শিরোনাম

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বন্ধ হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ডেটা ছাড়া তথ্যসেবা | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বাজারে এলো সিউ কম্প্যাক্ট ডেস্কটপ নেটওয়ার্ক লেবেল প্রিন্টার | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - জুতা পরে হাঁটলেই চার্জ হবে ফোন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - নতুন সংস্করণে আসুসের গেইমিং ল্যাপটপ | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - টাটা নিয়ে আসছে ড্রাইভারলেস গাড়ি | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - চার মোবাইল অপারেটর পেল ফোরজি লাইসেন্স | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - স্যামসাংয়ের ক্ষতির কারন আইফোন ১০ | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - নতুন কনফিগারেশনে আসছে নোকিয়া ৬ | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - স্যামসাং গ্যালাক্সি জে২ এলো ফোর-জি রূপে | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - এখনই ফোরজি সেবা পাবেনা টেলিটক গ্রাহকরা |
প্রথম পাতা / ইভেন্ট / শিক্ষা ক্ষেত্রে নতুন পদ্ধতি প্রবর্তনের জন্য ‘মাইক্রোসফট এডুকেশন অ্যাওয়ার্ড ২০১০’ পেল বিবিসি জানালা

শিক্ষা ক্ষেত্রে নতুন পদ্ধতি প্রবর্তনের জন্য ‘মাইক্রোসফট এডুকেশন অ্যাওয়ার্ড ২০১০’ পেল বিবিসি জানালা

বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ মানুষকে মোবাইলের মাধ্যমে ইংরেজি ভাষা শিখতে সহায্য করছে বিবিসি জানালা। এই বছরের ইন্টারন্যাশনাল টেক অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানে বিবিসি জানালা মর্যাদাপূর্ণ ‘মাইক্রোসফট এডুকেশন অ্যাওয়ার্ড ২০১০’ প্রাপ্তির সম্মান লাভ করেছে। অনুষ্ঠানটি আমেরিকার সিলিকন ভ্যালি, ক্যালিফোর্নািয় অনুষ্ঠিত হয়।বিবিসি জানালা এই যুগান্তকারী সেবাটির মাধ্যমে মোবাইলের প্রযুক্তি ব্যবহার করে বাংলাদেশের দরিদ্রতম মানুষদেরও সহজে ও সাধ্যের মধ্যে ইংরেজি শিখতে সাহায্য করছে। বিষয়টি বিচারকদের চমত্কৃত করেছে।প্রায় ১২ মাস আগে বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিস ট্রাস্ট বিবিসি জানালা নামক এই সেবাটি চালু করে। বিবিসি জানালার প্রতিটি লেসনের দৈর্ঘ্য ৩ মিনিট যা বাংলাদেশে ৮৪% ইংরেজি শিখতে আগ্রহী মানুষকে নিজেদের ইংরেজি দক্ষতা বাড়ানোর সুযোগ করে দেয়ার পথে অগ্রসর। এই দক্ষতা তাদের ভালো চাকরি পেতে, জীবন-যাপনের উন্নয়নে ও আন্তর্জাতিক অর্থনীতির সাথে তাল মিলিয়ে চলতে সহায়তা করবে।বাংলাদেশে মোবাইল ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি। বিবিসি জানালার সেবা গ্রহণ করতে ইতিমধ্যে ডায়ালকৃত প্রায় ৩০ লক্ষ ৫০ হাজার কল ইতিমধ্যেই এই সেবার জনপ্রিয়তা প্রমাণ করে। আর প্রতি মিনিটে মাত্র ৫০ পয়সা কল রেটের মাধ্যমে বিবিসি জানালা এমন সব মানুষদের কাছে পৌঁছাতে চায়, যাদের দৈনিক আয় ২ পাউন্ড অর্থাত্ ২৪০ টাকারও কম।[1]বিবিসি জানালার এই অর্জন সম্পর্কে টেক অ্যাওয়ার্ড এর বিচারক এবং স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির ডিজিটাল ভিশন প্রোগ্রামের প্রাক্তন পরিচালক স্টুয়ার্ট গান্স বলেন:

মানুষ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছে কী করে ডিজিটাল বিভাজন দূর করা যায় আর কম্পিউটার ব্যবহারের মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশের মানুষকে শিক্ষাপ্রদান করা যায়। এটা কম্পিউটারের সহজলভ্যতার ঘাটতি এবং ডাটা নেটওয়ার্কের সংযোগ ব্যবস্থার স্বল্পতার মুখে একটি বিশাল চ্যালেঞ্জ। অবশ্য আমরা যখন বিকল্প সমাধানের পথ খোঁজার চেষ্টা করছিলাম, তখনই মোবাইলের মাধ্যমে সারা বিশ্ব সংযুক্ত হয়ে যায়। বিবিসি জানালার পেছনের প্রতিভাবানরা উন্নত বিশ্বের মতো সুযোগের অপেক্ষা না করে বিদ্যমান মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষকে সাহায্য করছে। যা সত্যিই অভাবনীয়।

