শিরোনাম

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - সনি’র দুর্দান্ত এক আপকামিং ফোনের তথ্য ফাঁস | সোমবার, ডিসেম্বর 11, 2017 - বিসিএস এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত |
প্রথম পাতা / অর্থনীতি / হরতাল অবরোধে এটিএম বুথের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা
হরতাল অবরোধে এটিএম বুথের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা

হরতাল অবরোধে এটিএম বুথের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা

ব্যাংকের এটিএম বুথে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিতের অনুরোধ জানিয়ে পুলিশ প্রশাসনকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

একইসঙ্গে ব্যাংকগুলোকে নিজস্ব নিরাপত্তায় বুথগুলোতে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশও দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ম. মাহফুজুর রহমান।

atm-pin1

তিনি বলেন, “আমরা বিভিন্ন পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি এটিএম বুথগুলোতে টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। সেই প্রেক্ষিতে ব্যাংকগুলোকে ডেকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। তাদেরকে বুথে পর্যাপ্ত নোট রাখার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।”

একইসঙ্গে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে চিঠি দিয়ে এটিএম বুথের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অনুরোধ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

১৮-দলীয় জোটের ডাকা অবরোধে রাজধানীসহ সারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় এটিএম বুথে টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। মাসের শুরুতে গ্রাহকদের নগদ অর্থের চাহিদা বেশি থাকলেও দুর্ভোগে পড়ছেন অনেকেই।

ব্যাংকগুলো বলছে, হরতাল-অবরোধে নাশকতার ভয়ে নিরাপত্তা সেবা প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যাংকের বুথগুলোতে টাকা পৌঁছে দিতে পারছে না। এ কারণে সংকট তৈরি হয়েছে। এ রকম টানা কর্মসূচি চললে সংকট আরো বাড়বে।

দেশে কার্যরত ব্যাংকগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এটিএম বুথ রয়েছে ডাচ বাংলা ব্যাংকের। ব্যাংকটির বর্তমানে ২ হাজার ৪৪০টি বুথ চালু রয়েছে।

এই ব্যাংকের অলটারনেটিভ ডেলিভারি চ্যানেল (এডিসি) বিভাগের প্রধান ইকবাল হোসেন বলেন, “চলমান রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে আমাদের নোট ফিডিং (এটিএম মেশিনে টাকা ভরা) কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। যেসব প্রতিষ্ঠান আমাদের নোট ফিডিংয়ের কাজ করে তারা ঝুঁকি নিতে চাচ্ছে না।

“এছাড়া পুলিশও ঝুঁকি নিতে চাচ্ছে না। আবার বীমা কোম্পানিগুলোও এসব ঝুঁকির দায় নেবে না। যে কারণে সব বুথে টাকা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এরপরও আমরা চেষ্টা করছি।”

ইকবাল হোসেন  জানান, তাদের ব্যাংকের শাখার লাগোয়া বুথগুলোতে নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থায় টাকা দেয়া হচ্ছে। একইসঙ্গে শাখা থেকে চেকের মাধ্যমেও টাকা উত্তোলন করা যাচ্ছে। অবরোধ শেষ হলেই সব বুথে‌ পর্যাপ্ত নোট ফিডিং করা হবে।

গ্রুপ ফোর সিকিউরিটিজ, সিকিউরেক্স, ইনটিগ্রেটেড সিকিউরিটি সার্ভিস, মানি প্লান্ট, অরনেটসহ বেশ কয়েকটি নিরাপত্তা সেবা প্রতিষ্ঠান ব্যাংকগুলোর বিভিন্ন শাখা ও বুথে নগদ টাকা পৌঁছানোর দায়িত্ব পালন করেন থাকে।

তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানই কোটি কোটি টাকা আনা-নেয়ার ঝুঁকি নিতে চাচ্ছে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি নিরাপত্তা সেবা প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, “হরতাল-অবরোধে ইনস্যুরেন্স কাভারেজ থাকে না। তাহলে কেন আমরা ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় বের হবো। কিছু হলে দায় ব্যাংকও নেবে না, সরকারও নেবে না।”

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আগস্ট মাসের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে বিভিন্ন ব্যাংকের পাঁচ হাজারের বেশি এটিএম বুথ রয়েছে।  বিভিন্ন ব্যাংকের ৮০ লাখেরও বেশি ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড রয়েছে । এর মধ্যে ৭২ লাখ রয়েছে ডেবিট কার্ড।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকে টাকা সরবরাহ করা হয় পুলিশি পাহারায়। কিন্তু রাজনৈতিক অস্থিরতায় সেগুলোও বিপাকে রয়েছে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top