে। প্রায় ২৭ কোটি ৮০ লক্ষ সেবা প্রদান করা হয়েছে যার মধ্যে ৩০ হাজার ২০৭ টি ব্যাংক একাউন্ট খোলা,  ৭৮ কোটি  ৪৪ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকা ব্যাংকিং চ্যানেলে লেনদেন, ৬ কোটি ৪০ লক্ষ ১০ হাজার টাকা রেমিট্যান্স উত্তোলন সেবা প্রদান, ২ কোটি ৬৮ লক্ষ ২৮ হাজার টাকা পাসপোর্ট ফি প্রদান, অনলাইনে 12,000 টি পাসপোর্টের আবেদন সেবা প্রদান, বিদেশ গমনেচ্ছু ২০ লক্ষাধিক নারী-পুরুষ শ্রমিক ও পেশাজীবীদের অনলাইন নিবন্ধন এবং সেন্টারে বসে আবেদন করে বাড়িতে বসে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার জমির পরচা লাভ ডিজিটাল সেন্টার থেকে সেবা পাওয়ার অনন্য নজির। এখন গ্রামে থেকে জনগণ সরকারি ফরম পূরণ, পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল, অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, অনলাইন জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন, ই-মেইল-ইন্টারনেট ব্যবহার, কম্পিউটার প্রশিক্ষণসহ ১১২ ধরনের সরকারি-বেসরকারি এবং বাণিজ্যিক সেবা পাচ্ছে এসকল ডিজিটাল সেন্টার থেকে।

একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এর পলিসি এডভাইজর আনীর চৌধুরী, ই-ক্যাব-এর প্রেসিডেন্ট জনাব রাজিব আহমেদসহ উভয় প্রতিষ্ঠান এর উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top