শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - বাংলাদেশেই তৈরি হবে সকল ডিজিটাল ডিভাইস : মোস্তাফা জব্বার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - যে কারণে অনলাইন অ্যাকাউন্টে কঠিন পাসওয়ার্ড দিবেন | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - ফিশিং জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন জিমেইল ব্যবহারকারীরা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - দেশের বাজারে লেনোভোর এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - হিটাচি প্রজেক্টরে ম্যাজিক অফার | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - বাংলাদেশে ডি-লিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের অংশীদার কম্পিউটার সোর্স | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - অপ্পোর নতুন ২ স্মার্টফোনে গ্রামীণফোনের ফ্রি ইন্টারনেট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর পার্টনার মিট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ইউটিউবের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে পর্নগ্রাফি ভিডিও | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - আসছে স্বল্প মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান ফোন |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ‘প্রযুক্তিময় আলোকিত শৈশব গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি’
‘প্রযুক্তিময় আলোকিত শৈশব গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি’

‘প্রযুক্তিময় আলোকিত শৈশব গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি’

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি প্রযুক্তিময় আলোকিত শৈশব ও সুশিক্ষিত জাতি গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

আজ বিকালে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সভাকক্ষে “ডেভেলপিং ইন্টার-একটিভ মাল্টিমিডিয়া ডিজিটাল ভার্সন অব প্রাইমারী এডুকেশন কন্টেন্ট” শীর্ষক কর্মসূচীর আওতায় “ডিজিটাল কন্টেন্ট উপস্থাপনা” অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ICT-Division-regarding-Multimedia-Digital-Content-corporateঅনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান এবং অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে পলক বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জনগণকে কখনোই বোঝা মনে করেননি, তিনি জনগণকে জনসম্পদে রূপান্তরে সবসময় অঙ্গীকারাবদ্ধ। আর জনগণকে জনসম্পদে রূপান্তরে আলোকিত শৈশবের বিকল্প নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আলোকিত শৈশবের অন্যতম ভিত্তি হলো প্রাথমিক শিক্ষা। তাই আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি প্রযুক্তিময় আলোকিত শৈশব ও সুশিক্ষিত জাতি গড়ে তুলতে এবং প্রাথমিক শিক্ষাকে আরো কার্যকর ও আকর্ষণীয় করে সাজাতে এই কর্মসূচী গ্রহণ করেছি।’

অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী বলেন, ‘প্রাথমকি শিক্ষার এনরোলমেন্টে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে প্রশংসিত। কিন্তু আমাদের শিক্ষার সাথে আনন্দযোগ খুব একটি নেই। অপরদিকে বর্তমান সরকার পিছিয়ে থাকতে চায় না, এ অবস্থা থেকে উত্তরণ চায়। তাই, প্রযুক্তির সহায়তায় নব নব দৃষ্টি প্রসারণের মাধ্যমে এ ধরণের কর্মসূচী আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে এগিয়ে দেবে। শিক্ষার সাথে আনন্দযোগে বর্তমান সরকার অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মেছবাহ উল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বেগম হোসনে আরা, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো: আলমগীর, এনসিটিবি’র চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ন চন্দ্র পালসহ প্রাথমকি ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, ব্র্যাক এবং সেভ দ্যা সিলড্রেনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দও উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এবং ন্যাশনাল কারিকুলাম এন্ড টেক্সক্টবুক বোর্ড, বাংলাদেশ (এনসিটিবি)’র সিলেবাসের আলোকে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে এই কর্মসূচীটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ৪ কোটি ৯৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই কর্মসূচীটি বাস্তবায়নের মেয়াদকাল মার্চ ২০১৪ থেকে ফেব্রুয়ারী ২০১৬। কর্মসূচী বাস্তবায়নে কারিগরি সহযোগিতা করছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ব্র্যাক ও সেভ দ্যা সিলড্রেন।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top