শিরোনাম

শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - কুমিল্লায় আনুষ্ঠানিকভাবে ৪জি চালু করলো গ্রামীণফোন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী 24, 2018 - ট্রাভেল বুকিং এ যুক্ত হলেন সাকিব আল হাসান | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী 23, 2018 - অনলাইন পোর্টালের গুঞ্জনে ক্ষুব্ধ তাসকিন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - দর্শনার্থী নেই বেসিস সফটএক্সপোতে ! | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিসিএস নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - ২০১৭ সালে রবি’র লোকসান ২৮০ কোটি টাকা | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য অপো স্মার্টফোনসমূহ ৪জি সেবা দিতে প্রস্তুত | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিইউপিবিজিএ-এর বার্ষিক বনভোজন সম্পন্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - উদ্বোধন হলো বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮’র | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - এলো টোটেলিংক এর হাই স্পীড ওয়াইফাই রাউটার |
প্রথম পাতা / ক্যারিয়ার / কর্মক্ষেত্রে পাঁচটি ভুল

কর্মক্ষেত্রে পাঁচটি ভুল

কর্মক্ষেত্রে তাই আমরা সবাই কমবেশি ভুল করে থাকি। এসব ভুলের অনেকগুলো হতে পারে নিজের অনিচ্ছাতেই। কখনো অসাবধানতাতেও ভুল হয়ে যেতে পারে। এসব ভুল আমাদের কর্মজীবনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। পাশাপাশি অফিসে নিজের মূল্যায়নেও বিরূপ প্রভাব রাখতে পারে এসব ভুল। অনেক সময় প্রতিষ্ঠানও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এসব ভুলের কারণে। আমাদের মানসিক অবস্থা বা আত্মবিশ্বাসও কমিয়ে দিতে পারে এসব ভুল।
বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে এ ধরনের পাঁচটি ভুল এখানে আলোচনা করা হলো, যেসব এড়িয়ে চলা সম্ভব।
১. তথ্য ব্যবহার
দৈনদিন্দ সব কাজই হয়ে থাকে তথ্য নির্ভর। অফিসে প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকের তথ্য বা অন্য কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য কিন্তু সাবধানেই ব্যবহার করতে হয়। অনেক সময় আমরা প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকের তথ্য উš§ুক্ত করে ফেলতে পারি খেয়াল না করেই। সেক্ষেত্রে কিন্ত ওই গ্রাহকটিকে সেই তথ্য ব্যবহার করে অন্য কেউ হয়রানি করতে পারে। আর এর দায় কিন্তু নিতে হবে যার কাছ থেকে তথ্যটি বাইরে গেছে, তাকেই। অনেক সময় এসব তথ্যের অপব্যবহার ধরা পড়লে প্রতিষ্ঠান থেকে বহিস্কৃতও হয়ে যেতে পারেন। কাজেই প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের সকল তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা করা একটি অবশ্য কর্তব্য।
