শিরোনাম

রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা পূরণে সহায়তা করবে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - অপো এফ৫ ৬জিবি’র প্রি-বুকিং-এ আশাতীত সাফল্য | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - মাস্টারকার্ডের সহযোগিতায় প্রিয়শপ ডট কম-এর ‘শায়েস্তা খাঁ অফার’ | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - ‘অ্যাডাল্ট কনটেন্ট’এর হাত থেকে শিশুদের বাঁচাতে যা করবেন | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - “আগামী দিনের দক্ষতা ও চতুর্থ শিল্প বিপ্লব” শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - ইন্টারেস্টিং কোনো অফার পেলে বাংলাদেশি ছবিতে কাজ করবো:নাফিস | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - পিপীলিকা ক্রাউডসোর্সিং প্ল্যাটফর্ম এর যাত্রা শুরু | রবিবার, ডিসেম্বর 10, 2017 - জমকালো আয়োজনে পর্দা নামলো ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের | শনিবার, ডিসেম্বর 9, 2017 - মেটাল বডিতে ফিরছে অ্যাপল | শনিবার, ডিসেম্বর 9, 2017 - বাজারে আসছে এলজি ভি৩০ |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / এবার দূরপাল্লার বাসে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট
এবার দূরপাল্লার বাসে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট

এবার দূরপাল্লার বাসে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট

রাজধানীর বাইরের দূরপাল্লার যাত্রীদের ইন্টারনেট সেবা দিতে বাসেই যুক্ত হচ্ছে ওয়াইফাই সংযোগ। পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকাচট্টগ্রাম এবং ঢাকাকক্সবাজার রুটে চলাচলরত বিলাসবহুল বাসে এই সেবা চালু করা হবে। এ উদ্যোগ সফল হলে দেশের অন্যান্য দূরপাল্লার রুটেও এই সেবা চালু করা হবে।

দূরপাল্লার ভ্রমণে যাত্রীদের একঘেয়েমি দূর করতে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ইন্টারনেট ব্রাউজমেইল চেক করা,মেইল প্রেরণ এবং গেম খেলার সুবিধা দিতে বাসে বসানো হবে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ওয়াইফাই রাউটার।

BRTC-Digital-Bus-2

বেসরকারি বাস মালিকরা যাত্রীদের সেবা দিতে এগিয়ে এলে এ উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিআরটিসির পরিচালক (টেকনিক্যালএবং বিঅারটিসি বাস উইথ ওয়াইফাই ইন্টারনেট সিস্টেম প্রকল্পের পরিচালক লেকর্নেল আবদুল্লাহিল করিম। তিনি বলেন, ‘টেস্ট কেস হিসেবে দূরপাল্লার দুএকটি বাসে অামরা এই প্রযুক্তি চালু করতে পারি।

এদিকে রাজধানীতে চলাচলরত ওয়াইফাই ইন্টারনেট সংযুক্ত বিঅারটিসি বাসের সংখ্যাও বাড়ানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। চলতি সপ্তাহে ৫টি এবং অাগামী সপ্তাহে অারও ৫টি বাসে ওয়াইফাই ইন্টারনেট সেবা চালু করা হবে বলে জানান আবদুল্লাহিল করিম।

তিনি বলেন, ‘অাপাতত উত্তরামতিঝিল রুটে এই সেবা চালু করা হচ্ছে।‘ অন্য রুটে কেন নয়– জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘উত্তরা থেকে গাজীপুর এবং উত্তরা থেকে অাজিমপুরমতিঝিল থেকে ক্যান্টনমেন্টের বালুঘাট,আজিমপুর থেকে গাবতলী হয়ে সাভাররামপুরা হয়ে উত্তরা রুটেও এই সেবা চালু করা হয়েছিল। কিন্তু মতিঝিলউত্তরা রুট ছাড়া অন্য রুটে ইন্টারনেট সংযোগে কাঙ্ক্ষিত গতি না পাওয়া এবং সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়াসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেওয়ায় ওসব রুটের বাস থেকে ওয়াইফাই প্রত্যাহার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গতগত ১০ এপ্রিল ঢাকার রাস্তায় ১০টি ওয়াইফাই ইন্টারনেট যুক্ত বিঅারটিসি বাস ছাড়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআইপ্রকল্পের কারিগরী সহায়তায় রাস্তায় নামানো এসব বাসে ইন্টারনেটের পাশাপাশি ভেহিকেল ট্র্যাকিং সিস্টেমও চালু করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়সাভার রুটে থ্রিজি না থাকায় ওই রুট থেকে ওয়াইফাই বাস প্রত্যাহার করে তা গাজীপুর রুটে দেওয়া হয়। কারিগরী সমস্যার কারণে পরে ওই রুট থেকেও ওয়াইফাই বাস প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। প্রথমদিকে বিআরটিসির কিছু দোতলা ননএসি ও আর্টিকুলেটেড বাসে এ সুবিধা থাকলেও পরবর্তীতে শধু শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসিবাসেই এ সুবিধা যুক্ত করা হয়েছে।

বিঅারটিসির প্রকল্প পরিচালক বলেন, ‘ননএসি এবং অার্টিকুলেটেড বাসে বেশির ভাগ ভাসমান যাত্রী থাকায় ইন্টারনেটের চাহিদা পর্যাপ্ত না হওয়ায় ওয়াইফাই প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ওয়াইফাই বাসগুলোতে মাঝে মাঝে ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া এবং গাড়ি দ্রুতবেগে চললে ইন্টারনেটের গতি অত্যন্ত ধীর হয়ে যাওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও অনেক ডিভাইসে সংযোগ না পাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন যাত্রীদের কেউ কেউ।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানানএকটি বাসে দুটি করে রাউটার বসানো রয়েছে। একটি রাউটার দিয়ে সর্বোচ্চ ১০ জন ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন। এই ইন্টারনেটের গতি প্রতি সেকেন্ডে এক মেগাবাইট। বেশি যাত্রী এক সঙ্গে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে শুরু করলে গতি ধীর হয়ে যায়। এছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা ইন্টারনেটে যুক্ত হয়েই অনলাইনে গেম খেলতে শুরু করেন। উচ্চ গতির ইন্টারনেট না পাওয়ার এটাও একটা কারণ।

কর্তৃপক্ষ অারও জানায়এসব বাসের ওয়াইফাই ইন্টারনেট কেবল অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ব্যবহার করা যাবে। ফলে অন্য অপারেটিং সিস্টেমের ডিভাইসে (মোবাইলফোনট্যাববাসের ভেতর ইন্টারনেট সংযোগ পাওয়া যাবে না। তবে অাগামীতে বাসের ভেতরে রাউটারের সংখ্যা বাড়ানো হতে পারে বলে জানা গেছে।

এসব বাসে কাঙ্ক্ষিত গতির ইন্টারনেট না পাওয়ার পেছনে কারিগরি দুর্বলতাও একটি বড় কারণ বলে জানিয়েছেন ভূক্তভোগীরা। তারা বলেছেনইন্টারনেট ব্যবহার করতে সমস্যা হলে বাস থেকে তেমন কোনও সহায়তা পাওয়া যায় না। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, ‘টেকনিক্যাল ম্যানপাওয়ার‘ –এর সংখ্যা কম থাকায় বাস যাত্রীদের সঠিকভাবে সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। টেকনিক্যাল ম্যানপাওয়ার‘ দেওয়ার বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে অালোচনা চলছে। শিগগিরই হয় তো লোকবল পাওয়া যাবে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top