শিরোনাম

সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - রংতা ব্র্যান্ডের নতুন পিওএস প্রিন্টার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - নারীর নিরাপত্তা ও শরনার্থীদের শিক্ষা বিষয়ক ধারণা যাচ্ছে ওসলোর টেলিনর ইয়ুথ ফোরামে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - উদ্বোধনের অপেক্ষায় শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্ক | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আপনারই কিছু ভুল হয়তো অজান্তে ফোনের পারফরম্যান্স খারাপ করছে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - খুলনায় দুইদিনের বেসিক আরডুইনো কর্মশালা অনুষ্ঠিত | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - ঢাকা মহিলা পলিটেকনিককে স্যামসাং এর পক্ষ থেকে অত্যাধুনিক ল্যাব হস্তান্তর  | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - সিডস্টারস ঢাকায় দেশের সেরা স্টার্টআপ সিমেড হেলথ | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মডেম হিসেবে ব্যবহারের উপায় | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আসছে নকিয়ার আরও দুই ফোন | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - ফেসবুকের পাঁচ মজাদার অপশন যা জানেন না অনেকেই |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / নিজস্ব ইন্টারনেট গড়ে তুলছে শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো
নিজস্ব ইন্টারনেট গড়ে তুলছে শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো

নিজস্ব ইন্টারনেট গড়ে তুলছে শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো

অনলাইনে নিজেদের আধিপত্য নিশ্চিত করার পর এবারে ইন্টারনেটের অবকাঠামোগত দিকেও নিজেদের আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো। আর এই ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে গুগল, ফেসবুকের মতো শীর্ষ জায়ান্টরা।

Pushback-articleLarge

 

ইতোমধ্যেই এশিয়া অঞ্চলে গুগল নিজেদের মতো অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবহার করে গড়ে তোলা শুরু করেছে নিজস্ব ইন্টারনেট ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক। ফেসবুকও তাদের ডাটাসেন্টারগুলোর মধ্যেকার যোগাযোগ রক্ষা করতে নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে তুলছে। এর বাইরে মাইক্রোসফট এবং অ্যামাজনও নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার কাজে মনোযোগী হয়েছে। ফলে ইন্টারনেটের অবকাঠামো গড়ে তোলা টেলিকম কোম্পানিগুলোর সাথে এক ধরনের টানাপোড়েন তৈরি হয়েছে এসব শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর। শুধু তাই নয়, এসব প্রতিষ্ঠান ইন্টারনেট সংযোগের ক্ষেত্রে টেলিকমগুলোর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবেও আবির্ভূত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিবে বলে ধারণা করছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। অথচ গুগল, ফেসবুকের মতো কোম্পানিগুলো মূলত এতদিন টেলিকমগুলোর গ্রাহক হিসেবেই ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে এসেছে।

এতে করে অদূর ভবিষ্যতেই ইন্টারনেট সংযোগের বর্তমান ধরণ পাল্টে যেতে পারে বলেও ধারণা করছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০০৮ সাল থেকে গুগল তাদের নিজস্ব ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক তৈরির কাজ শুরু করেছে। গুগল’র এক কর্মকর্তার সূত্র ধরে পত্রিকাটি জানিয়েছে, বর্তমানে গুগল’র নিজস্ব ফাইবার অপটিক ক্যাবলের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে লক্ষাধিক মাইলের নেটওয়ার্ক তৈরি সম্পন্ন হয়েছে। এটি যুক্তরাষ্ট্র অঞ্চলে স্প্রিন্টের নেটওয়ার্কের দ্বিগুণেরও বেশি।

ফেসবুক অবশ্য এদিকে নজর দিয়েছে আরও পরে। চলতি বছরের জুন মাস থেকে তারা ডার্ক ফাইবার ক্যাবলের মাধ্যমে নিজস্ব নেটওয়ার্ক তৈরিতে মনোযোগী হয়। ইউরোপের বিভিন্ন অঞ্চলে নিজেদের ডাটাসেন্টারগুলোর জন্য এই নেটওয়ার্ক তৈরি শুরু করে তারা। তবে সাম্প্রতিক সময়গুলোতে এশিয়া অঞ্চলের সাবমেরিন ক্যাবলে ফেসবুক এবং গুগল উভয়ই বিনিয়োগ করেছে। ক্লাউড কম্পিউটিং এবং ক্লাউড সার্ভিসের উপর ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা আস্থাশীল হয়ে ওঠায় মাইক্রোসফট এবং অ্যামাজনের মতো প্রতিষ্ঠানও নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে তুলতে প্রচুর পরিমাণে বিনিয়োগ করে যাচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার পেছনে তাদের মূল কারণ হিসেবে কাজ করছে খরচ কমানো এবং উন্নত পারফরম্যান্স প্রাপ্তি। সেই সাথে অনলাইনে যেভাবে ছবি, ভিডিও, মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট, গেমিং প্রভৃতির ব্যবহার বাড়ছে; তার সাথে পাল্লা দিয়ে নিজেদের সক্ষমতা নিশ্চিত করতেও তারা নিজস্ব নেটওয়ার্কের উপরেই আস্থাশীল থাকতে চায়।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top