শিরোনাম

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী 23, 2018 - অনলাইন পোর্টালের গুঞ্জনে ক্ষুব্ধ তাসকিন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - দর্শনার্থী নেই বেসিস সফটএক্সপোতে ! | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিসিএস নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - ২০১৭ সালে রবি’র লোকসান ২৮০ কোটি টাকা | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য অপো স্মার্টফোনসমূহ ৪জি সেবা দিতে প্রস্তুত | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - বিইউপিবিজিএ-এর বার্ষিক বনভোজন সম্পন্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - উদ্বোধন হলো বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮’র | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - এলো টোটেলিংক এর হাই স্পীড ওয়াইফাই রাউটার | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - সবুর খান ডব্লিউবিএএফ-এর বাংলাদেশ হাই কমিশনার নিযুক্ত | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 22, 2018 - সিন্দাবাদ ডট কম-এর সাথে যুক্ত হলো মাই আউটসোর্সিং লিমিটেড |
প্রথম পাতা / সাইবার ক্রাইম / হ্যাকারদের লক্ষ্য বাংলাদেশসহ অন্যান্য এশিয়ার দেশগুলোর ব্যাংকগুলো
হ্যাকারদের লক্ষ্য বাংলাদেশসহ অন্যান্য এশিয়ার দেশগুলোর ব্যাংকগুলো

হ্যাকারদের লক্ষ্য বাংলাদেশসহ অন্যান্য এশিয়ার দেশগুলোর ব্যাংকগুলো

bank-hackডাটা চুরির সাইবার গুপ্তচরবৃত্তি গ্রুপ এখন এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে আক্রমণ করছে। ১৬ অক্টোবর সোমবার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠান ক্যাসপারস্কি ল্যাব এক প্রতিবেদনে নতুন এই তথ্য জানিয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়। ক্যাসপারস্কি গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন, সাইবার অপরাধীরা এখন আর্থিক লাভের লক্ষ্যে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের দেশগুলোর ব্যাংকগুলিতে আক্রমণ করছে।

ক্যাসপারস্কি জানিয়েছে, দ্য অ্যাডভান্সড পারসিসট্যান্ট থ্রেট (এপিটি) গ্রুপ মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, চীন (হংকং), ভিয়েতনাম এবং বাংলাদেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে সফলভাবে নিরাপত্তা লঙ্ঘন করতে পেরেছে। দ্য অ্যাডভান্সড পারসিসট্যান্ট থ্রেট (এপিটি) হলো- যেকোনো সংস্থার নেটওয়ার্কে ক্ষতি করার চাইতে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্য বেশি থাকে।

ক্যাসপারস্কি ল্যাবের গ্লোবাল রিসার্চ এবং অ্যানালাইসিস দলের প্রধান উরি নেমেস্টনিকভ বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ডাটা হ্যাকাররা এখন প্রথাগত সাইবার গুপ্তচরবৃত্তির বাইরে চলে যাচ্ছে। এখন তারা অর্থ চুরির জন্য এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের দুর্বল নিরাপত্তার ব্যাংকগুলোকে লক্ষ্য করে আক্রমণ চালাচ্ছে।’

২০১৭ সালে ক্যাসপারস্কি ল্যাব এই অঞ্চলে কুখ্যাত ‘ল্যাজারাস’ বা ‘কোবাল্টগবলিন’ গ্রুপের সক্রিয় অ্যাডভান্স পারসিসট্যান্ট থ্রেট (এপিটি) মনিটর করতে সক্ষম হয়। আর ল্যাজারাস নামের সাইবার গ্যাংকে ২০১৪ সালে সনি পিকচার হ্যাকিং এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ৮০০ কোটি ডলার চুরির নেপথ্যের খলনায়ক ধরা হয়।

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আক্রমণ থেকে সঠিক আর্থিক ক্ষতি এখনও অনিশ্চিত কিন্তু ক্যাসপারস্কি গবেষকরা বলছেন, তাদের এই অনুসন্ধান আর্থিক সংস্থাগুলোকে তাদের অর্থ খোয়ানোর হাত থেকে বাঁচাতে পারে।

হ্যাকার গ্রুপটি নেটওয়ার্কে ফিশিং ইমেইল অথবা ওয়ার্ড ডকুমেন্টের ত্রুটির সহায়তায় আক্রমণ করে থাকে। আর তাই বৈশ্বিক এই সাইবার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠানটির পরামর্শ হলো- অত্যন্ত অত্যাধুনিক সলিউশন ব্যবহার করা যাতে করে যেকোনো ম্যালশাস আক্রমণ দক্ষতার সাথে নেটওয়ার্কে মনিটর করা যায়, এমনকি ওয়েব এবং ইমেইলও যা ‘ক্যাসপারস্কি অ্যান্টি টার্গেটেড অ্যাটাক প্ল্যাটফর্ম’ এর মতো।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top