শিরোনাম

শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধিতে একত্রে কাজ করবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও এটুআই | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রবি’র ক্যারিয়ার কার্নিভাল | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - ‘শান্তি’র জন্য প্রযুক্তি পরিচয়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - নতুন ফিচার নিয়ে ফুডপান্ডা | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় পরিচালিত হবে জীবন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - বিশবছর পূর্তি উদযাপন করলো এরিকসন বাংলাদেশ | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - ফেসবুক হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচতে পারেন যে উপায়ে | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - স্মার্টফোনে আসছে আরও শক্তিশালী জুম ক্যামেরা | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - বাজারে এল স্যামসাং এর নতুন ফোন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - প্রথম“সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ– ২০১৭” শুরু হচ্ছে ৩০ নভেম্বর |
প্রথম পাতা / সোশ্যাল মিডিয়া / মৃত্যুর পর কী হবে আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টটি ?
মৃত্যুর পর কী হবে আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টটি ?

মৃত্যুর পর কী হবে আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টটি ?

social-media-corporateসামাজিক গণমাধ্যম আমাদের জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ভুমিকা পালন করে। এর মাধ্যমে অপরিচিত জনদের সঙ্গেও সামাজিক যোগাযোগ গড়ে তোলা, নতুন নতুন জিনিস আবিষ্কার, নতুন বন্ধু তৈরি এবং নিজের মতামত ও চিন্তা প্রকাশ সহ নানা সুযোগ তৈরি হয়েছে।

আপনি যখন নিজ হাতে আপনার সামাজিক গণমাধ্যম অ্যাকাউন্টটি চালাবেন তখন কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু আপনার মৃত্যুর পর আপনার এই ডিজিটাল সত্ত্বার কী হবে তা কি ভেবে দেখেছেন কখনো? ভিন্ন ভিন্ন সোশাল মিডিয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই প্রশ্নের উত্তরটিও ভিন্ন হতে বাধ্য। কারণ ভিন্ন ভিন্ন সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের ব্যক্তিগত গোপনীয়তার নীতিও ভিন্ন।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ফেসবুক থেকে শুরু করে টুইটার, আপনার মৃত্যুর পর আপনার অ্যাকাউন্টটির কী হবে।

১. ফেসবুক
আপনি চাইলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার মৃত্যুর পর আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেবে অথবা চালু রাখবে। আপনি যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি আপনার মৃত্যুর পরও স্মৃতি হিসেবে চালু রাখতে চান তাহলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার প্রোফাইল নামের পাশে ‘Remembering’ অর্থাৎ স্মরণে এই শব্দটি দেখাবে। তবে আপনার মৃত্যুর পরে আপনার অ্যাকাউন্টটি কে চালাবে সে ব্যাপারে আপনাকে একটি আইনি চুক্তি বা উইল এর কপি ফেসবুককে পাঠাতে হবে। এতে ওই ব্যক্তির সঙ্গে আপনার সম্পর্ক এবং তার নাম জানাতে হবে। মৃত্যুর পর ডেথ সার্টিফিকেট দেখিয়ে ওই ব্যক্তি আপনার অ্যাকাউন্টটি নিজের আয়ত্বে নিয়ে আসতে পারবে।

২. ইউটিউব
ইউটিউবও তাদের ইউজারদেরকে মৃত্যুর পর নিজেদের অ্যাকাউন্টের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের সুযোগ দিয়ে রেখেছে। যারা ইউটিউবে চ্যানেল খুলে মিলিয়ন ডলার আয় করছেন তাদের জন্য এটা খুবই উপকারী হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে যা করতে হবে তা হলো আপনার মৃত্যুর পর আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি কে চালাবে সে-সংক্রান্ত একটি আইনি দলিল বা ডকুমেন্ট পাঠাতে হবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষের কাছে। আপনি যদি তা না চান তাহলে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ নিজেরাই আপনার চ্যানেলটি বন্ধ করে দেবে। কোনো ইউটিউব চ্যানেলে একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কোনো তৎপরতা না চালানো হলে সেটি আপনাতেই বন্ধ করে দেয় ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

৩. ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রামের নীতিও এর জন্মদাতা কম্পানি ফেসবুকের মতোই। ইনস্টাগ্রামের অ্যাকাউন্টও মৃত্যুর পর চাইলে বন্ধ করে দেওয়া যায় বা স্মৃতি হিসেবে চালু রাখা যায়। তবে এই সিদ্ধান্ত আপনার হাতে নেই। আপনার মৃত্যুর পর যে ব্যক্তি আপনার ডেথ সার্টিফিকেট বা মৃত্যু সনদ ইনস্ট্রাগ্রামকে দেখাতে পারবে সে ব্যক্তিই আপনার অ্যাকাউন্টটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে পারবে। তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন আপনার ইনস্ট্রাগ্রাম অ্যাকাউন্টটি চালু থাকবে না বন্ধ করে দেওয়া হবে।

৪. টুইটার
মৃত্যুর পর আপনার টুইটার অ্যাকাউন্টের কী হবে সে ব্যাপারে টুইটারের আলাদা কোনো নীতি নেই। তবে টুইটারের নীতি অনুযায়ী আপনার মৃত্যুর পর আপনার পরিবারের কেউ চাইলে আপনার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিতে পারবে। এ ক্ষেত্রে তিনি যে আপনার পরিবারের সদস্য সে প্রমাণ দিতে হবে। প্রমাণ দিতে পারলে তার অনুরোধে টুইটার আপনার পোস্ট, ছবি এবং অ্যাকাউন্ট অপসারণ করবে। আর এ জন্য অবশ্যই আপনার ডেথ সার্টিফিকেট বা মৃত্যুর প্রমাণপত্রও টুইটার কর্তৃপক্ষকে দেখাতে হবে।

৫. কোরা (Quora)
মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই এই সামাজিক গণমাধ্যমটিও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আপনার কোরা অ্যাকাউন্টটিও আপনি চাইলে আপনার মৃত্যুর পরও স্মৃতি হিসেবে চালু রাখতে পারবেন। এ জন্য যে ব্যক্তি আপনার ‍মৃত্যুর পর আপনার কোরা অ্যাকাউন্টটি চালাতে চাইবে তাকে আপনার মৃত্যু সনদ কোরা’র কর্তৃপক্ষকে দেখাতে হবে।

মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের ইউজার নামের কী হবে?
ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম সহ প্রতিটি সামাজিক গণমাধ্যম প্ল্যাটফর্মেরই প্রতিটি ইউজারের একটি অন্যন্য ‘ইউজার নেম’ আছে। লিঙ্কড ইন এবং ফেসবুক আপনার মৃত্যুর পর চাইলে তা অন্য কাউকে দিয়ে দিতে পারবে।

কিন্তু ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এবং গুগল আপনার ইউজার নেম অন্য কাউকে দেবে না।

মৃত্যুর পর কতদিন আপনার অ্যাকাউন্টটি অ্যাকটিভ থাকবে?
আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি যতদিন আপনার মৃত্যুর খবর ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে কেউ না জানাচ্ছে ততদিন সক্রিয় থাকবে।

লিঙ্কডইন অ্যাকাউন্টও বন্ধ হয়ে যাবে মৃত্যুর খবর জানানোর সঙ্গে সঙ্গে।

পিনটারেস্ট অ্যাকাউন্ট কখনো বন্ধ করা যাবে না।

টুইটার বন্ধ করা যাবে ৬ মাস পর।

গুগলও আপনার মৃত্যুর খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আপনার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেবে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top