শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - ওয়ান প্লাসের নতুন পাওয়ার ব্যাংক | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্প্যাম মেসেজ ঠেকাতে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফিচার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - যাত্রা শুরু করলো ওয়ালটনের কম্পিউটার কারখানা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - নতুন স্মার্টফোন আনল হুয়াওয়ে অনার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্বল্প মূল্যের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ‘অন৭ প্রাইম’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ল্যাপটপের সঙ্গে রাউটার ফ্রি! | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ‘অপো এশিয়ায় সর্বাধিক বিক্রীত স্মার্টফোন’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - চীনে চালু হচ্ছে গুগলের এআই ল্যাব | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - বৈদ্যুতিক গাড়িতে ১১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগে ফোর্ডের আগ্রহ প্রকাশ |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ১ মাসে ৫ লাখ গ্রাহক হারাল এয়ারটেল
১ মাসে ৫ লাখ গ্রাহক হারাল এয়ারটেল

১ মাসে ৫ লাখ গ্রাহক হারাল এয়ারটেল

টানা পাঁচ মাস ধরে কমছে মোবাইল ফোন অপারেটর এয়‌‌‌ারটেলের কার্যকর (অ্যাক্টিভ) সিমের সংখ্যা। গত জুন মাসের শেষেও অপারেটরটির এ ধরনের সিম ছিল ৮৫ লাখ ৪০ হাজার। এর মধ্যে অক্টোবর যেতে না যেতেই তা ১০ লাখ ৭৪ হাজার কমে গেছে।

বুধবার টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন দেশে অ্যাক্টিভ গ্রাহকের মাসিক সংখ্যা প্রকাশ করেছে। এতে দেখা গেছে, অক্টোবর শেষে সব অপারেটরের অ্যাক্টিভ গ্রাহক ১১ কোটি ৮৯ লাখ ৩২ হাজারে গিয়ে পৌঁছেছে। এ সময়ে সব মিলে মাত্র ৫ লাখ গ্রাহক বে‌‌‌ড়েছে।

airtel-inactive-sim

সেপ্টেম্বরের শেষে দেশে অ্যাক্টিভ সিম ছিল ১১ কোটি ৮৪ লাখ ৯৩ হাজার। মূলত গত মাসে এয়ারটেলের বিপুল সিম কমে যাওয়ার প্রভাব পড়েছে বেশি। এক মাসে এ অপারেটরের সিম কমেছে ৪ লাখ ৩৫ হাজার।

এয়ারটেলের মতো সিটিসেলও অনেক দিন থেকে ধুকছে। গত মে মাসের পর থেকে টানা ছয় মাস দেশের সবচেয়ে পুরনো অপারেটরটির গ্রাহক কেবল কমছেই। মে মাসের শেষে অপারেটরটির অ্যাক্টিভ গ্রাহক ছিল ১৪ লাখ ৩৩ হাজার, যা ছয় মাসে ১ লাখ ৪ হাজার গ্রাহক হারিয়ে অক্টোবরের শেষে দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ২৯ হাজারে।

এর মধ্যে ২৪৯ কোটি টাকা পরিশোধ না করতে পারায় অপারেটরটিকে লাইসেন্স বাতিলের চূড়ান্ত নোটিশ দিয়েছে বিটিআরসি। একইভাবে বিভিন্ন ব্যাংকের কাছেও অপারেটরটির প্রায় ২ হাজার ৩’শ কোটি টাকার ঋণ নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে।

কমিশনের প্রতিবেদন অনুসারে অক্টোবরের শেষে গ্রামীণফোনের অ্যাক্টিভ সিম রয়েছে ৫ কোটি ৭ লাখ। বাংলালিংকের ৩ কোটি ৪ লাখ ৯৮ হাজার। রবির অ্যাক্টিভ সিম ২ কোটি ৫১ লাখ এবং টেলিটকের ৩৭ লাখ ৮৫ হাজার।

অন্যদিকে শুধু অক্টোবর মাসে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক বেড়েছে ২২ লাখ। অক্টোবরের শেষে এই গ্রাহক দাঁড়িয়েছে ৪ কোটি ৪৪ লাখ। এর মধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেটে সংযুক্ত রয়েছে ৪ কোটি ১৫ লাখ সিম।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top