একই সঙ্গে গ্রাহক বা ক্রেতার তথ্য সংরক্ষণ ও তার গোপনীয়তা রক্ষা করা একটি দায়বদ্ধতাও বটে, যা সংরক্ষণের দায়িত্ব বর্তেছে প্রতিষ্ঠানের এবং সব কর্মীর ওপর। আর যাঁরা এই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ, তাঁদের প্রতি প্রতিষ্ঠানের সদয় হওয়া বা ক্ষমা করার কোনো কারণ নেই। গ্রাহকের তথ্য ছাড়াও যেকোনো ধরনের পরিকল্পনা, বিক্রয়, আয়, ব্যয়, মুনাফা, মানবসম্পদ কিংবা প্রযুক্তিসংক্রান্ত তথ্যের শুধু সংগত ও প্রয়োজনমাফিক ব্যবহার হতে হবে। প্রতিটি তথ্য ব্যবহারের যথাযথ পদ্ধতি মেনে সংশ্লিষ্ট ও দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তির মাধ্যমেই যেকোনো তথ্যের প্রচার ও ব্যবহার হওয়া উচিত।
২. বিতর্কিত ব্যক্তি এড়িয়ে চলুন
আপনি নিজে শুধু একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করলেই হবে না, আপনার পরিপার্শ্বের ব্যাক্তিত্বের প্রভাবও পড়তে পারে আপনার উপর। অফিসে আপনি যেমনই হোন না কেন, আপনার পারিবারিকভাবে যাদের সাথে উঠাবসা, তাদের পরিচয়টিও গুরুত্বপূর্ণ। আপনার ওঠাবসা যদি এমন কোনো মানুষদের সাথে থাকে যারা অপরাধ সংক্রান্ত বিষয়ে জড়িত, তবে তা আপনার জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতেই পারে। তাদের কাজের জন্য অনেক সময় আপনি জুঁকিতে পড়ে যেতে পারেন। একইসাথে আপনার পরিবারের জন্যও তা বিপজ্জনক। কাজেই যাদের সাথে ওঠাবসা করছেন, তাদের যাচাই করে নিন সঠিকভাবে।
৩. আবেগ দমন করুন
স্বাভাবিকভাবেই মানুষ আবেগ দ্বারা তাড়িত হয়ে থাকে। এটা মানুষের একটি স্বাভাবিক প্রবৃত্তি। তবে কর্মক্ষেত্রে আবেগকে প্রশ্রয় দেয়া কখনই কাজের কথা নয়। পেশাগত জীবনে যথাসম্ভব আবেগকে পরিহার করে চলাই উচত। রাগ, ক্ষোভ কিংবা রোমান্সের অতি প্রকাশ একজন ব্যক্তির ভাবমূর্তিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। তার অর্থ এই নয় যে সবাইকে পুরোপুরি আবেগহীন হয়ে যেতে হবে। পরিমিত আবেগের প্রকাশ অনেক ক্ষেত্রেই কিন্তু জরুরি। পরিস্থিতি ও ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী এই পরিমিত আবেগের সংজ্ঞা ও সীমানা আপনাকেই তৈরি করতে হবে।
৪. অস্বচ্ছতা পরিহার করুন
মানুষ মাত্রই ভুল করতে পারে। অনেক সময় অনাকাক্সিক্ষত কোনো কারণেও আপনার পরিকল্পিত উপায়ে কাজটি হয়ত করতে পারবেন না। হঠাৎ করেই নানান রকম বাঁধা এসে দাঁড়াতে পারে সামনে। এসব ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তিদের সময় মত অবহিত করাটা জরুরি। শুরুতেই যদি বিষয়টি সম্পর্কে সকলকে অবহিত করে রাখা যায়, তবে ঝামেলার কারণে কাজটি ক্ষতিগ্রস্ত হলেও আপনাকে অযথা কেউ অকারণ দোষী করতে পারবেন না। অন্যাথায় তা আপনার জন্য সমস্যা তৈরি করতেই পারে।
৫. অনিয়মের জড়াবেন না
অনেক কাজেই কাজের ক্ষেত্রে অনিয়ম বা নানান রকম প্রলোভন জড়িত থাকতে পারে। তবে সেসব অনিয়ম বা প্রলোভনের ফাঁদ এড়িয়ে চলাই বুদ্ধিমানের কাজ। কারণ এটা তো চিরসত্য যে, অনিয়ম বা লোভের বশবর্থী হয়ে কাজ করলে তার সাময়িক সুফল পাওয়া গেলেও তা শেষ পর্যন্ত ভালো কোনো ফল বয়ে আনেনা। অনেক সময় সাময়িক এই লোভের কারণে ভবিষ্যতের বড় কোনো সুযোগও হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে। আর সত্যটা সবসময়ই প্রকাশিত হয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে তখন আপনার ভোগ করা সুবিধাটা উল্টো গলার কাঁটা হয়ে দেখা দেবেই। তাই সময় থাকতে সাবধান।

Comments

comments



One comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top