সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ
সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের সঙ্গে সব ধরনের সংশ্লিষ্টতা পরিহার করতে দেশের সব তফসিলি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহীদের নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত ১ মার্চ (সোমবার) দেশের সব তফসিলি ব্যাংক ও আর্থিক খাতের প্রধানদের বরাবর পাঠানো চিঠিতে নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়েছে, সিটিও ফোরামের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছেদই নয়, সংশ্লিষ্টতা পরিহার করে তা কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জানাতে হবে।

প্রসঙ্গত, দেশের ব্যাংক, আর্থিক খাত ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আইটি বিভাগে কর্মরত কর্মকর্তাদের সংগঠন হলো সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ওই চিঠির সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি একটি বেসরকারি চ্যানেলে প্রচারিত অনুষ্ঠানে ব্যাংকগুলোর সাইবার হ্যাকিং প্রতিরোধে গৃহীত ব্যবস্থা ও সার্বিক প্রস্তুতির বিষয়ে আলোচনায় অনুষ্ঠানের অন্যতম অংশগ্রহণকারী সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তপন কান্তি সরকার সাইবার হ্যাকিং প্রতিরোধে ব্যাংকগুলোর প্রযুক্তিগত সক্ষমতা ও আনুষঙ্গিক বিষয়ে যেসব তথ্য উত্থাপন করেছেন সেসব অসত্য বলে জানানো হয়।

এছাড়া সরকারের আইসিটি বিভাগ ও ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সি (বিজিডি ই-গভ সিআইআরটি) দুটি চিঠির মাধ্যমে দেশের সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে কর্মকর্তাদের ব্যাংকের নিরাপত্তার জন্য সিটিও ফোরামের সঙ্গে সব ধরনের সংশ্লিষ্টতা পরিহার করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে সুপারিশ করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ইনফরমেশন সিস্টেমস ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট বিভাগের সিস্টেম অ্যানালিস্ট (যুগ্ম পরিচালক) এস এম তোফায়েল আহমাদ স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে দেশের সব তফসিলি ব্যাংক ও আর্থিক খাতের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের বলা হয়, আপনার প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ সংগঠন থেকে সব ধরনের সংশ্লিষ্টতা পরিহার করতে হবে। এছাড়া সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ সংগঠনের সঙ্গে সব ধরনের সংশ্লিষ্টতা পরিহার করে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তালিকা এবং আগামী ১৩ মার্চের মধ্যে আপনার প্রতিষ্ঠানের কোনও কর্মকর্তা সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের সদস্যপদ বা কোনও কমিটির সদস্য হিসেবে সংশ্লিষ্টতা নেই মর্মে প্রত্যয়নসহ ইনফরমেশন সিস্টেমস ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট বিভাগে জানানোর অনুরোধ জানানো হলো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে একটি ব্যাংকের আইটি বিভাগের কর্মরত শীর্ষ কর্মকর্তা নাম ও পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার টেলিভিশনে আলোচনা অনুষ্ঠানে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করেছেন। যা ব্যাংক ব্যবস্থা ও আর্থিক খাতের সংশ্লিষ্টদের বিব্রত করেছে।

এ বিষয়ে জানার জন্য সাবেক ব্যাংকার ও সিটিও ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা তপন কান্তি সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি এ ধরনের ঘটনার কথা শুনেছি। কিন্তু কোনও চিঠি এখনও পাইনি। আগে চিঠি হাতে পাই। চিঠি দেখে তারপর মন্তব্য করতে পারবো। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে এমন কিছু বলিনি যাতে এমনটা ঘটতে পারে। আমি আগে চিঠি হাতে পাই, দেখি তাতে কী উল্লেখ করা আছে।

সিটিও ফোরাম
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়