শিরোনাম

সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - রোহিঙ্গাদের কাছে মোবাইল বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে সরকার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - ডাটা খরচ কমাতে আসছে টুইটারের নতুন সংস্করণ | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - লন্ডনে লাইসেন্স বাঁচানোর চেষ্টায় উবার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - ড্রোন যখন কৃষকের বন্ধু | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - আইফোন ৮ এর ভেতরে যা দেখা গেল | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - ডি-লিংক এর স্পেশাল অফার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - রংতা ব্র্যান্ডের নতুন পিওএস প্রিন্টার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - নারীর নিরাপত্তা ও শরনার্থীদের শিক্ষা বিষয়ক ধারণা যাচ্ছে ওসলোর টেলিনর ইয়ুথ ফোরামে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - উদ্বোধনের অপেক্ষায় শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্ক | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আপনারই কিছু ভুল হয়তো অজান্তে ফোনের পারফরম্যান্স খারাপ করছে |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / বাংলাদেশে থ্রিজি পরবর্তী স্মার্টফোন বিক্রি বেড়েছে
বাংলাদেশে থ্রিজি পরবর্তী স্মার্টফোন বিক্রি বেড়েছে

বাংলাদেশে থ্রিজি পরবর্তী স্মার্টফোন বিক্রি বেড়েছে

বাংলাদেশে গত ৮ সেপ্টেম্বর থ্রিজি নিলামের পরবর্তী স্মার্টফোন বিক্রি বেড়েছে। অক্টোবর মাস থেকে বিভিন্ন অপারেটর থ্রিজির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করার পর স্মার্টফোন বিক্রি ক্রমশ বাড়ছে। তবে দেশে সব থেকে বেশি স্মার্টফোন বিক্রি হচ্ছে দেশীয় ব্র্যান্ডের। এ তালিকায় সবার উপরে রয়েছে সিম্ফনি। এরপর বাংলাদেশি আরেক ব্র্যান্ড ওয়ালটনও শীর্ষ তালিকায় অবস্থান করে নিয়েছে।

smartphone-bangladesh

স্মার্টফোনের বাজারে সাফল্যের সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে দেশীয় ব্র্যান্ডগুলো। বিশেষ করে গ্রাহক পর্যায়ে তৃতীয় প্রজন্মের তারহীন প্রযুক্তির নেটওয়ার্ক সেবা চালুর প্রাক্কালে বেড়ে গেছে স্মার্টফোন বিক্রি। আর এক্ষেত্রে সিম্ফনির সাফল্য আরও ঈর্ষণীয়। দেশের বাজারের ৬০ ভাগ দখলে রেখে একচেটিয়া আধিপত্য ধরে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। পাশাপাশি সাফল্য দেখাচ্ছে অন্য দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন। ইতিমধ্যে বাজারের ৪০ ভাগ নিজেদের আয়ত্বে নিয়েছে তারা।

তবে স্মার্টফোন ক্যাটাগরিতে স্যামসাংও ভালো করছে। স্মার্টফোন বাজারে ১৪ ভাগ দখলে রেখে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে কোরিয়ান এ কোম্পানিটি। এছাড়া অন্যান্য ব্র্যান্ডের মধ্যে নকিয়া এবং ম্যাক্সিমাস উভয় কোম্পানিই ৫ ভাগ করে এবং মাইক্রোম্যাক্সের দখলে রয়েছে ২ ভাগ। এদিকে ভারতভিত্তিক জরিপ প্রতিষ্ঠান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে স্মার্টফোনে শীর্ষে সিম্ফনি থাকলেও দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ওয়ালটন।

বাংলাদেশে বর্তমান সেলফোন গ্রাহকের সংখ্যা ১১ কোটি ছাড়িয়েছে। সেলফোনের গ্রাহক বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে হ্যান্ডসেট বিক্রির হার। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি সূত্র মতে, গত জুলাই পর্যন্ত চলতি বছর ৯৮ লাখ ৩৯ হাজার হ্যান্ডসেট বিক্রি হয়েছে। তবে দেশে থ্রিজি চালুর প্রেক্ষাপটে গত জুলাই পরবর্তী তিন মাসে হ্যান্ডসেট বিক্রিতে যে কোনো সময়ের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গেছে।

গত অক্টোবর মাসেই প্রায় ২০ লাখ হ্যান্ডসেট বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে দেশীয় ব্র্যান্ড সিম্ফনি। দেশের সেলফোন বাজারের ৫১ ভাগই এখন সিম্ফনির দখলে। বাংলাদেশ এবং আন্তর্জাতিক বাজারে এক সময়ের শীর্ষ জনপ্রিয় ব্র্যান্ড নকিয়া ১০ ভাগ বাজার দখলে রেখে আছে দ্বিতীয় অবস্থানে। এরপরেই ৮ ভাগ বাজার দখলে রেখেছে ভারতীয় ব্র্যান্ড মাইক্রোম্যাক্স। তৃতীয় অবস্থানে যৌথভাবে দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন এবং বর্তমানে মোবাইল ডিভাইসে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ব্র্যান্ড স্যামসাং। চায়নাসহ অন্যান্য ব্র্যান্ডের দখলে বাজারের ২০ ভাগ।

গত ৪ বছরে দেশে আমদানি করা হ্যান্ডসেট 

  • ২০০৯ সাল: আমদানি হয় ৯ লাখ ৭০ হাজার ৮৪৭টি হ্যান্ডসেট।
  • ২০১০ সাল: আমদানি করা হয় ৪৭ লাখ ৭১ হাজার ৮১৮টি হ্যান্ডসেট।
  • ২০১১ সাল: আমদানি করা হয় ৯৮ লাখ ২৩ হাজার ৯৩০টি।
  • ২০১২ সাল: আমদানি করা হয় ১ কোটি ৩০ লাখ ৬৮ হাজার ৭২টি হ্যান্ডসেট।
  • ২০১৩ সাল: গত জুলাই পর্যন্ত ৯৮ লাখ ৩৯ হাজার হ্যান্ডসেট বিক্রি হয়েছে। এ সংখ্যা বছর শেষে দ্বিগুণের বেশি হওয়ার কথা রয়েছে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top