শিরোনাম

শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - গুগল এআরকোর উন্মোচন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - ছয় ক্যামেরার ফোরজি স্মার্টফোন নকিয়া ৮প্রো | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - উদ্ভাবনের জন্য ‘ওপেন গ্রুপ প্রেসিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড ২০১৮’ পেল বিসিসি | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - শাওমির নতুন ফোন এমআই ম্যাক্স ৩ | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - কুমিল্লায় আনুষ্ঠানিকভাবে ৪জি চালু করলো গ্রামীণফোন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - ট্রাভেল বুকিং এ যুক্ত হলেন সাকিব আল হাসান | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী 23, 2018 - অনলাইন পোর্টালের গুঞ্জনে ক্ষুব্ধ তাসকিন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - দর্শনার্থী নেই বেসিস সফটএক্সপোতে ! | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিসিএস নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - ২০১৭ সালে রবি’র লোকসান ২৮০ কোটি টাকা |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / এক্সপি চালু রাখতে নেদারল্যান্ডের মিলিয়ন ডলার খরচ
এক্সপি চালু রাখতে নেদারল্যান্ডের মিলিয়ন ডলার খরচ

এক্সপি চালু রাখতে নেদারল্যান্ডের মিলিয়ন ডলার খরচ

দীর্ঘ ১৩ বছরের যাত্রার পর আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ হচ্ছে উইন্ডোজ এক্সপি’র জন্য মাইক্রোসফটের সেবা। বিশ্বব্যাপী অন্যতম জনপ্রিয় এই অপারেটিং সিস্টেমটির জন্য আজ থেকে আর নতুন কোনো আপডেট প্রদান করবে না এর নির্মাতা মাইক্রোসফট।

windows-xp-april

 

এদিকে আরও এক বছর উইন্ডোজ এক্সপির জন্য মাইক্রোসফট থেকে সেবা পেতে কয়েক মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে যাচ্ছে নেদারল্যান্ড। দেশটির সরকারি অফিসগুলোর প্রায় ৪০ হাজার কম্পিউটারে এখনও ব্যবহূত হয়ে আসছে উইন্ডোজ এক্সপি। আগামী বছরের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত মাইক্রোসফটের কাছ থেকে সেবা পাওয়ার জন্যই তারা এই অর্থ খরচ করছে। তবে ঠিক কত মিলিয়ন ইউরো এর জন্য নেদারল্যান্ড সরকারকে খরচ করতে হবে, তার সঠিক পরিমাণটি জানা যায়নি।

সরকারি সংস্থা ও অফিসগুলোর কম্পিউটারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ডাচ সরকার। এর আগে অবশ্য যুক্তরাজ্য সরকার ৫.৬ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে তাদের সরকারি অফিসগুলোর উইন্ডোজ এক্সপির জন্য সুরক্ষা নিশ্চিত করেছে মাইক্রোসফটের কাছ থেকে। ২০০১ সালের অক্টোবর মাসে অবমুক্ত হওয়া উইন্ডোজ এক্সপি দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করে বিশ্বব্যাপী।

এরপরে উইন্ডোজ ভিসতা এবং উইন্ডোজ ৭-এর পর সর্বশেষ উইন্ডোজ বাজারে আসে ২০১২ সালের অক্টোবরে। ২০১৩ সালে তারা প্রথম জানায় ২০১৪ সালে উইন্ডোজ এক্সপি’র জন্য সব ধরনের সেবা বন্ধ করে দেওয়া হবে। সেই অনুযায়ীই আজ থেকে উইন্ডোজ এক্সপি’র জন্য কোনো সিকিউরিটি আপডেট পাওয়া যাবে না, পাওয়া যাবে না অন্য কোনো ধরনের আপডেটও। মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ বিজনেস গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার জ্যাসন লিম জানিয়েছেন, এতে করে এক্সপি ব্যবহূত কম্পিউটারগুলো মূলত অরক্ষিত হয়ে পড়বে। এসব কম্পিউটারের নিরাপত্তা ঝুঁকি অনেক বেশি হবে বলে জানিয়েছে মাইক্রোসফট।

উল্লেখ্য, বিশ্বের বেশিরভাগ ব্যাংক এবং তাদের এটিএম বুথে মূলত উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহূত হয়ে থাকে। এক্সপিকে বদলে নতুন অপারেটিং সিস্টেম গ্রহণ না করলে তা ব্যাংকগুলোর জন্য বড় ধরনের ঝুঁকি হয়ে দাঁড়াবে। অবশ্য যেসব ব্যাংক এমবেডেড এক্সপি ব্যবহার করে থাকে, তারা ২০১৬ সাল পর্যন্ত সেবা পাবে মাইক্রোসফটের কাছ থেকে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top