ঢাকা | সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯ |
২৯ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

সর্বোচ্চ আস্থার আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে চায় এসএফআইএল

সর্বোচ্চ আস্থার আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে চায় এসএফআইএল
সর্বোচ্চ আস্থার আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে চায় এসএফআইএল

বাংলাদেশ ব্যাংকের লাইসেন্সপ্রাপ্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান স্ট্র্যটেজিক ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড (এসএফআইএল) তাদের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উদযাপন করেছে। বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে জমকালোভাবে পালন করে দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহক, অংশীদার ও বিশিষ্টজনেরা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এসএফআইএল যাত্রা শুরুর মাত্র চার মাসের মাথায় লাভের মুখ দেখেছে। এভাবে হাঁটি হাঁটি পা পা করে পরিণতির দিকে এগুতে থাকা প্রতিষ্ঠানটি পা রাখল তৃতীয় বর্ষে। ‘স্বচ্ছতার বন্ধন’ স্লোগান সামনে রেখে ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালন দক্ষতা, স্বচ্ছতা ও গ্রাহকসেবার ক্ষেত্রে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। আমানত সংগ্রহ ও ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রেও মিলেছে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য।

অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, দুই বছরে প্রতিষ্ঠানটির পোর্টফোলিও বেড়ে হয়েছে ৪৮২ কোটি টাকা। এ সময় বিনিয়োগ করেছে ২১৬ কোটি টাকা। ২০২০ থেকে ২০২১ সালে আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির নিট লাভ ২৭৩ শতাংশ। পরিচালন মুনাফা বেড়েছে ২৭৫ শতাংশ। অতি সতর্কভাবে ঋণ বিতরণ করায় প্রতিষ্ঠার দুই বছর পরও বিতরণকৃত ঋণের এক টাকাও খেলাপি হয়নি প্রতিষ্ঠানটির।

এসএফআইএল'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইরতেজা আহমেদ খান বলেন, ‘উদ্ভাবন ও প্রযুক্তিকে পাথেয় করে অচিরেই দেশের সবচেয়ে আস্থার আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি পেতে চাই আমরা। আমরা গ্রাহকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে নানা উদ্ভাবনী সেবা নিয়ে কাজ করছি। আশা করছি দ্রুতই আমরা একটি টেকসই প্রবৃদ্ধির মুখ দেখব।

‘আমরা গৃহঋণ, গাড়ির ঋণ, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা ঋণ, নারী উদ্যোক্তা ঋণ, কর্পোরেট লোনসহ নানা ধরনের ঋণ দিয়ে থাকি। আমাদের প্রতিষ্ঠানটি নতুন হলেও ইতোমাঝে উল্লেখযোগ্য হারে প্রবৃদ্ধি হয়েছে। লক্ষণীয় মাত্রায় ঋণ-আমানত আনতে পেরেছি। এছাড়া আমরা জিরো এনপিএল পোর্টফোলিও বজায় রেখেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের ৯৮ শতাংশ শেয়ারহোল্ডার প্রাতিষ্ঠানিক। এর মধ্যে ৫০ শতাংশ কানাডা ও আমেরিকার সরাসরি বিনিয়োগ (এফডিআই) রয়েছে। বাকি ২ শতাংশ ব্যক্তিকেন্দ্রিক। ফলে সুশাসন ও ব্যবস্থাপনা পরিধি নিয়মতান্ত্রিকভাবে পরিচালিত হয়। এটা আমাদের শক্তি। আমানতকারীদের আস্থা বাড়ানোর ক্ষেত্রে এটি একটি ভালো উদাহরণ।’

এসএফআইএল'র এমডি আরও বলেন, ‘ঋণ বিতরণে আমরা অনেক সতর্ক। ভালোভাবে গ্রাহক যাচাই করে ঋণ দিয়েছি। দুই বছরে আমাদের নন-পারফর্মিং লোন (এনপিএল) শূন্য। আমরা দেখেশুনে একটু বেশি সতর্কতা অবলম্বন করছি।’

প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান এহসানুল কবির বলেন, ‘এসএফআইএল অতীতের মতো ভবিষ্যতেও উদ্ভাবন, প্রযুক্তি, টেকসই ব্যবসায়িক অনুশীলন, সবুজ উদ্যোগ এবং কর্মীদের কল্যাণে বিনিয়োগ করে যাবে। এর মাধ্যমে আমরা দেশের অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারব বলে আমার বিশ্বাস।’

দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে এসএফআইএল উদ্বোধন করে ‘এসএফআইএল কানেক্ট অ্যাপ’। অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন মোবাইল অ্যাপটির মাধ্যমে গ্রাহকরা দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে ঘরে বসে নিমেষে খুলে ফেলতে পারবেন ডিপিএস ও টার্ম ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট ছাড়াও ডিপোজিটের টাকা বা ঋণের কিস্তি মুহূর্তেই শোধ করা যাবে এবং অ্যাকাউন্ট বিষয়ক তথ্য পাওয়াও অনেক সহজ হবে এই অ্যাপের মাধ্যমে।

উল্লেখ্য, এসএফআইএল বাংলাদেশের একমাত্র জয়েন্ট ভেঞ্চার কনসোর্টিয়াম- যাদের রয়েছে কানাডা, আমেরিকা ও বাংলাদেশের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ।

এসএফআইএল
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়