শিরোনাম

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী 23, 2018 - অনলাইন পোর্টালের গুঞ্জনে ক্ষুব্ধ তাসকিন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - দর্শনার্থী নেই বেসিস সফটএক্সপোতে ! | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিসিএস নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - ২০১৭ সালে রবি’র লোকসান ২৮০ কোটি টাকা | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য অপো স্মার্টফোনসমূহ ৪জি সেবা দিতে প্রস্তুত | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিইউপিবিজিএ-এর বার্ষিক বনভোজন সম্পন্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - উদ্বোধন হলো বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮’র | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - এলো টোটেলিংক এর হাই স্পীড ওয়াইফাই রাউটার | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - সবুর খান ডব্লিউবিএএফ-এর বাংলাদেশ হাই কমিশনার নিযুক্ত | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - সিন্দাবাদ ডট কম-এর সাথে যুক্ত হলো মাই আউটসোর্সিং লিমিটেড |
প্রথম পাতা / কর্পোরেট স্পেশাল / দারাজ ডট কম থেকে মোবাইল কিনে গ্রাহক নাজেহাল!
দারাজ ডট কম থেকে মোবাইল কিনে গ্রাহক নাজেহাল!

দারাজ ডট কম থেকে মোবাইল কিনে গ্রাহক নাজেহাল!

darazপ্রযুক্তির অব্যাহত অগ্রযাত্রায় বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও ক্রমশ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে অনলাইন কেনাকাটা। ব্যস্ত নগরীর অনেকেই এখন অনলাইনে কেনাকাটায় প্রাধান্য দেন। তবে সন্দেহ থেকে যায়, কোন ই-কমার্স সাইট থেকে কেনাকাটা করা নিরাপদে, কোন সাইটগুলোতে বিশ্বাস রাখা যায় কিংবা পণ্যের মানই বা কেমন হবে! দারাজ ডটকম ডট বিডি শুরু থেকেই নিজেদের দেশের নির্ভরযোগ্য ই-রিটেইলশপ বলে দাবি করে আসছে। কিন্তু ১৬ আগস্ট বুধবার মো. ইকবাল হুসাইন নামে একজন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ‘অনলাইন থেকে মোবাইল ফোন কেনার বিড়ম্বনা’ শিরোনামে একটি স্ট্যাটাস দেন। এতে তিনি জানান, দারাজ থেকে মোবাইল কিনে তার এখন বেহাল অবস্থা।

মো. ইকবাল হুসাইন নামে ওই ব্যাক্তি তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, বাজারে যেয়ে মোবাইল কেনাটা ঝামেলা মনে করেন তিনি। তাই ঝামেলা এড়িয়ে ঘরে বসে অরিজিনাল প্রোডাক্ট পাওয়ার আশায় জনপ্রিয় ই-রিটেইলশপ দারাজ থেকে ক্রয় করেছেন পছন্দের এইচটিসি ব্র্যান্ডের একটি মোবাইল হ্যান্ডসেট।

iqbal-fbস্ট্যাটাসে তিনি জানান, দাম একটু বেশি হলেও মোবাইলটি ইংল্যান্ডের হওয়ায় তার পছন্দ এইচটিসিই। মোবাইলটি কিনে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই ছিলেন তিনি। মোবাইলটিতে এক বছরের ব্র্যান্ড ওয়ারেন্টিও পান তিনি। কিন্তু বিধি বাম, মোবাইল সেটটি কেনার মাত্র এক মাসের মাথায় সেটটি কাজ করা বন্ধ করে দেয়।

ইকবাল হুসাইন স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘ব্র্যান্ড ওয়ারেন্টির জন্য সারাদেশে যোগাযোগ করেও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের সন্ধান পাইনি। অবশেষে ঢাকার গুলশান-২ এ অবস্থিত কাস্টমার কেয়ারের সন্ধান পেলাম। পরবর্তীতে সেটটি নিয়ে হাজির হলাম কাস্টমার কেয়ারে। দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অনেক্ষণ টিপাটিপি করে জানিয়ে দিলেন ইটির পার্টস বাংলাদেশে সহজলভ্য নয়, রিকুজিশন দিলে লন্ডন থেকে তাইওয়ান হয়ে বাংলাদেশে আসবে, এতে ১০/১২ দিন সময় লাগবে। তিনি অত্যন্ত ভদ্রভাবে একটি ফোন নম্বর দিলেন আর বললেন, ৪-৫ দিন পর ফোন দিয়ে আপডেট খবর নিয়ে মোবাইলসহ আবার ঢাকা শহরে যেতে। সেই আশায় প্রতিদিন ২৫-৩০ বার ফোন দিচ্ছি এবং ৩-৪ বার অত্যন্ত বিনয়ের সাথে এসএমএস দিচ্ছি কিন্তু কেউ আমার ফোন ধরেননি এবং এসএমএসের উত্তর দেননি। আমি আমার এই পাপ নিয়ে এখন কোন শহরে যাই?’

এ বিষয়ে দারাজের কাস্টমার কেয়ারে ফোন করলে প্রিয়.কমকে কোনো তথ্য দারাজ জানাতে পারেননি। দারাজের কাস্টমার কেয়ার থেকে জানানো হয় সিরিয়াল নম্বর দিলে খোঁজ নিয়ে বলা যেত আসলে কী হয়েছে তার মোবাইলের।

সুত্র ;প্রিয়.কম

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top