শিরোনাম

সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশের সব মোবাইল টাওয়ার চালাবে নতুন চার কোম্পানি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এইচপির নতুন প্রিন্টার বাজারে আনল ফ্লোরালিমিটেড এবং স্মার্ট টেকনোলজি | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - এক্সপেরিয়েন্স প্যারিস উইথ মাস্টারকার্ড ক্যাম্পেইনের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - অবৈধ পথে মোবাইল আমদানি:বছরে ৮০০ কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ট্যালেন্ট ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় গ্র্যাজুয়েশন করলেন রবি’র ৩১ কর্মকর্তা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - বাংলাদেশী রিং আইডির লাইভ চ্যাটে আসছেন সানি লিওন (ভিডিও) | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে বিশেষ ছাড় পাবেন গ্রামীণফোনের স্টার গ্রাহকরা | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - দেশে শতকরা ৪৩ ভাগ প্রেমের বিয়েই বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়:বিবাহবিডি জরিপ | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - ইনোভেটিভ টিচিং এন্ড লার্নিং এক্সপো ঢাকায় | সোমবার, জুলাই 24, 2017 - মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার: অংশ নিয়েছে ১৪৫টি দেশের পার্টনার |
প্রথম পাতা / টেলিকম / মোবাইল অ্যাপস / গর্ভধারণ এড়াতে সহায়ক নয় স্মার্টফোন কনট্রাসেপটিভ অ্যাপস !
গর্ভধারণ এড়াতে সহায়ক নয় স্মার্টফোন কনট্রাসেপটিভ অ্যাপস !

গর্ভধারণ এড়াতে সহায়ক নয় স্মার্টফোন কনট্রাসেপটিভ অ্যাপস !

163810Smartphone_contraceptive_apps_rarely_work_and_can_cause_unplanned_pregnancy

স্মার্টফোন গর্ভনিরোধক অ্যাপস খুব কমই কাজ করে। এবং এটি ব্যবহার করলে হরহামেশাই অপরিকল্পিত গর্ভধারণের ঘটনা ঘটতে পারে। এমনটাই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। স্মার্টফোনে নারীদের ঋতুচক্রের হিসাব সংবলিত একটি অ্যাপস যুক্ত করা হয়েছে; যার সঙ্গে গর্ভধারণসংক্রান্ত প্রচলিত ও ঐতিহ্যগত ধ্যান-ধারণার কোনো মিল নেই।

স্মার্টফোনে প্রথমে একটি ফার্টিলিটি অ্যাপ যুক্ত করা হয়। এর উদ্দেশ্য ছিল যুগলদের গর্ভধারণের জন্য উপযুক্ত সময় সম্পর্কে অবহিত করা। এর মাধ্যমে ঋতুচক্রের কোন সময়টাতে একজন নারী গর্ভধারণের জন্য সবচেয়ে উপযোগী অবস্থানে থাকেন তা জানানোর ব্যবস্থা করা হয়। এতে একজন নারীর ঋতুচক্রের তারিখ, দেহের তাপমাত্রা এবং অন্যান্য লক্ষণ দেখে তার গর্ভধারণের উপযুক্ততার মাত্রা নির্ণয় করা হয়।

কিন্তু গর্ভধারণের জন্য সর্বোচ্চ উপযুক্ত সময় নির্ণয়ের বদলে নারীরা এখন অ্যাপসটিকে গর্ভধারণ এড়ানোর সময় নির্ণয়ের জন্য ব্যবহার শুরু করেছে। ফলে এটি এখন অনেকটা গর্ভনিরোধক অ্যাপসে পরিণত হয়েছে। কারণ অ্যাপসটিতে কখন নারীদেহ গর্ভধারণের সম্ভাবনার দিক থেকে সর্বনিম্নে অবস্থান করে বা একেবারে অসম্ভব হয়ে পড়ে সে সম্পর্কেও তথ্য সরবরাহ এবং দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়ে থাকে।

তবে জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ মেডিসিন বিভাগ ১০০টি ফার্টিলিটি অ্যাপস নিয়ে গবেষণা করে অ্যাপসগুলো কতটা নির্ভরযোগ্য এবং সেগুলোর কর্মপ্রণালী কতটা বিজ্ঞানসম্মত তা পরীক্ষা করে দেখেন। গবেষণায় দেখা গেছে বেশির ভাগ অ্যাপস মূলত উর্বরতার সতর্কতাভিত্তিক পদ্ধতির ওপর নির্ভর করে তৈরি করা হয়েছে। এই পদ্ধতি গর্ভধারণ এড়ানোর জন্য কার্যকর নাও হতে পারে।

গবেষণায় ব্যবহৃত ১০০টি অ্যাপসের মধ্যে মাত্র ৬টি অ্যাপস এই ক্ষেত্রে পুরোপুরি নির্ভরযোগ্য তথ্য সরবরাহ করতে পেরেছে বলে প্রমাণিত হয়েছে।

গবেষণায় আরো দেখা গেছে, নারীদের মাঝে স্মার্ট ফোনের এই অ্যাপসটির জনপ্রিয়তা বাড়ছে। কারণ, বেশিরভাগ নারীই এখন পরিবার পরিকল্পনার প্রাকৃতিক পদ্ধতি অবলম্বনেই বেশি আগ্রহী। নারীদের নিজেদের দেহ সম্পর্কে বেশি বেশি জ্ঞান অর্জনের মধ্য দিয়ে নিজেদের ক্ষমতায়ন ঘটানোর আকাঙ্ক্ষাও এর পেছনে একটি কারণ হিসেবে কাজ করছে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top