শিরোনাম

শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - দারাজ ডট কম থেকে মোবাইল কিনে গ্রাহক নাজেহাল! | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - ই-শপ প্রকল্পের হেল্প লাইনের এ কী হাল! | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - স্পিকার এর যত্নআত্তি | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - সীমান্তে অবৈধ বিটিএস স্থাপন করায় বাংলালিংককে ১৭ কোটি টাকা জরিমানা | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - তথ্যপ্রযুক্তি ও সেবার রপ্তানি খাতে ১০ শতাংশ নগদ সহায়তা | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - বাংলালিংকও চালু করলো ই-কমার্স সাইট | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - এক অ্যাপেই সরকারি সব কর্মকর্তাদের ঠিকানা | শনিবার, আগস্ট 19, 2017 - ‘ইনফো সরকার’ প্রকল্পের অনিয়ম রোধে অর্থমন্ত্রীকে আইএসপিএবি’র চিঠি | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - গ্রামীণফোনের সিএফও হলেন কার্ল এরিক ব্রোতেন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - বন্যা-দুর্গত এলাকার গ্রাহকদের ২০মিনিট ফ্রি টক-টাইম ও ২০এমবি ডাটা দিচ্ছে রবি |
প্রথম পাতা / ওয়েব / ই-কমার্স / বাংলালিংকও চালু করলো ই-কমার্স
বাংলালিংকও  চালু করলো  ই-কমার্স

বাংলালিংকও চালু করলো ই-কমার্স

bl-ecomগ্রামীণফোনের পর এবার দেশের তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংক ই-কমার্স সাইট চালু করেছে। আজ বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানটি তাদের ওয়েবসাইটে নতুন করে ই-কমার্স সেবা সংযুক্ত করেছে বলে জানিয়েছে। বাংলালিংক জানিয়েছে এই ই-কমার্স ফিচারে গ্রাহকরা পাবেন ইন্টারনেট প্যাক কেনার সুযোগ এবং বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ডিজিটাল সেবাসমূহ। যেমন অনলাইন টপ-আপ এবং ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স।

সাইটটিতে আরো রয়েছে ই-শপ ফিচার, যা টেলিকম ইন্ডাস্ট্রিতে এই প্রথম। এই ই-শপে ভিজিটররা সিম কার্ড এবং হ্যান্ডসেট কিনতে পারবেন। ওয়েবসাইটে থাকবে বিভিন্ন হ্যান্ডসেটের তুলনা, স্পেসিফিকেশন এবং আরো অনেক কিছু। নতুন ওয়েবসাইটের ব্যবহারকারীরা সহজেই প্রি-পেইড প্যাকেজ মাইগ্রেশন সুবিধা নিতে পারবেন এবং সাইটটি সঠিক সার্ভিস প্যাক বাছাই করতে অ্যাডভাইজর হিসেবে কাজ করবে।সাইটে আরো রয়েছে স্মার্ট ফিল্টারিং সার্চ সুবিধা। ‘ইউ মে অলসো লাইক’ সেকশনে বিভিন্ন ইন্টারনেট প্যাকের জন্য ব্যবহারকারীরা এখন পাবেন প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন সুপারিশ।

ওয়েবপেজটিকে নতুন রূপ দিতে সম্পূর্ণ নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। নতুন এই ওয়েবসাইটে রয়েছে ১৫০ হাজার লাইন কোডিং, যা ওয়েবসাইটটিকে দিয়েছে দারুণ অবয়ব। কারিগরি দিক থেকে, ইউআই এবং ওয়ার্ডপ্রেস-এর সম্পূর্ণ পরিবর্তে ব্যাক এন্ডের জন্য ড্রুপাল সিএমএস, ইউএক্স ফ্রেমওয়ার্ক ডিজাইনের জন্য জার্ব ফাউন্ডেশন ৫, স্লাইডার্স এবং কনটেন্ট ডিসপ্লের জন্য জেকোয়েরি ইউআই এবং ফ্লেক্স টেকনলোজি ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যবহারকারীরা যাতে সহজেই সাইটের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারেন তা নিশ্চিত করতেই এসব প্রযুক্তিগত সংযোজন বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এসব সুবিধা গ্রাহকদের দেবে একটি নতুন, ইন্টারেক্টিভ ও বিশ্ব মানের নেভিগেশন এবং ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা।

এ ব্যাপারে বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এরিক অস বলেন, ‘নতুন ওয়েবসাইটটি বাংলালিংকের ডিজিটাল স্ট্র্যাটেজির অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং এটি আমাদের গ্লোবাল ডিজিটাল রূপান্তর প্রক্রিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশের প্রতিনিধিত্ব করে। বাংলালিংক গ্রাহকদের জন্য সব সময় নতুন উদ্ভাবন নিয়ে আসে। মানুষ ভবিষ্যত ডিজিটাল দুনিয়ায় প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে আমাদেরও মনে হয়েছে তাদের তথ্য এবং আনুষঙ্গিক সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে আরও উন্নয়ন প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘যারা আমাদের সেবাগুলো আরো সুবিধাজনক পদ্ধতিতে নিতে চান এবং আমাদের সম্পর্কে ঝামেলাহীনভাবে জানতে আগ্রহী তাদের জন্য ওয়েবপেজকে সতর্কতার সঙ্গে আরো নতুন আঙ্গিকে সাজিয়েছি। বিশ্বব্যাপী গ্রাহকদের রোমাঞ্চিত রাখতে নতুন সব ফিচার নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের।’

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top