মোবাইল মাধ্যম ছাড়াও বাংলাদেশের মানুষ আরও নানাভাবে ইংরেজি শেখার ও চর্চার সুযোগ পাচ্ছে। প্রায় ১ কোটি মানুষ এখন টেলিভিশনে নাটক ‘বিশ্বাস’ ও গেম শো ‘বিবিসি জানালা- মজায় মজায় শেখা’ অনুষ্ঠান দুটি দেখছে, পাশাপশি ১০ লাখ পাঠক একটি প্রধান দৈনিক পত্রিকায় বিবিসি জানালার ইংরেজি লেসন পড়ার সুযোগ পাচ্ছে।

মোবাইল ও মিডিয়া জগতের অনেকেই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন যে, বিবিসি জানালা ইতিমধ্যেই যেটুকু ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করেছে তা অন্যান্য উন্নযনশীল দেশের জন্য একটি দৃষ্টান্ত হতে পারে।

যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (ডি.এফ.আই.ডি) এর আওতাভূক্ত ইউকেএইড এর অর্থায়নে ‘ইংলিশ ইন অ্যাকশন’ প্রকল্পের আওতায়, ২০১৭ সালের মধ্যে বাংলাদেশের ২ কোটি ৫০ লক্ষ মানুষকে ইংরেজিতে দক্ষ করে তোলার লক্ষ্যে বিবিসি জানালা পরিচালিত হচ্ছে।

‘টেক অ্যাওয়ার্ড’ বিশ্বের প্রাকৃতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা, অর্থনৈতিক উন্নতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সমতা ইত্যাদি ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত অবদানকে স্বীকৃতি দেয় আর উদ্যাপন করে।

এই বছর বিশ্বের নানাপ্রান্ত থেকে ১০০০ এরও বেশি মনোনয়নের মধ্য থেকে শুধু মাত্র ১৫টিকে বিজয়ী হিসেবে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করা হয়, যার মধ্যে নেদারল্যান্ড, ব্রাজিল, ভারত, যুক্তরাজ্য, ফিলিপাইন এবং যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশও ছিল।

বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিস ট্রাস্টসহ ৫টি বিজয়ী পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়। ৫০.০০০ মার্কিন ডলার প্রাইজ মানি হিসেবে ঘোষণা হয় সান্টা ক্লারা কনভেনশন সেন্টারে অয়োজিত চূড়ান্ত অনুষ্ঠানে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রায় ১,৫০০ লোক, যার মধ্যে সিলিকন ভ্যালি ইন্ডাস্ট্রির কর্তাব্যক্তিরা, জনসেবকরা ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা ছিলেন।

মাইক্রোসফেটর কর্পোরেট ভাইস প্রেসিডেন্ট ডানিয়েল লুইন এই পুরস্কার সম্পর্কে বলেন:

আমাদের লক্ষ্য সেইসব জনগণ প্রতিষ্ঠানকে সাহায্য করা, যাদের প্রচেষ্টা রয়েছে শিক্ষা মাধ্যমের পূর্ণ সম্ভাবনা নিশ্চিত করা, যেটি প্রতিটি মানুষেরই প্রাপ্য প্রয়োজন। এই বছরের নির্বাচিত বিজয়ীরা প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে শিক্ষা ক্ষেত্রে এক নতুন ধারার প্রবর্তন করেছেন। আমরা শিক্ষার প্রতি তাদের আন্তরিকতায় মুগ্ধ এবং অভিনন্দন জানাই তাদের এই অসাধারণ কৃতিত্বের জন্য।

বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিস ট্রাস্টের হেড অফ ইন্টারঅ্যাকটিভ, সারা চেম্বারলিন বলেন:

প্রযুক্তিকে ভিত্তি করে মোবাইল ফোন কি করে মানসম্পন্ন সহজসাধ্য শিক্ষা মাধ্যম হিসেবে কাজ করতে পারে, আমরা বাংলাদেশে সে বিষয়টিই লক্ষ করেছি। সাধারণ স্বল্প আয়ের অনেক মানুষেরাও এর মাধ্যমে সহজে ইংরেজি

শিখতে পারছেন। আমরা আশা করি, বিবিসি জানালা বিশ্বের সকল উন্নয়নশীল দেশে এই কাযক্রম সূচনা করার ক্ষেত্রে নতুন ধারা সংযোজন করবে।

টেক অ্যাওয়ার্ডস এবং এর বিজয়ীদের সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন:

http://www.techawards.org/pressroom/detail.php?id=267

এছাড়া বিবিসি জানালা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন:

http://www.bbcjanala.com

Comments

comments



One comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top