শিরোনাম

রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - আকর্ষণীয় ফিচার নিয়ে বাজারে আসছে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - বাংলালিংকের ‘হেলথলিংক ৭৮৯’ সার্ভিসে যুক্ত হল ‘ডক্টরস অ্যাপয়েন্টমেন্ট’ সুবিধা | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - গ্লোবাল ব্র্যান্ড নিয়ে এসেছে লেনোভো আউডিয়াপ্যাড ৩২০ ল্যাপটপ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - ব্যবসায়ীদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - হ্যাকিংয়ের কাবলে ওয়ানপ্লাস | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - আসছে ইন্টেল কোর আই৯ প্রসেসর এর ল্যাপটপ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - বাণিজ্য মেলায় অপো এফ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - আরও কঠিন হচ্ছে ইউটিউব থেকে উপার্জন | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - ফেসবুক হ্যাকড হলে করনীয় | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - কর্মজীবি নারীদের মানহানি বন্ধে আহব্বান |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সর্বোচ্চ কর বাংলাদেশে
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সর্বোচ্চ কর বাংলাদেশে

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সর্বোচ্চ কর বাংলাদেশে

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কর আদায় করা হচ্ছে বাংলাদেশে। তথ্যপ্রযুক্তি সেবা এবং পণ্য বিক্রি_ উভয় ক্ষেত্রেই করারোপে বিশ্বে শীর্ষস্থানে বাংলাদেশ। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ওয়াশিংটনভিত্তিক আন্তর্জাতিক তথ্যপ্রযুক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘দ্য ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড ইনোভেশন ফাউন্ডেশনের’ (আইটিআইএফ)

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কর আদায় করা হচ্ছে বাংলাদেশে। তথ্যপ্রযুক্তি সেবা এবং পণ্য বিক্রি_ উভয় ক্ষেত্রেই করারোপে বিশ্বে শীর্ষস্থানে বাংলাদেশ। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ওয়াশিংটনভিত্তিক আন্তর্জাতিক তথ্যপ্রযুক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘দ্য ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড ইনোভেশন ফাউন্ডেশনের’ (আইটিআইএফ) গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে।

ITIF

প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৪ সালের অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সবচেয়ে বেশি করারোপ করা হয়েছে। বিভিন্ন স্তর মিলিয়ে প্রকৃত মূল্যের ওপর গড়ে ৬০ দশমিক ৫ শতাংশ কর আদায় করা হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে করারোপে দ্বিতীয় স্থানে থাকা তুরস্কে করারোপের হার ৩৮ শতাংশ। বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারকারী দেশ ভারতে করের হার ১২ শতাংশ।

প্রতিবেদনে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারকারীর বিবেচনায় ১২৫টি দেশের প্রাথমিক তালিকার মধ্যে শীর্ষ ৫০টি দেশের তালিকা তৈরি করে নিবিড় গবেষণা চালানো হয়।প্রতিবেদনে বাংলাদেশে করারোপ সম্পর্কে মূল্যায়নে বলা হয়েছে, তথ্যপ্রযুক্তি বিকশিত হচ্ছে এমন একটি দেশে করের এই হার অস্বাভাবিক।

এ ব্যাপারে প্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি খাত বিকাশমান বলেই করের হার নূ্যনতম প্রয়োজন ছিল। তবে নানা অজুহাতে অতি উঁচু হারে করারোপ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের ঘোষণার পরিপন্থী।এ ব্যাপারে তথ্যপ্রযুক্তি খাত বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ সাবির সমকালকে বলেন, বাংলাদেশে এখন তথ্যপ্রযুক্তি খাতে কর সর্বনিম্ন পর্যায়ে থাকা উচিত ছিল। তবে বাস্তবে দেখা যাচ্ছে উল্টোটা। এখন সরকারেরই উচিত সেই উল্টোচিত্র স্বাভাবিক করা।

আইটিআইএফের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে ব্রডব্যান্ড তথ্যপ্রযুক্তি সেবা ও পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে সাধারণভাবে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আদায় করা হচ্ছে। এর বাইরে ৪৫ দশমিক ৫ শতাংশ অতিরিক্ত করারোপ হয়েছে একাধিক স্তরে। এ কারণে বাংলাদেশের মানুষকে তথ্যপ্রযুক্তি সেবা গ্রহণ এবং পণ্য ক্রয়, উভয় ক্ষেত্রেই প্রকৃত মূল্যের চেয়ে ৬০ শতাংশ বেশি মূল্য পরিশোধ করতে হচ্ছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বিগত পাঁচ বছরের হিসাবে বাংলাদেশে মধ্য আয়ের জনগোষ্ঠীর মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য ব্যবহার বৃদ্ধির গড় হার ৮১ শতাংশ, উচ্চবিত্তের মধ্যে এই হার ১৬৭ শতাংশ এবং নিম্নবিত্তের ক্ষেত্রে ৫২ শতাংশ। ব্যবহারকারীর হার বৃদ্ধির ক্ষেত্রেও বাংলাদেশ শীর্ষস্থানে রয়েছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, সর্বোচ্চ করারোপের ক্ষেত্রে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তুরস্ক এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে কঙ্গো রিপাবলিক। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারকারী দেশ যুক্তরাষ্ট্রে সে দেশের নাগরিকদের জন্য তথ্যপ্রযুক্তি সেবা ও পণ্য ব্যবহারের ক্ষেত্রে করের হার মাত্র ১ শতাংশ। তবে শিল্প ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে করের হার ৯ দশমিক ৪ শতাংশ।দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারকারী দেশ ভারতে করের হার ১২ শতাংশ। নেপালে ৩৩ দশমিক ৫ শতাংশ, শ্রীলংকায় ১৮ শতাংশ এবং পাকিস্তানে ২২ দশমিক ৪ শতাংশ। তবে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের হারের দিক থেকে ১২৫টি দেশের মধ্যে নির্বাচিত ৫০টি দেশের তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার মিয়ানমার, ভুটান ও মালদ্বীপ নেই।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top