শিরোনাম

শুক্রবার, জুলাই 28, 2017 - ভিসি ও ডিন্স সার্টিফিকেট পেলেন গ্রিন ইউনিভার্সিটির ২৪০শিক্ষার্থী | শুক্রবার, জুলাই 28, 2017 - দারাজের গ্রোসারি পণ্যে ৩৫% পর্যন্ত ছাড়! | শুক্রবার, জুলাই 28, 2017 - মনিটর কিনলেই পাচ্ছেন আর্কষনীয় টি-শার্ট  | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - রবি ও ট্রমা ইনস্টিটিউটের মধ্যে কর্পোরেট চুক্তি সই | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - দেশের বাজারে হুইনের তারবিহীন কিউ১১কে গ্রাফিক্স ট্যাবলেট উন্মোচন | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটির তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কিত ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - যুক্তরাষ্ট্রে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে ফক্সকন | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - স্মার্ট টেকনোলজি ও সিভিল এভিয়েশনের চুক্তি সই | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - ফিরে আসছে সিটিসেল | বৃহস্পতিবার, জুলাই 27, 2017 - আসছে স্মার্ট রিং |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / সিম পুনঃযাচাইকরণে শেষ সময়ের চাপ – সার্ভার ডাউন, গ্রাহকের দুর্ভোগ
সিম পুনঃযাচাইকরণে শেষ সময়ের চাপ – সার্ভার ডাউন, গ্রাহকের দুর্ভোগ

সিম পুনঃযাচাইকরণে শেষ সময়ের চাপ – সার্ভার ডাউন, গ্রাহকের দুর্ভোগ

৩০ এপ্রিলের মধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম পুনঃনিবন্ধন না করলে ১ মে সকল অনিবন্ধিত সিম ৩ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকবে। এরপর খুব স্বল্প সময়ের মধ্যেই অনিবন্ধিত সিমগুলো একেবারেই বন্ধ হয়ে যাবে।’

এই ঘোষণা আসার পর থেকে গ্রাহকরা ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃতভাবে হলেও সিম পুনঃযাচাইকরণের জন্য অপারেটরদের দ্বারস্থ হচ্ছেন। শেষ সময়ে তাই সিম পুনঃযাচাইকরণের কাস্টমার কেয়ার বা দোকানগুলোতেও দেখা যাচ্ছে অতিরিক্ত ভীড়। শুক্রবার ছুটির দিন হলেও রাজধানীর বেশ কয়েকটি জায়গায় গ্রাহকদের লাইনে দাঁড়িয়ে সিম পুনঃযাচাইকরণ করতে দেখা গেছে।

sim-reg-29-aprধানমণ্ডিতে অবস্থিত সীমান্ত স্কয়ার মার্কেটের সামনে বাংলালিংক পয়েন্টে সিম পুনঃযাচাইকরণ করতে এসেছিলেন মামুন বিল্লাহ। তিনি  বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম রি-ভেরিফিকেশন না করলেও মনে হয় কোনো সমস্যা হবে না। তবে এখন মনে হচ্ছে সিম আসলেই বন্ধ হয়ে যেতে পারে। সিমটা যেহেতু গুরুত্বপূর্ণ, তাই কার্যদিবসগুলোতে সময় না পেলেও বন্ধের দিনে এসেছি। এক ঘণ্টা ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। ভেতর থেকে বলা হচ্ছে চাপের কারণে সার্ভার ডাউন হয়ে যাচ্ছে। তাই সময় বেশি লাগছে।’

এক আইডিতে ১০টার বেশি সিম নিবন্ধন করতে দেখা গেছে রি-ভেরিফিকেশন পয়েন্টগুলোতে। গ্রামীণফোন ব্যবহারকারী সাজ্জাদ হোসেন পিন্টু বলেন, ‘বাসার সবাই গ্রামীণফোন ব্যবহার করে। কিন্তু ব্যস্ততা ও অসুস্থতার কারণে কারও সিম পুনঃযাচাইকরণ করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই বাসার সবগুলো সিম আমার নামেই পুনঃযাচাইকরণ করতে এসেছি।’

একের অধিক সিম ব্যবহারকারীদের জন্য সিম পুনঃযাচাইকরণে সময় বেশি ব্যয় হয়। তাই যারা একটি সিম পুনঃযাচাইকরণ করতে এসেছেন তাদের অনেকের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়।

হঠাৎ করে গ্রাহক চাপ বৃদ্ধি পাওয়াতে অনেক রি-ভেরিফিকেশন পয়েন্টে সার্ভার ডাউনের কথা বলা হচ্ছে। অতিরিক্ত চাপের কারণেই এমন সমস্যা হয়েছে বলে দাবি মোবাইল রি-ভেরিফিকেশনে বিভিন্ন অপারেটরের দায়িত্বপ্রাপ্তরা।

তবে এনআইডি কতৃপক্ষ সার্ভার ডাউনের কথা অস্বীকার করেন। মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অফ মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশের (অ্যামটব) মহাসচিব টি আই এম নুরুল কবির বাংলামেইলকে জানান, নিবন্ধনের অতিরিক্ত চাপে এ সমস্যা হতে পারে। অপারেটর ও এনআইডি কর্তৃপক্ষের কারিগরি দল এ সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাচ্ছে।

ইতোমধ্যে ১৩ কোটি মোবাইল সিমের মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ৮ কোটি ৩৮ লাখ সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়েছে বলে জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী। ৩০ এপ্রিলের পর সময় বাড়ানো হবে কি না এ সম্পর্কে নির্দেশনা আসতে পারে শনিবার।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top