শিরোনাম

মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - কে করবে অস্ত্রোপচার ? | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - আসছে স্যামসাংয়ের নতুন ট্যাব | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - চেক লেখার সময়ে এই ভুলগুলি করলেই ফাঁকা হবে অ্যাকাউন্ট! | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - জিওনির কম বাজেটের নতুন স্মার্টফোন | মঙ্গলবার, আগস্ট 22, 2017 - নিটল ইলেকট্রনিক্স এর শোরুম এখন সিলেটে | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - সীমান্তে অবৈধ টাওয়ার, ১৭ কোটি টাকা জরিমানা গুনতে হবে বাংলালিংককে | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - টাকা ওঠাতে চার্জ বেশি নিচ্ছে বিকাশ | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - এরিকসনে বিনা নোটিশে ৫০ কর্মী ছাঁটাই করায় অবরুদ্ধ শীর্ষ কর্মকর্তারা | সোমবার, আগস্ট 21, 2017 - যে অ্যাপ বাধ্য করবে সন্তানদের সাড়া দিতে |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / হাজার কোটি ডলারের সিদ্ধান্ত গ্রহণে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ
হাজার কোটি ডলারের সিদ্ধান্ত গ্রহণে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ

হাজার কোটি ডলারের সিদ্ধান্ত গ্রহণে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ

image

কয়েক দশক আগেই শিল্পকারখানায় শ্রমিকের পাশাপাশি যন্ত্রের বহুল ব্যবহার শুরু হয়েছে। তবে শুধু শ্রমিকদের রদবদল করেই ক্ষান্ত হননি প্রতিষ্ঠানের প্রধানেরা। কায়িক শ্রমের পাশাপাশি বুদ্ধিভিত্তিক কাজেও এবার যন্ত্রের ব্যবহার করতে চান তাঁরা।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান ব্রিজওয়াটার অ্যাসোসিয়েটস কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তানির্ভর এমন এক সফটওয়্যার তৈরি করছে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে তাদের দৈনন্দিন সিদ্ধান্ত গ্রহণের কাজ করবে। এর মধ্যে আছে কর্মপরিকল্পনা, কর্মী নিয়োগ ও ছাঁটাই এবং অন্যান্য কৌশলগত সিদ্ধান্ত গ্রহণের কাজ।

ব্রিজওয়াটার অ্যাসোসিয়েটসের প্রতিষ্ঠাতা রে ডালিও চেয়েছিলেন তাঁর অবর্তমানেও প্রতিষ্ঠানটি যেন তাঁর দর্শন অনুযায়ী পরিচালিত হয়। ডালিওর সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে ২০১১ সালে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওয়াটসন প্রস্তুতকারক দল সিস্টেমাটাইজড ইন্টেলিজেন্স ল্যাবকে কাজটি দেওয়া হয়।

১৬ হাজার কোটি ডলারের তহবিল ব্যবস্থাপনা করা ব্রিজওয়াটার অ্যাসোসিয়েটস ২০১৫ সালের শুরুর দিকে সিস্টেমাটাইজড ইন্টেলিজেন্স ল্যাব গঠন করে। এতে কাজ শুরু করেন বিশ্লেষণ ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় দক্ষ একদল বিশেষায়িত প্রোগ্রামার। এই দলের নেতৃত্ব দেন ডেভিড ফেরুচ্চি। এর আগে আইবিএমের ওয়াটসন সুপারকম্পিউটার তৈরিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি।

প্রোগ্রামার দল ইতিমধ্যে প্রকল্পের কাজ শুরু করে দিয়েছে। তাঁরা প্রতিষ্ঠানটির আগের বৈঠকগুলোর তথ্য এককাট্টা করছেন। কর্মীদের বিভিন্ন মতামতও তাঁরা সংগ্রহ করছেন। দলটি এমন একটি অ্যাপ তৈরি করেছে, যার মাধ্যমে কর্মচারীদের শক্তি ও দুর্বলতা দেখাবে। তাদের তৈরি সিস্টেমটি রে ডালিওর বিভিন্ন নীতি অনুসরণ করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারবে।

তথ্যভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে মানুষের চেয়ে সফটওয়্যার বেশি কার্যকর বলে দাবি করেন ইনস্টিটিউট অব ফিউচারের প্রধান গবেষক ডেবিন ফিডলার। তিনি বলেন, স্বয়ংক্রিয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় একদিকে যেমন সময় বাঁচবে, অন্যদিকে তেমনি মানুষের মানসিক অবিশ্বাসও কমবে।

এমন গুরুত্বপূর্ণ পদে মানুষের বদলে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ‘নিয়োগ’ দেওয়াকে অনেকে শঙ্কার চোখে দেখছেন। তাঁদের মতে, কৌশলগত এবং সৃজনশীল কাজে মানুষের বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে অন্য কোনো কিছুর তুলনা না দেওয়াই ভালো।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top