শিরোনাম

শনিবার, মে 27, 2017 - অ্যাপেল এর দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় স্টোর এখন সিঙ্গাপুর এ | শনিবার, মে 27, 2017 - নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে এলামনাইদের পুর্নমিলনী | শনিবার, মে 27, 2017 - ন্যাশনাল ডেমো ডে ও স্টার্টআপ এ্যাওয়ার্ড ২০১৭ | শনিবার, মে 27, 2017 - অনলাইন হোটেল বুকিং এ ৯০ শতাংশ ছাড়! | শনিবার, মে 27, 2017 - এখন ও উইন্ডোজ ১০ আপগ্রেড বিনামূল্যে | শনিবার, মে 27, 2017 - হার্ভার্ড থেকে ১৩ বছর পর  ডিগ্রি নিলেন জাকারবার্গ | শনিবার, মে 27, 2017 - দেশের গন্ডি পেরিয়ে পিএমঅ্যাস্পায়ার | শুক্রবার, মে 26, 2017 - স্থগিত হয়ে গেছে বেসিস ২০১৭-১৮ টার্মের ৩ পদে নির্বাচন | শুক্রবার, মে 26, 2017 - রবি’র লোকসান ১৭০ কোটি টাকা | শুক্রবার, মে 26, 2017 - ডোমেইন এবং হোস্টিং এ বিশেষ অফার |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ‘সাইবার হয়রানির শিকার দেশের ৪৯% স্কুল শিক্ষার্থী’
‘সাইবার হয়রানির শিকার দেশের ৪৯% স্কুল শিক্ষার্থী’

‘সাইবার হয়রানির শিকার দেশের ৪৯% স্কুল শিক্ষার্থী’

বাংলাদেশের ৪৯ শতাংশ স্কুল শিক্ষার্থী অনলাইনে হয়রানির শিকার হয় বলে এক জরিপের বরাত দিয়ে জানিয়েছে টেলিনর গ্রুপ। স্কুল শিক্ষার্থীদের অনলাইন কর্মকাণ্ড নিয়ে জরিপটি চালানো হয়।

gp-cyber‘নিরাপদ ইন্টারনেট’ শিরোনামে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। বাংলাদেশের প্রধান শহরগুলোসহ বিভিন্ন এলাকার ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী একহাজার ৮৯৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ইন্টারনেট বিষয়ক জ্ঞান নিয়ে চালানো জরিপে এসব তথ্য উঠে আসে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান টেলিনর।

শিশুদের জন্য ইন্টারনেটকে নিরাপদ করে তুলতে এবং এবিষয়ে কার্যকরী সমাধানের জন্য এ গবেষণা চালানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘অনলাইনে বাংলাদেশের ৪৯ শতাংশ স্কুল শিক্ষার্থীর একই ব্যক্তির দ্বারা উৎপীড়নের শিকার হওয়ার অথবা উত্ত্যক্ত হওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে। অথবা তারা নাম প্রকাশ না করে অনলাইনে অন্যকে উত্ত্যক্ত করেছে।’ জরিপের আওতায় আসা ৬১ শতাংশ শিক্ষার্থী জানায় ‘সেক্সটিং’ নামে পরিচিত অশোভন বার্তা না পাঠানোর কথা জানায়।

স্কুল শিক্ষার্থীদের অনেকেই পারিপার্শ্বিক চাপের কারণে এমন অপরাধামূলক কাজে জড়াচ্ছেন। সাইবার বুলিইংয়ের কারণে তাদের মা-বাবারা উৎকণ্ঠায় থাকেন বলেও জরিপে উঠে এসেছে।

সাইবার জগতে নেতিবাচক অভিজ্ঞতা সামাল দিতে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে ৬০ শতাংশ শিক্ষার্থী জানায়, তারা মনে করে নিজেরা অথবা বাবা-মা ও শিক্ষকদের সঙ্গে পরামর্শ করে সমাধান করতে পারবে। তবে এদের মধ্যে মাত্র ৩৮ শতাংশ শিক্ষার্থী অনলাইনে জড়ানো সমস্যা সমাধানে মা-বাবার সাহায্য নেয়ার কথা জানায়।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top