শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - বাংলাদেশেই তৈরি হবে সকল ডিজিটাল ডিভাইস : মোস্তাফা জব্বার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - যে কারণে অনলাইন অ্যাকাউন্টে কঠিন পাসওয়ার্ড দিবেন | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - ফিশিং জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন জিমেইল ব্যবহারকারীরা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - দেশের বাজারে লেনোভোর এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - হিটাচি প্রজেক্টরে ম্যাজিক অফার | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - বাংলাদেশে ডি-লিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের অংশীদার কম্পিউটার সোর্স | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - অপ্পোর নতুন ২ স্মার্টফোনে গ্রামীণফোনের ফ্রি ইন্টারনেট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর পার্টনার মিট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ইউটিউবের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে পর্নগ্রাফি ভিডিও | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - আসছে স্বল্প মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান ফোন |
প্রথম পাতা / সোশ্যাল মিডিয়া / পোশাক নিয়ে ফতোয়া এবার ফেসবুকেও!
পোশাক নিয়ে ফতোয়া এবার ফেসবুকেও!

পোশাক নিয়ে ফতোয়া এবার ফেসবুকেও!

010313jakerbark_kalerkantho_pic
ফেসবুকের অফিসে নারীরা খুব বেশি খোলামেলা পোশাক পরে আসতে পারেন না। কর্তৃপক্ষের কড়া নির্দেশ, এমন পোশাক পরবেন না, যাতে সহকর্মীর নজর আপনার দিকেই আটকে থাকে। খোদ জাকারবার্গের সাম্রাজ্যে এমনই ফতোয়া চলে বলে দাবি প্রাক্তন ফেসবুক কর্মী অ্যান্তেনিয়ো গার্সিয়া মার্টিনেজের। সম্প্রতি ‘‌ক্যায়োস মাঙ্কিস’‌ নামে একটি বই লিখছেন তিনি। সেখানেই উল্লেখ করেছেন, তাঁর কর্মজীবনে দেখেছেন, ফেসবুক সংস্থার মানবসম্পদ কর্মকর্তা এসে নারী কর্মীদের উপদেশ দেন বেশি ছোট পোশাক না পরতে।  যুক্তি ছিল, পোশাকের জন্য পুরুষ সহকর্মীদের মনঃসংযোগে ব্যাঘাত ঘটবে। ফতোয়া পরে যদি কোনো নারী কর্মী অফিসে খোলা পোশাক পরে আসতেন, তাঁকে নিজের ঘরে ডেকে নিতেন তিনি। পোশাকের বিষয়ে নানা রকম উপদেশ দেওয়া হত সেই কর্মীকে। এই নাকি ছিল নিয়ম। মার্টিনেজের মতে, নারী কর্মীর সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করলেও, শেষ পর্যন্ত খুব একটা কমেনি লিঙ্গবৈষম্য।
এখনও নানাভাবে মানসিক চাপ তৈরি করা হয় কর্মীদের ওপর। উদাহরণ, একবার এক কর্মী ফেসবুকের একটি নতুন ফিচার নিয়ে সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছিলেন। তার পরে তাঁকে নিয়ে প্রত্যেক কর্মীর কাছে ই-মেল করেন জাকারবার্গ। সেই মেলের সাবজেক্ট লাইনে লেখেন, ‘প্লিজ রিজাইন’‌। শুধু মুখ খোলার জন্যই ফেসবুকের দল থেকে একঘরে করা হয়েছিল ওই কর্মীকে।
যদিও কয়েকদিন আগে ফেসবুকের পক্ষ থেকে একটি ব্লগে জানানো হয়, ‘‌সারা বিশ্বের প্রায় ১৪০ কোটি মানুষ জড়িত ফেসবুকে। তাই সংস্থার নীতি নির্ধারণে যত বেশি বৈচিত্র্য থাকবে, ততই লাভ।’‌ কিন্তু সে লক্ষ্যে সংস্থা এখনো পৌঁছতে পারেনি। বরং এখনও ফেসবুকের কর্মীদের মধ্যে বেশিরভাগ সাদা চামড়ার মানুষ ও এশিয়ার মানুষ। নারী কর্মীর সংখ্যাও খুবই কম।‌

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top