শিরোনাম

মঙ্গলবার, জুলাই 25, 2017 - ১৪৬ প্রতিষ্ঠানের সদস্যপদ বাতিল করলো বেসিস | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশের সব মোবাইল টাওয়ার চালাবে নতুন চার কোম্পানি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এইচপির নতুন প্রিন্টার বাজারে আনল ফ্লোরালিমিটেড এবং স্মার্ট টেকনোলজি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এক্সপেরিয়েন্স প্যারিস উইথ মাস্টারকার্ড ক্যাম্পেইনের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - অবৈধ পথে মোবাইল আমদানি:বছরে ৮০০ কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ট্যালেন্ট ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় গ্র্যাজুয়েশন করলেন রবি’র ৩১ কর্মকর্তা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - বাংলাদেশী রিং আইডির লাইভ চ্যাটে আসছেন সানি লিওন (ভিডিও) | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে বিশেষ ছাড় পাবেন গ্রামীণফোনের স্টার গ্রাহকরা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশে শতকরা ৪৩ ভাগ প্রেমের বিয়েই বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়:বিবাহবিডি জরিপ | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইনোভেটিভ টিচিং এন্ড লার্নিং এক্সপো ঢাকায় |
প্রথম পাতা / সাইবার ক্রাইম / ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকিতে শীর্ষে বাংলাদেশ
ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকিতে শীর্ষে বাংলাদেশ

ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকিতে শীর্ষে বাংলাদেশ

সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট জানিয়েছে, সবচেয়ে বেশি ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, নেপাল এবং ফিলিস্তিন। অন্যদিকে ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে কম জাপান, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে এবং সুইডেনে। গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত মাইক্রোসফটের দ্বিবার্ষিক সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স রিপোর্টে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
প্রতিবেদনটির বিষয়ে মাইক্রোসফটের একজন কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানান, প্রতিদিন ব্যক্তিগত তথ্য চুরির জন্য প্রায় ১০ মিলিয়ন সাইবার আক্রমণের ঘটনা ঘটে থাকে। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেক আক্রমণই এশিয়া থেকে এবং প্রায় পাঁচ ভাগের এক ভাগ হয়ে থাকে ল্যাটিন আমেরিকা থেকে। তবে সবসময় যে আক্রমণকারীরা সফল হয় না, সে কথাও জানান তিনি।
bd-malwareপ্রতিবেদন অনুযায়ী, জাপান, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে এবং সুইডেনের মাত্র ৭.৮১ থেকে ১৩.৫১ শতাংশ কম্পিউটার ম্যালওয়্যার আক্রমণের শিকার হয়ে থাকে। অন্যদিকে এশিয়ার এই কয়েকটি দেশে আক্রমণের পরিমাণ অনেক বেশি। পাকিস্তানের ৬৩ শতাংশের বেশি কম্পিউটারে ম্যালওয়্যার আঘাত হানে। ভারতে এই হার প্রায় ৪৪ শতাংশ।
অনেক ক্ষেত্রেই মেশিন লার্নিং প্রযুক্তির মাধ্যমে আক্রমণ শনাক্ত করা সম্ভব হয়। কারণ এই প্রযুক্তি ব্যবহারকারীর অবস্থান পর্যালোচনা করে যার মাধ্যমে আক্রমণ শনাক্ত করা অনেক ক্ষেত্রেই সম্ভব হয়।
কম্পিউটারে ম্যালওয়্যারের আক্রমণ এবং শনাক্ত করার বিষয়ে মাইক্রোসফট সিকিউরিটির ডিরেক্টর টিম রেইনস জানান, একটি কম্পিউটারে আক্রমণ করার পর সেটি শনাক্ত করতে মোটামুটি ২৪০ দিন পর্যন্ত সময় লেগে যায়।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top