শিরোনাম

সোমবার, ডিসেম্বর 18, 2017 - মোবাইল ডেটা ব্যবহারে এগিয়ে গ্রামীণফোন | সোমবার, ডিসেম্বর 18, 2017 - বিদেশ থেকে এখন ৮টি মোবাইল ফোন আনা যাবে | রবিবার, ডিসেম্বর 17, 2017 - গুগল-ফেসবুকের বিজ্ঞাপনে ডলার পাচার-রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার | রবিবার, ডিসেম্বর 17, 2017 - রাইড শেয়ারিং সার্ভিস ‘ডাকো’র প্রথম যাত্রী আশরাফুল | রবিবার, ডিসেম্বর 17, 2017 - বাংলাদেশে এলো মোবাইল এ্যাপস ‘ফ্ল্যাশট্যাগ’ | রবিবার, ডিসেম্বর 17, 2017 - আগামী বছর ঢাকায় আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা : রাশেদ খান মেনন | রবিবার, ডিসেম্বর 17, 2017 - ‘ল্যাপটপ ফর অল’ ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নে এটুআই ও সিঙ্গারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক | শুক্রবার, ডিসেম্বর 15, 2017 - শুরু হলো আসুস আরওজি জেফ্রাস গেমিং ল্যাপটপের প্রি-বুকিং | শুক্রবার, ডিসেম্বর 15, 2017 - বাজারে এলো স্বল্পবাজেটের এসার ল্যাপটপ | শুক্রবার, ডিসেম্বর 15, 2017 - ছুটির দিনের শুরুতেই ক্রেতা মুখর ল্যাপটপ মেলা ২০১৭ |
প্রথম পাতা / ইন্টারভিউ / বাড়ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা পণ্যের ব্যবহার
বাড়ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা পণ্যের ব্যবহার

