শিরোনাম

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - সনি’র দুর্দান্ত এক আপকামিং ফোনের তথ্য ফাঁস | সোমবার, ডিসেম্বর 11, 2017 - বিসিএস এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত |
প্রথম পাতা / স্থানীয় খবর / বাংলাদেশের আইটি খাতের পরামর্শক ভারতীয় বিক্রম দাশ
বাংলাদেশের আইটি খাতের পরামর্শক ভারতীয় বিক্রম দাশ

বাংলাদেশের আইটি খাতের পরামর্শক ভারতীয় বিক্রম দাশ

বাংলাদেশের আইটি খাতের উপদেষ্টা হলেন ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) উদ্যোক্তা বিক্রম দাশ গুপ্ত। আগামী পাঁচ বছর বাংলাদেশের আইটি ও আইটি সক্ষম সেবা dasপ্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলকে (বিসিসি) কৌশলগত নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদান করবেন।
গত ২৪ ডিসেম্বর গুপ্ত তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স প্রকল্পে বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা হিসেবে যোগদান করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রকল্পের পরামর্শক দলের সদস্য শাহ মুহাম্মদ ইমরান।

তিনি জানান, এর পাশাপাশি বিক্রম দাশ গুপ্ত লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স প্রকল্পের অধীনে ৩৪ হাজার তরুণ-তরুণীকে আইটি পেশাজীবী গড়ে তোলার ক্ষেত্রে বিশ্বমানের প্রশিক্ষণের ব্যাপারেও তিনি পরামর্শ ও নির্দেশনা দেবেন।

ইমরান আরো জানান, আমেরিকার হার্ভার্ড স্কুল অব বিজসেন থেকে ¯স্নাতক বিক্রম দাশগুপ্ত বিশ্বে আইটিতে প্রথম প্রজন্মের একজন উদ্যোক্তা হিসেবে ভারতের আইটি শিল্পের প্রসার ও রফতানি বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ  ভূমিকা পালন করেন।

প্রসঙ্গত, বিশ্বব্যাংক ‘লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স প্রকল্প’ বাস্তবায়নে মোট ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিচ্ছে। বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি অনুয়ায়ী এ বছরের জানুয়ারিতে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হয় এবং শেষ হবে ২০১৭ সালের ১৩ ডিসেম্বরে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top