শিরোনাম

সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - নতুন নম্বর সিরিজ ০১৩ পাচ্ছে না জিপি | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - সিওরক্যাশের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করতে পারবে পেইজা গ্রাহকেরা | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফ্রি ওয়াই-ফাই দেওয়া হবে : পলক | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - ডিজিটাল শিক্ষা বিস্তারে কাজ করবে টেন মিনিট স্কুল | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - ডিজিটাল এন্টারপ্রেনারশিপ ইকোসিস্টেম সম্পর্কিত কর্মশালা অনুষ্ঠিত | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - আফতাব-উল-ইসলাম বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন পরিচালক | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - কিশোর-কিশোরীদের মেধা বিকাশে আসছে কানেক্ট ডটবাংলা | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - ডয়েচে ভেলের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভিত্তিক অনুষ্ঠান আরটিভিতে | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - ‘র‍্যাংকসটেলের ইন্টারনেটের জন্য চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বিটিসিএল’ | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - এবার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন আনছে ফেসবুক |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ভাসমান তথ্য প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করছে সরকার
ভাসমান তথ্য প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করছে সরকার

ভাসমান তথ্য প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করছে সরকার

“মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বিগত সাড়ে ৬ বছরে প্রায় ১০,০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে যোগ হলেও এখনো ৩০ শতাংশের অধিক মানুষের কাছে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছেনি। তাছাড়া বিস্তীর্ণ  চরাঞ্চল, হাওড়াঞ্চলে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি সেবা অপ্রতুল। তাই সেসব প্রত্যন্ত এলাকায় ইন্টারনেট সুবিধা এখনো অকল্পনীয়। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করতে হলে আমাদেরকে সমাজের সব স্তরের মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। ডিজিটাল বৈষম্য দূর করে সেই সব এলাকার মানুষকেও তথ্যপ্রযুক্তির সুবিধা দেয়ার পাশাপাশি তাদের সময়োপযোগী প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে। এই অপার সম্ভাবনা তৈরি করতে হলে ভাসমান আইসিটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ছাড়া আর কোন কার্যকর বিকল্প নেই। তাই বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সুবিধাবিহীন হাওড়াঞ্চল, চরাঞ্চল এবং পানিবন্দি মানুষকে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য ফ্লোটিং সিটি অ্যাপস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।” আজ রাতে ঢাকার একটি হোটেলে নেদারল্যান্ডের ফ্লোটিং সিটি অ্যাপসের সাথে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের এক সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে মাননীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ কথা বলেন।

floating-ict-center

আজকের এই সমঝোতা স্মারককে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে এইট মাইলফলক আখ্যা দিয়ে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, “শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশে সমাজের সব অংশের অংশিদারিত্ব নিশ্চিত করা হবে। সবাই তথ্যপ্রযুক্তির সুফল ভোগ করবে। সবাইকে নিয়ে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলব। বাংলাদেশে ডিজিটাল বৈষম্য হবে ন্যূনতম।”
তিনি আরো বলেন,“নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশের বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র। স্বাধীনতার পর থেকে অত্যন্ত উদার দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে নেদারল্যান্ডস আমাদের বন্ধুত্বকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। তারই ফসল আজকের এই সমঝোতা স্মারক।”
এই সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নেদারল্যান্ডসের অবকাঠামো ও পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী, মিস মিলানি শুল্টজ ভেন হাইগেন(Ms. Melanie Schultz Van Haegen), বাংলাদেশে নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত জনাব গারবেন ডি জং ( Mr. Garben De Jong), তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জনাব শ্যাম সুন্দর সিকদার, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক জনাব এস এম আশরাফুল ইসলাম, ফ্লোটিং সিটি অ্যাপসের বোর্ড সদস্য জনাব ফ্রাঙ্ক বান ব্যান আকের (Mr. Frank Ban Ben Akker) ন্যাশনাল ডেটা সেন্টারের প্রকল্প পরিচালক জনাব তারেক বরকতউল্লাহ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উপ-সচিব জনাব মিনা মাসুদুজ্জামানসহ নেদারল্যান্ডস হাই-কমিশন ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।
উল্লেখ্য যে, প্রথম পর্যায়ে দেশের চারটি প্রত্যন্ত এলাকায় ভাসমান অবকাঠামোর মাধ্যমে এই সুবিধা প্রদান করা হবে, যেখানে ইন্টারনেট ও সোলার প্যানেল সুবিধাসহ ২০ টি ল্যাপটপ থাকবে। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী নেদারল্যান্ডস ভাসমান অবকাঠামো এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ প্রশিক্ষণ সুবিধা প্রদান করবে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top