বাড়ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা পণ্যের ব্যবহার

প্রতিদিনই বাড়ছে দৈনন্দিন জীবনে তথ্যপ্রযুক্তি পণ্যের ব্যবহার, বাড়ছে উন্নত দেশগুলোর সাথে পণ্য ব্যবহারের প্রতিযোগিতা। নিরাপত্তা সামগ্রী তেমনি একটি। আমাদের নিরাপত্তা দিতে যে ধরণের পণ্য প্রয়োজন, তার সবই আসে দেশের বাইরে থেকে। বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এই কাজগুলো করে থাকে। এমন একটি প্রতিষ্ঠান হলো জেডএম ইন্টারন্যাশনাল। বিভিন্ন ধরনের নিরাপত্তা পণ্য নিয়ে কথা হয় প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকির উদ্দিন আহেমদের সাথে। ২০১০ সাল থেকে সেফটি ও সিকিউরিটি বিষয়ক পণ্য ও সেবা বিপনন করে আসছে এই প্রতিষ্ঠানটি।
zm
বর্তমান সময়ে নিরাপত্তা পণ্যের ব্যবহার সম্পর্কে তিনি জানান, নিরাপত্তার সকল প্রযুক্তিসহ ডিজিটাল মনিটরিং ব্যবস্থা এখন হাতের নাগালে যা এখনকার সময়ে আধুনিক বিশ্বে সময় উপযোগী প্রযুক্তি। পৃথিবীর উন্নত রাষ্ট্রগুলো সর্বশেষ এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে নাগরিকদের নিরাপত্তা সুরক্ষিত করেছে। যা আমাদের বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের উপকারে এসে পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে পরিচয় করিয়ে দিতে পারে। অগ্নি দুর্ঘটনা, সড়ক দুর্ঘটনাসহ সামাজিক নানা প্রকার সমস্যা সমাধানে এই প্রযুক্তি ব্যবহারে সমাধান মিলবে।
ব্যাংকিং সেক্টরে এ সব প্রযুক্তি ব্যবহার প্রসঙ্গে তিনি জানান, ব্যাংক ইলেকট্রনিক্স কার্ড হোল্ডার ব্যবহারকারীরা সুবিধা পাবে যদি ব্যাংকে মিনি এটিএম পিওএস এনভিআরসহ সেন্ট্রাল সল্যুশন থাকে। মিনি এটিএম ও পিওএস এমন একটি প্রযুক্তি যা এটিএম বুথের মধ্যে স্থাপনযোগ্য এবং চেইন সুপার শপের ক্যাশ কাউন্টার মেশিনের সমস্ত লেনদেনের সকল প্রকার তথ্য মনিটরিং করা যায়। যা প্রত্যেকটি কার্ড হোল্ডারের সম্পূর্ণ নিরাপত্তা প্রদানে সহায়ক। এর মাধ্যমে প্রতিটি কার্ড হোল্ডারের লেনদেনের সম্পূর্ণ তথ্য  ভিডিওসহ নির্দিষ্ট সার্ভারে সংরক্ষণ করা সম্ভব বলেও জানান তিনি। গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে সাথে সাথে অপরাধী শনাক্ত করা সম্ভব হয় যা ব্যাংক ও সুপারশপগুলো অনায়াসে তথ্যসহ ভিডিও ফুটেজ দিতে পারে। বিশেষ করে এটিএম বুথের নিরাপত্তা সম্পর্কে তার কাছ থেকে জানতে পারি—ব্যাংকের এটিএম বুথের জন্য মিনি ডিভিআর থেকে ২টি ভিডিও ক্যামেরা সংযোগ করা যায়। যা একটি সামনে এবং একটি পিছনে স্থাপন করতে হয়। যার মাধ্যমে কার্ড হোল্ডারকারী বুথের টাকা প্রদান কারীর সকল তথ্য সংরক্ষণ থাকবে। এ ছাড়াও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সদস্যরা যখন মেশিনে কাস্টমারদের জন্য টাকা লোড করেন তার সকল ডাটা ভিডিওসহ সংরক্ষণ করে রাখার ব্যবস্থা আছে এই প্রযুক্তিতে। তিনি আরো জানান, এই সিস্টেমের মাধ্যমে ব্যাংকের হেড অফিস, শাখা অফিস, এটিএম বুথসহ টাকা বহনকারী গাড়ীর সমস্ত তথ্য সংরক্ষণ, পর্যবেক্ষণ এবং তথ্য প্রদানে সম্পূর্ণ উপযোগী।
তার সাথে আলাপ হয়েছিল মোবাইল এনভিআর সম্পর্কে। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, মোবাইল এনভিআর এমন একটি নতুন প্রযুক্তি যার মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল প্রকার পরিবহনের গতি ও তাত্ক্ষণিক অবস্থানের সকল ডাটাসহ লাইভ ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণ ও মনিটরিং করা যায়।
এই সিস্টেমের মাধ্যমে সরকারি ও বেসরকারি যেকোনো প্রতিষ্ঠানের পরিবহনকে নজরদারীর মধ্যে রাখা সম্ভব। যার মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রতিটি সড়ক, নৌ ও রেলপথের যেকোনো প্রকার দূর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করে তা সনাক্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব। এই ডিভাইসটির ডাটা কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে  যেকোনো মোবাইল ফোন অপারেটরের থ্রিজি/ফোরজি সিম দ্বারা সম্ভব। যার মধ্যে আরও রয়েছে ওয়াইফাই ল্যান কানেক্টিভিটি সুবিধা। যা পৃথিবীতে নতুন উদ্ভাবন। তিনি আরো জানান, অগ্নি দূর্ঘটনা সংঘটিত হওয়ার পূর্ব বার্তা প্রেরণে সফলভাবে কাজ করছে তার প্রতিষ্ঠান। যা আধুনিক ফায়ার অ্যালার্ম সিস্টেমসহ জিএসএম মডিউল নামে পরিচিত। যার মাধ্যমে যেকোনো প্রকার অগ্নি দূর্ঘটনা রোধে পূর্ববর্তী সতর্কতা প্রদান ও ডিজিটাল মনিটরিং ব্যবস্থা করা সম্ভব। এ ছাড়াও সংশ্লিষ্ট বাহিনী এই প্রযুক্তির মাধ্যমে তাত্ক্ষণিক সেবা দিতে সম্ভব। অগ্নিনির্বাপক সামগ্রী সম্পর্কেও আলোচনা হয় তার সাথে, তিনি জানান—জাপানী প্রযুক্তিতে তাইওয়ান এর BOJO-Liquid Tech Inds. Corporation-এ উত্পাদিত নতুন উদ্ভাবিত অতিসহজে ব্যবহারযোগ্য ICE FIRE, AFO এবং FIRE KING অগ্নিনির্বাপক সামগ্রী নিয়ে বাংলাদেশে দাপিয়ে কাজ করছে তার প্রতিষ্ঠান।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top