শিরোনাম

বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - পোক ফিচারটি ফিরিয়ে আনছে ফেসবুক | বুধবার, ডিসেম্বর 13, 2017 - গ্রামীণফোনের প্যানেল আলোচনায় ডিজিটাল চট্টগ্রামের রূপরেখা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ২০১৬ সালে দেশে অ্যাক্টিভ সিম হবে ১৬ কোটি!
২০১৬ সালে দেশে অ্যাক্টিভ সিম হবে ১৬ কোটি!

২০১৬ সালে দেশে অ্যাক্টিভ সিম হবে ১৬ কোটি!

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর সিম বিক্রির ওপর থেকে কর তুলে নিলে ২০১৬ সালের মধ্যে দেশে অ্যাক্টিভ সিমের সংখ্যা সাড়ে ১৬ কোটিতে পৌঁছাবে। এ খাত থেকে তখন সরকারের আয়ও অন্তত ১৬ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে।

বর্তমানে দেশে অ্যাক্টিভ সিমের সংখ্যা প্রায় ১২ কোটি।

আগামী বাজেটের আগে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাছে সিম কর তুলে নেওয়ার আহবান জানাতে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে মোবাইল ফোন অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটব।

sim-card,

বর্তমানে সিম প্রতি ৩০০ টাকা কর রয়েছে। কয়েক বছর আগেও এ কর ছিল সিম প্রতি ৮০০ টাকা। ২০১১-১২ অর্থবছরে সরকার দু’শ টাকা কর কমায়। পরে ২০১৩ সালের মার্চ মাসে একটি এসআরও জারি করে এ কর আরও কমিয়ে ৩০০ টাকা করা হয়।

অ্যামটব সূত্র বলছে, বর্তমানে ছয়টি অপারেটর মিলে সরকারকে বছরে ১৩ হাজার ৪৪১ কোটি টাকা দিচ্ছে। কর তুলে নিলে প্রথম বছরে সরকারের রাজস্ব ১৭ হাজার ৯০৪ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। অন্যদিকে বিদ্যমান কর হার বজায় থাকলে তা ১৪ হাজার ৬৪০ কোটি টাকার মধ্যে থাকবে।

অপারেটরদের হিসেব অনুসারে সিম কর না থাকলে ২০১৬ সালের পর সরকারের আয়ের অংক চলে যাবে ২১ হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি। অন্যদিকে কর থাকলে তা ১৭ হাজার কোটি টাকার মধ্যে থাকবে।

সূত্র জানিয়েছে, গত অর্থবছরে অপারেটররা মোট জাতীয় আয়ে মোবাইল ফোন অপারেটরদের অবদানের পরিমাণ ৩ দশমিক ১ শতাংশ দাবি করে আসছে। বিভিন্ন ফোরামে তারা বিষয়টি বলছেও।

গত রোববার একটি সেমিনার আয়োজনের মাধ্যমে অ্যামটবের এসব তথ্য সকলকে জানানোর কথা ছিল। কিন্তু অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রথমে সময় দিয়েও পরে অপারগতা জানান।

এ কারণে অ্যামটবের সেমিনার বাতিল হয়ে যায়। এর পরিবর্তে সংবাদ সম্মেলন করার উগ্যোগ নেয় সংগঠনটি।

সকল মোবাইল ফোন অপারেটরের ফাইন্যান্সিয়াল বিভাগের কর্মকর্তারা এতে অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top