শিরোনাম

সোমবার, মে 22, 2017 - সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের নির্বাচন | সোমবার, মে 22, 2017 - বেসিসের সদস্য কোম্পানির জন্য  ইউএসডি মাস্টারকার্ড | সোমবার, মে 22, 2017 - লাভা ও মাইক্রোম্যাক্সের সাথে সাশ্রয়ী স্মার্টফোন নিয়ে এলো গ্রামীণফোন | সোমবার, মে 22, 2017 - ১০ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ কোডার্সট্রাস্টের | রবিবার, মে 21, 2017 - নিজল ক্রিয়েটিভের ৫ম বর্ষপূর্তি উদযাপন | রবিবার, মে 21, 2017 - বগুড়ায় দ্বিতীয় আইইটিএফ আউটরিচ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত | রবিবার, মে 21, 2017 - স্যামসাং ও গ্রামীণফোনের আকর্ষণীয় অফার | রবিবার, মে 21, 2017 - সাইবার নিরাপত্তা বিধানে গণসচেতনতা অত্যাবশ্যকীয় | রবিবার, মে 21, 2017 - শেষ হলো ন্যাশনাল গার্লস প্রোগ্রামিং ক্যাম্প | রবিবার, মে 21, 2017 - ‘রি ডটকন’ চালু করল রবি |
প্রথম পাতা / টেলিকম / রবি-এয়ারটেল একীভূত হতে আনুষ্ঠানিক চুক্তি
রবি-এয়ারটেল একীভূত হতে আনুষ্ঠানিক চুক্তি

রবি-এয়ারটেল একীভূত হতে আনুষ্ঠানিক চুক্তি

মোবাইল অপারেটর রবি ও এয়ারটেলের একীভূত হওয়ার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি হয়েছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে রবি-এয়ারটেলের একীভূত হওয়ার বিষয়টি আলোচনায় এলে তা আদালত পর্যন্ত গড়ায়।

robi-airtelকোম্পানি দুটির মালিক মালয়েশিয়ার আজিয়াটা বারহাদ এবং ভারতীয় এয়ারটেল লিমিটেড (ভারতী) বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম একীভূত করতে আনুষ্ঠানিক এ চুক্তিতে উপনীত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে রবি কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশে ব্যবসায়িক কার্যক্রম একীভূত করতে গত ৯ সেপ্টেম্বর আলোচনা শুরু করে বারহাদ ও ভারতী কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে তারা বাংলোদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটআরসি) আবেদন করে। বিষয়টি এখন কমিশনের বিবেচনাধীন রয়েছে।

ব্যবসা একীভূত করার অনুমতি চেয়ে গত সেপ্টেম্বরে বিটিআরসিতে যে চিঠি দিয়েছিল রবি ও এয়ারটেল তাতে বলা হয়েছিল, একীভূত হওয়ার পর ৭৫ শতাংশ শেয়ার থাকবে মালয়েশিয়াভিত্তিক আজিয়াটা গ্রুপ ও এনটিটি ডকোমার কাছে। আর বাকি ২৫ শতাংশ শেয়ার থাকবে ভারতি এয়ারটেলের কাছে।

আজিয়াটার প্রেসিডেন্ট এবং গ্রুপের প্রধান নির্বাহী দাতোশ্রী জামালুদ্দিন ইব্রাহিম বলেন, আজিয়াটার একীভূতকরণ এবং আত্মীকরণ কৌশলের সঙ্গে সমন্বয় রেখে বিভিন্ন দেশে আমরা নিজেদের অবস্থান জোরদার এবং দীর্ঘমেয়াদী প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত করতে এ ধরণের একীভূতকরণে সর্বোচ্চ মনোযোগ দিয়েছি।

ভারতী এয়াটেলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং সিইও (ভারত ও দক্ষিণ এশিয়া) গোপাল ভিত্তাল বলেন, দুটি কোম্পানির শক্তিকে একত্রিত করার পেছনে অত্যন্ত যৌক্তিক কারণ রয়েছে। একীভূত এই সত্তা তার কার্যক্রমের সমন্বয় ঘটিয়ে গ্রাহকদের বিশ্বমানের আরও দারুণ সেবা দিতে সক্ষম হবে এবং বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ খাতের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারবে।

রবির সিইও সুপুন বীরাসিংহে বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান অসম প্রতিদ্বন্দ্বিতা এবং প্রতিযোগিতার টেলিকমিউনিকেশন খাতে একীভূতকরণ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এই একীভূতকরণের মাধ্যমে আজিয়াটা এবং ভারতী এয়ারটেল উভয়েই বর্ধিত আকার এবং দক্ষতার ফলশ্রুতিতে ব্যয় সংকোচনের সুবিধা পাবে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালে মোবাইল ফোন অপারেটর ওয়ারিদের ৭০ শতাংশ শেয়ার কিনে নিয়ে বাংলাদেশে যাত্রা করে এয়ারটেল। তখন অপারেটরটির ৭০ শতাংশ শেয়ার ভারতীয় এ কোম্পানি কিনেছিল মাত্র ১ লাখ ডলার মূল্য দেখিয়ে। এরপর ২০১৩ সালে বাকি ৩০ শতাংশ কিনে নেয় ৮৫ মিলিয়ন ডলারে।

আরও পড়ুন:

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top