শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - বাংলাদেশেই তৈরি হবে সকল ডিজিটাল ডিভাইস : মোস্তাফা জব্বার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - যে কারণে অনলাইন অ্যাকাউন্টে কঠিন পাসওয়ার্ড দিবেন | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - ফিশিং জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন জিমেইল ব্যবহারকারীরা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - দেশের বাজারে লেনোভোর এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - হিটাচি প্রজেক্টরে ম্যাজিক অফার | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - বাংলাদেশে ডি-লিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের অংশীদার কম্পিউটার সোর্স | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - অপ্পোর নতুন ২ স্মার্টফোনে গ্রামীণফোনের ফ্রি ইন্টারনেট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর পার্টনার মিট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ইউটিউবের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে পর্নগ্রাফি ভিডিও | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - আসছে স্বল্প মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান ফোন |
প্রথম পাতা / ক্যারিয়ার / ক্যাম্পাস / এটুআইএর অর্জনসমূহ একাডেমিক কোর্সে অর্ন্তভূক্ত করবে চার বিশ্ববিদ্যালয়
এটুআইএর অর্জনসমূহ একাডেমিক কোর্সে অর্ন্তভূক্ত করবে চার বিশ্ববিদ্যালয়

এটুআইএর অর্জনসমূহ একাডেমিক কোর্সে অর্ন্তভূক্ত করবে চার বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক সেবায় তথ্যপ্রযুক্তি ও উন্নয়ন নিয়ে যৌথভাবে কাজ করার লক্ষ্যে একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের সঙ্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়-এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।
বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের করবী হলে এই চারটি বিশ্ববিদ্যালয়-এর সাথে পৃথকভাবে এটুআইয়ের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
জনগণের দোরগোড়ায় সেবা  সহজে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে তথ্য-প্রযুক্তি,ই-লার্নিং, ইনোভেশন এবং সেবা পদ্ধতি সহজীকরণ নিয়ে একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এবংশাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে কাজ করার উদ্যোগ গ্রহণ করে।
4-uniএ চুক্তির আওতায় চারটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রাম যৌথভাবে গবেষণা, প্রশিক্ষণ ও মূল্যায়ণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন এবং কৌশল নির্ধারণ করবে যা সরকারের বিভিন্ন বিভাগ ও অধিদফতরের সেবা সমূহ জনগণের কাছে সহজে ও দ্রুত পৌঁছে দিতে সহায়ক ভুমিকা রাখবে। এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্ঞানের প্রায়োগিক ব্যবহার ও সম্প্রসারণ, গবেষণার মাধ্যমে সামাজিক সমস্যা সমাধানে উদ্ভাবনী প্রকল্প ধারণা তৈরি এবং তা বাস্তবায়নে তাদের অংশগ্রহণ ইত্যাদি নানা ক্ষেত্রে এটুআই এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যৌথভাবে কাজ করবে।
পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রে এটুআই প্রোগ্রামের অর্জনসমূহ এবং উদ্ভাবিত ইনোভেশন তাদের একাডেমিক কোর্সে অর্ন্তভূক্ত করবে। যা তাত্ত্বিক জ্ঞানের সাথে ব্যবহারিক জ্ঞানের সমন্বয়ে দেশের সেবাক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এ চুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে দক্ষমানব সম্পদ তৈরিতে অনুঘটক ও সহায়ক হিসেবে ও কাজ করবে
উল্লেখ্যে, এটুআই প্রোগ্রামের উদ্যোগে দেশের স্বনামধন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং আন্তজার্তিক পর্যায়ে অস্ট্রেলিয়ার গ্রিফিথ বিশ্ববিদ্যালয় ও সিংগাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অবসিংগাপুর-এর সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর আওতায় বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি ও ইনোভেশন নিয়ে গবেষণা ও গবেষণাপত্র প্রকাশ এবং দক্ষতা উন্নয়নসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালিত হবে। এছাড়া তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অর্জনসমূহ তাদের একাডেমিক কোর্সে অর্ন্তভূক্তকরণ, উদ্ভাবিত ইনোভেশন লার্নিং প্রোগ্রামের উপর মাস্টার্স/ডিপ্লোমা ডিগ্রি প্রদান এবং তথ্য-প্রযুক্তির বিভিন্ন বিষয়ের উপর অষ্ট্রেলিয়ায় প্রশিক্ষণ প্রদান করবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মো. আমিনুল হক ভূঁইয়া এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান।অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এটু্আই প্রোগ্রাম এর প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার।
নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে কোষাধ্যাক্ষ অধ্যাপক সায়েন উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে রেজিস্ট্রার অধ্যাপক মোহাম্মাদ কামরুল হুদা,জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে কোষাধ্যাক্ষ অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে কোষাধ্যাক্ষ অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন এটুআই প্রোগ্রামের পলিসি এডভাইজর আনীর চৌধুরী। এছাড়া অনুষ্ঠানে ৪টি বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন বিভাগের ডীন ও অধ্যাপকগণ, এটুআই প্রোগ্রামের কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top