শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - যাত্রা শুরু করলো ওয়ালটনের কম্পিউটার কারখানা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - নতুন স্মার্টফোন আনল হুয়াওয়ে অনার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্বল্প মূল্যের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ‘অন৭ প্রাইম’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ল্যাপটপের সঙ্গে রাউটার ফ্রি! | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ‘অপো এশিয়ায় সর্বাধিক বিক্রীত স্মার্টফোন’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - চীনে চালু হচ্ছে গুগলের এআই ল্যাব | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - বৈদ্যুতিক গাড়িতে ১১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগে ফোর্ডের আগ্রহ প্রকাশ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - উইন্ডোজ ৮.১ এর বিদায় | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - স্যামসাংকে টপকে গেলো অ্যাপল |
প্রথম পাতা / স্থানীয় খবর / স্যাটেলাইটের অরবিটাল স্লট কিনছে সরকার ২১৯ কোটিতে
স্যাটেলাইটের অরবিটাল স্লট কিনছে সরকার ২১৯ কোটিতে

স্যাটেলাইটের অরবিটাল স্লট কিনছে সরকার ২১৯ কোটিতে

অবশেষে ২১৯ কোটি ৯৬ লাখ টাকায় রাশিয়ার স্যাটেলাইট কোম্পানি ইন্টারস্পুটনিকের কাছ থেকে অরবিটাল স্লট কেনার অনুমোদন দিয়েছে সরকার।

বুধবার সরকারে ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির এক বৈঠকে এ বিষয়ে অনুমোদন দেওয়া হয়। ফলে অল্প দিনের মধ্যেই ইন্টারস্পুটনিকের সঙ্গে এ বিষয়ে অনুষ্ঠানিক চুক্তি হবে বলে জানিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

ইন্টারস্পুটনিকের কাছ থেকে সরকার ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমায় স্লট নেবে। এর আগে ২০১৩ সালে ২৮ মিলিয়ন ডলারে দুই পক্ষের মধ্যে (ইন্টারস্পুটনিক এবং বিটিআরসি) ‘নন বাইন্ডিং অ্যাগ্রিমেন্ট’ হয়। মার্চ পর্যন্ত ছিল সেই চুক্তির মেয়াদ। পরে তা চলতি ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

satellite

শেষ পর্যন্ত এই মূল্যেই ১৫ বছরের জন্যে কেনা হচ্ছে অরবিটাল স্লট। তবে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের জন্যে এর আগে নিজেদের স্লটের বিষয়ে আবেদন করা হলেও সরকার সে বিষয়ে তেমন উদ্যোগী না হয়ে বরং স্পুটনিকের কাছ থেকে স্লট কিনে নেওয়ার বিষয়েই বেশী আগ্রহী হয়েছে।

মহাকাশে বাংলাদেশের আবেদন ছিল ১০২ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমায়। কিন্তু বাংলাদেশ এখন রাশিয়ার কাছ থেকে কিনতে যাচ্ছে ১১৯ দশমিক ২ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমায়। যেটি আসলে বাংলাদেশ থেকে বেশ খানিকটা পূর্ব দিকে চলে যাচ্ছে। বাংলাদেশের অবস্থান ৯০ ডিগ্রীর আশেপাশে। তবে এই জায়গায় কোনো স্লট খালি না থাকায় বাংলাদেশকে খানিকটা সরে যেতে হচ্ছে।

এর আগে ডিসেম্বরের শুরুতে সরকারের অর্থ সংক্রান্ত ক্যাবিনেট কমিটি সিঙ্গেল সোর্স হিসেবে ঘোষণা করে ইন্টারস্পুটনিকের কাছ থেকেই এই স্লট কেনার অনুমোদন দেয়। তবে এ সংক্রান্ত প্রক্রিয়াও শেষ করতে বলে তারা।

এর আগে ২০০৭ সালে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) নিজস্ব স্যাটেলাইট উড়াতে অান্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন্স ইউনিয়নের(অাইটিইউ) কাছে আবেদন করে।

২০১০ সালে বাংলাদেশ অাইটিইউ’র নির্বাহী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হলেও পরের চার বছরে এই স্লট পাওয়ার বিষয়ে তেমন কোনো উদ্যোগ নেয়নি। বরং নিজস্ব স্লট পাওয়ার চেয়ে বরং স্লট কিনে নেওয়ার বিষয়ে বরাবরই বিটিঅারসি’র অাগ্রহ বেশী ছিল।

তবে সরকার একবার ৩ হাজার ২’শ কোটি টাকা স্যাটেলাইট প্রকল্পের জন্যে অনুমোদন দিলেও গত ১৬ সেপ্টেম্বর তা সংশোধন করে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় (একনেক)। তখন প্রকল্পের খরচ দাঁড়ায় দুই হাজার ৯৬৮ কোটি টাকা।

সে সময় বলা হয়, নিজস্ব স্যাটেলাইট উড়ানো হলে বছরে দেশের ১১০ কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রা সাশ্রয় হবে।

প্রকল্পের মোট ব্যয়ের মধ্যে এক হাজার ৩১৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা দেবে সরকার। বিডার্স ফিন্যান্সিং এর মাধ্যমে প্রকল্প সাহায্য থেকে আসবে এক হাজার ৬৫২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা।

ভূমি থেকে উপগ্রহটি নিয়ন্ত্রণের জন্য দুটি ‘গ্রাউন্ড স্টেশন’ থাকবে। গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর এবং রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) নিজম্ব জমিতে ‘গ্রাউন্ড স্টেশন’ দুটি বসছে। ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে প্রকল্পটির বাস্তবায়ন মেয়াদ ধরা হয়েছে।

Comments

comments



One comment

  1. uddeg ta valo bochore jodi sotti 110 koti taka sasroy hoy taile 15 years er jonno 219 kodi taka diye kinle lose hobe na.kintu setar jothajotho o lavjhonok kore tulte hobe

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top