শিরোনাম

শুক্রবার, জানুয়ারী 19, 2018 - মোবাইল সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশ অর্জন করবে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা | শুক্রবার, জানুয়ারী 19, 2018 - ক্যাসপারস্কি ল্যাবের আয়োজনে নবনির্বাচিত কমিটির সদস্যদের সংবর্ধনা | শুক্রবার, জানুয়ারী 19, 2018 - হুয়াওয়ে নোভা টুআই এর সঙ্গে ২ বছরের ওয়ারেন্টি | শুক্রবার, জানুয়ারী 19, 2018 - এরা ইনফোটেক ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - ওয়ান প্লাসের নতুন পাওয়ার ব্যাংক | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্প্যাম মেসেজ ঠেকাতে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফিচার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - যাত্রা শুরু করলো ওয়ালটনের কম্পিউটার কারখানা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - নতুন স্মার্টফোন আনল হুয়াওয়ে অনার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্বল্প মূল্যের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ‘অন৭ প্রাইম’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ইউটিউব এর চেয়ে পিছিয়ে ফেসবুক
ইউটিউব এর চেয়ে পিছিয়ে ফেসবুক

ইউটিউব এর চেয়ে পিছিয়ে ফেসবুক

গতিময় ইন্টারনেটের কল্যানে কমে গেছে ফাইল ডাউনলোডের প্রবণতা। বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা ভিডিও ডাউনলোড করার পরিবর্তে মুহূর্তেই সার্চ করে দেখে নিতে পারেন।

youtube-subscriptionআর অনলাইনে এমন ভিডিও দেখতে অধিক জনপ্রিয় সাইট ইউটিউব। যার নিকট শক্তিশালী প্রতিদন্দী তেমন নেই বললেই চলে। অনলাইনে ভিডিও ভিউ নিয়ে জনপ্রিয় ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট ইউটিউবের ধারের কাছেও নেই সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেসবুক।

সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই অনলাইনে ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে উঠে এসেছে ফেসবুকের পরাজয়। সেন্ডভাইন নামে একটি নেটওয়ার্কিং প্রতিষ্ঠান ওই রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। সাইট দুইটির ব্যান্ডউইথ ব্যবহারের উপর ভিত্তি করে ওই রিপোর্টটি তৈরি করা হয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে ইউটিউবের ব্যবহার হয়েছে ১৭ দশমিক ৯ শতাংশ। ২০১৪ সালে যা ছিল ১৪ শতাংশ। অন্যদিকে ফেসবুকের ব্যবহার হয়েছে ২ দশমিক ৫ শতাংশ। আগের বছরের চেয়ে যা দশমিক ৫ শতাংশ কম।

বিশ্বজুড়ে ফেসবুকের ৫০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী প্রতিদিন সাইটটি থেকে ৮ বিলিয়ন ভিডিও দেখে থাকেন। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি তাদের সাইটে ৩৬০ ডিগ্রি ভিডিও দেখার সেবা যুক্ত করেছে। পাশাপাশি লাইভ ভিডিও স্ট্রিমিং সেবাও পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়েছে। এতো কিছুর পরও এই খাতে কোন অগ্রগতি হয়নি প্রতিষ্ঠানটির।

মজার বিষয় হলো দুই বছর ধরেই যুক্তরাষ্ট্রে ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের ক্ষেত্রে ইউটিউব ও ফেসবুকের চেয়ে অনেক অনেক এগিয়ে নেটফিক্স।

এর  আগে গত এক বছর বা তার চেয়ে কিছু বেশি সময় ধরে ফেসবুক অনেকটা আক্রমণাত্বকভাবে তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও ভিউ বাড়াতে নানা উদ্যোগ নেয়। ওই উদ্যোগের উদ্দেশ্য ছিল ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের জনপ্রিয় সাইট ইউটিউবকে পেছনে ফেলা।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top