শিরোনাম

মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ডিজিটাল পেমেন্ট সার্ভিস ইউপের যাত্রা শুরু | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - হুয়াওয়ে মেট ১০ এ যা আছে | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - শাওমির নতুন ফোন রেডমি ৫এ | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - ফাঁস হয়ে গেল নোকিয়া ৯ এর গোপন সমস্ত তথ্য | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - হ্যাকারদের লক্ষ্য বাংলাদেশসহ অন্যান্য এশিয়ার দেশগুলোর ব্যাংকগুলো | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - এডিএন ইডু সার্ভিসেস এর উদ্দেগে এজাইল বিষয়ক কর্মশলা অনুষ্ঠিত | মঙ্গলবার, অক্টোবর 17, 2017 - প্রথম ডিজিটাল মার্কেটিং অ্যাওয়ার্ডসে গ্রামীণফোনের ব্যাপক সাফল্য | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - গুগলের এই এয়ারপড হেডফোন যখন ট্রান্সলেটর | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - কম্পিউটার গেমের আসক্তিতে হতে পারে ভয়াবহ পরিণতি | সোমবার, অক্টোবর 16, 2017 - ওটিসি ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা জরুরি |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ২০১৭ সালে বাংলাদেশেই অনুষ্ঠিত হবে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড
২০১৭ সালে বাংলাদেশেই অনুষ্ঠিত হবে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড

২০১৭ সালে বাংলাদেশেই অনুষ্ঠিত হবে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড

apicta image

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বৃহত্তম সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্স (অ্যাপিকটা), এই অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি অ্যাপিকটা সম্ভাবনাময় ও সফল উদ্যোগ, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবার স্বীকৃতি দিতে প্রতিবছর অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডের আয়োজন করে থাকে। আগামী ২০১৭ সালে বাংলাদেশেই আয়োজিত হবে এই অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষস্থানীয় সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সদস্য হিসেবে এই অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। তাইওয়ানের তাইপেতে ৫ ডিসেম্বর সমাপ্ত অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১৭ সালের আয়োজক হিসেবে বাংলাদেশের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

গত ২ ডিসেম্বর থেকে তাইওয়ানে বসেছে ২০১৬ সালের অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডের আসর। সেখানেই অনুষ্ঠিত অ্যাপিকটা নির্বাহি কমিটির সভায় এর সদস্যভুক্ত ১৬টি দেশের প্রতিনিধিদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে পরবর্তী বছরের জন্য আয়োজক দেশের নাম হিসেবে বাংলাদেশকে নির্বাচন করা হয়। এর আগে বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বাংলাদেশে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ড আয়োজন নিয়ে একটি উপস্থাপনা পেশ করেন।

বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার বলেন, ২০১৫ সালে অ্যাপিকটার সদস্য হওয়া বেসিসের জন্য এটি একটি বিশাল অর্জন। জাপান থেকে অস্ট্রেলিয়া পর্যন্ত বিস্তৃত ১৬টি দেশের প্রতিযোগিতার এই আয়োজন বাংলাদেশকে বিরল সম্মান এনে দিচ্ছে। এতে প্রায় দুই শতাধিক প্রতিযোগি ১৭টি ক্যাটেগরিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে থাকে। এই উপলক্ষে এই অঞ্চলের প্রায় ছয় শতাধিক প্রতিনিধি বাংলাদেশে আসবে। বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিকে বিশ্বব্যাপী পরিচিত করাতে ও রপ্তানীর বাজার বাড়াতে এই আয়োজন আমাদেরকে ব্যাপকভাবে সহায়তা করবে।

তাইওয়ানের ২০১৬ সালের এই আয়োজনে বাংলাদেশ থেকে প্রধান বিচারক হিসেবে মোস্তাফা জব্বার এবং তার সাথে আরও ৩ জন বিচারক যথাক্রমে রাসেল টি আহমদ, এম রাশিদুল হাসান এবং মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল প্রথমবারের মতো যোগ দেন। বাংলাদেশের সমন্বয়ক হিসেবে উত্তম কুমার পাল এতে যোগ দেন। বাংলাদেশ থেকে মোট ১৪টি প্রতিযোগি দল প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় এবং ক্রান্তি অ্যাসোসিয়েটস সম্মাননা পুরস্কার পায়।

২০১৭ সালে বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার পুরো প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন। এটি বাংলাদেশের জন্য একটি অনন্য সম্মান।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ছাড়াও অ্যাপিকটার সদস্য দেশগুলো হলো অস্ট্রেলিয়া, ব্রুনেই দারুসসালাম, চীন, চীনা তাইপে, হংকং, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, ম্যাকাও, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম এবং নেপাল।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top