শিরোনাম

মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - যে সব কারণে কিনবেন নোকিয়া ৮ | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - কে করবে অস্ত্রোপচার ? | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - আসছে স্যামসাংয়ের নতুন ট্যাব | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - চেক লেখার সময়ে এই ভুলগুলি করলেই ফাঁকা হবে অ্যাকাউন্ট! | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - জিওনির কম বাজেটের নতুন স্মার্টফোন | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - নিটল ইলেকট্রনিক্স এর শোরুম এখন সিলেটে | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - সীমান্তে অবৈধ টাওয়ার, ১৭ কোটি টাকা জরিমানা গুনতে হবে বাংলালিংককে | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - টাকা ওঠাতে চার্জ বেশি নিচ্ছে বিকাশ | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - এরিকসনে বিনা নোটিশে ৫০ কর্মী ছাঁটাই করায় অবরুদ্ধ শীর্ষ কর্মকর্তারা |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / জরিমানার সঙ্গে ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি দিতে হবে গ্রামীণফোনকে
জরিমানার সঙ্গে ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি দিতে হবে গ্রামীণফোনকে

জরিমানার সঙ্গে ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি দিতে হবে গ্রামীণফোনকে

GP-Go-Broadbandটেলিযোগাযোগ আইন ভঙ্গ করে অবৈধ ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার অভিযোগে ৩০ কোটি টাকা জরিমানা সময়মতো পরিশোধ না করায় আরও ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি গুণতে হবে গ্রামীণফোনকে। বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) করা জরিমানার বিপরীতে গতকাল বুধবার এক চিঠিতে ৩০ কোটি টাকা পরিশোধে অস্বীকৃতি জানায় গ্রামীণফোন। নির্দিষ্ট সময়ে জরিমানা না দেওয়ার কারণে অপারেটরটিকে জরিমানার সাথে অতিরিক্ত ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি দিতে হবে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির এক শীর্ষ কর্মকর্তা।

গতকাল বুধবার ছিল জরিমানা পরিশোধের শেষ দিন। এ দিন গ্রামীণফোনের প্রধান করপোরেট অ্যাফেয়ার্স কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেনের স্বাক্ষরিত এক পত্রে ৩০ কোটি টাকার আর্থিক জরিমানা পরিশোধে অস্বীকৃতি জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিটিআরসির একজন শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন, ‘গ্রামীণফোন যদি মনে করে এ বিষয়ে আলোচনা করার সুযোগ ছিল, তাহলে তারা জরিমানা দেওয়ার শেষ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করলো কেন? তাদের উচিত ছিল আমাদের কাছে আরও আগে আসা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আইন অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জরিমানা না দেওয়ার কারণে আরও অতিরিক্ত ১৫ শতাংশ বিলম্ব ফি দিতে হবে অপারেটরটিকে।’

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, অনুমোদন না নিয়েই গ্রামীণফোন চালু করে ‘গো ব্রডব্যান্ড’ নামের নতুন ইন্টারনেট সেবা। এতে গ্রামীণফোনের সঙ্গী হয় এডিএন টেলিকম ও অগ্নি সিস্টেমস। গ্রামীণফোন এই সেবা দিচ্ছিল সোনালী ব্যাংককে। টেলিযোগাযোগ আইন অনুযায়ী কোনো মোবাইল ফোন অপারেটর সরাসরি তাদের অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে এ ধরনের ‘লাস্ট মাইল কানেকটিভিটি’ সেবা দিতে পারে না। অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে ইন্টারনেটের সর্বশেষ পর্যায়ের সংযোগকে বলা হয় লাস্ট মাইল কানেকটিভিটি।

এ বিষয়ে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) বিটিআরসির কাছে অভিযোগ জানালে আইন না মেনে সোনালী ব্যাংককে এই ধরনের সেবা দেওয়ায় গ্রামীণফোনকে কেন আর্থিক জরিমানা করা হবে না, সে বিষয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। গ্রামীণফোনের এই অনিয়মের বিরুদ্ধে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বিটিআরসিতে অভিযোগ জানায় আইএসপিএবি। গত ৩০ মার্চ বিটিআরসি এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত সময় দেয় গ্রামীণফোনকে। কমিশন ওই চিঠিতে গ্রামীণফোনের কাছে ৬টি বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে চায়।

গত ১৩ জুন বিটিআরসির কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, সোনালী ব্যাংক গ্রামীণফোনের কাছ থেকে গো ব্রডব্যান্ড সেবা নিতে পারবে না। সোনালী ব্যাংকের ৫১১টি শাখায় অনলাইন ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালিত হতো গো ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহার করে। বিটিআরসির সর্বশেষ কমিশন বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৩০ অক্টোবর অপারেটরটিকে অবৈধ ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার কারণে ৩০ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়।

এরপর ৬ নভেম্বর জরিমানার ৩০ কোটি টাকা আগামী ১০ দিনের মধ্যে পরিশোধের নির্দেশ দেয় বিটিআরসি। জরিমানার টাকা পরিশোধ করার সর্বশেষ সময় ছিল গতকাল বুধবার। তবে এ দিন জরিমানা না দিয়ে উল্টো এক চিঠির মাধ্যমে এই টাকা পরিশোধে অস্বীকৃতি জানায় অপারেটরটি। গ্রামীণফোনের চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ আইন ২০০১-এর ৬৫ (৩) ধারা অনুযায়ী গো ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দিয়ে অপারেটরটি কোনো ধরনের আইন লঙ্ঘন করেনি। যেহেতু আইন লঙ্ঘন করা হয়নি, তাই ৩০ কোটি টাকা জরিমানা পরিশোধ করা থেকে অব্যাহতি চাওয়া হয়েছে চিঠিতে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top