শিরোনাম

সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশের সব মোবাইল টাওয়ার চালাবে নতুন চার কোম্পানি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এইচপির নতুন প্রিন্টার বাজারে আনল ফ্লোরালিমিটেড এবং স্মার্ট টেকনোলজি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এক্সপেরিয়েন্স প্যারিস উইথ মাস্টারকার্ড ক্যাম্পেইনের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - অবৈধ পথে মোবাইল আমদানি:বছরে ৮০০ কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ট্যালেন্ট ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় গ্র্যাজুয়েশন করলেন রবি’র ৩১ কর্মকর্তা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - বাংলাদেশী রিং আইডির লাইভ চ্যাটে আসছেন সানি লিওন (ভিডিও) | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে বিশেষ ছাড় পাবেন গ্রামীণফোনের স্টার গ্রাহকরা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশে শতকরা ৪৩ ভাগ প্রেমের বিয়েই বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়:বিবাহবিডি জরিপ | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইনোভেটিভ টিচিং এন্ড লার্নিং এক্সপো ঢাকায় | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার: অংশ নিয়েছে ১৪৫টি দেশের পার্টনার |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ৩০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ই-লার্নিং ল্যাব:জয়
৩০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ই-লার্নিং ল্যাব:জয়

৩০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ই-লার্নিং ল্যাব:জয়

joy-corporateরাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে গতকাল সকালে ‘বিপিও সামিট ২০১৬’আয়োজনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তিসহ সকল ক্ষেত্রে দেশের উন্নয়ন সূচক উপরের দিকে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হবে।’ বিপিও সামিটের মাধ্যমে বিপিও ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্য বিশ্বের সামনে তুলে ধরা হবে বলেও জানান তিনি।

জয় আরও বলেন, ‘আমরা প্রায় ৩০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ই-লার্নিং ল্যাব তৈরি করেছি যা আগামীতে আরও বৃদ্ধি করা হবে। কিছুদিনের মধ্যেই আমরা ইলেকট্রনিক্স ভার্সন বই তৈরি করবো।’ তিনি বলেন, ‘প্রতি বছর ৩০ হাজার শিক্ষার্থী কম্পিউটার সায়েন্স থেকে পাস করছে। তাদের জন্য বিভিন্ন সেক্টরে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছে সরকার।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন সংস্থার (আইটিইউ) মহাপরিচালক হাওলিন ঝাও। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ বিপিও সেক্টরে অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। এই ধারা বজায় রাখতে হবে। বিপিও সেক্টরে এগিয়ে যাওয়া দক্ষ জনবল তৈরি করতে হবে। সরকারি ও বেসরকারিভাবে এগিয়ে নেওয়ার জন্য একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘আমাদের পাশের দেশ ভারত, শ্রীলংকা ও ফিলিপাইন বিপিও সেক্টরে সবচেয়ে ভালো করেছে। বিপিও সেক্টরে সারা বিশ্বের ৬০০ বিলিয়ান ডলারের মধ্যে ভারত প্রায় ১০০ বিলিয়ন, ফিলিপাইন ১৬ বিলিয়ন এবং শ্রীলংকা ৩ বিলিয়ন ডলার আয় করছে। আমাদের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে বিপিও খাতে ১ বিলিয়ন ডলার আয় করা।’

দ্বিতীয় বিপিও সামিটের লক্ষ্য সম্পর্কে পলক বলেন, ‘এই সামিটের মাধ্যমে বিশ্বের কাছে বিপিও খাতে আমাদের দক্ষতার কথা যেমন তুলে ধরতে চাই তেমনি চাই আমাদের স্থানীয় সরকারি-বেসরকারি সেক্টরে বিপিও খাতের সম্প্রসারণ। বাংলাদেশের বিপিও সেক্টরের সাফল্যের গল্পগুলো সবাইকে জানাতে চাই। দেশের তরুণদের কাছে এই সেক্টরকে অন্যতম একটি কাজের ক্ষেত্র হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিতে চাই।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই বিপিও ক্ষেত্রে দেশের অবস্থান তুলে ধরে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ কলসেন্টার এন্ড আউটসোসিংয়ের (বাক্য) সভাপতি আহমাদুল হক।

দুই দিনের এ আয়োজনে ২০ জন আন্তর্জাতিক তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ বিভিন্ন সেমিনার ও কর্মশালায় বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকছেন। এছাড়া দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রায় ৫০ জন সফল ব্যক্তি অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকছেন।

 

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top