ঢাকা | সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ |
৩০ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

‘ই-কমার্স এবং ই-ক্যাব নিয়ে সুনির্দিষ্ট, গঠনমূলক অনেক কাজ করার আছে’

‘ই-কমার্স এবং ই-ক্যাব নিয়ে সুনির্দিষ্ট, গঠনমূলক অনেক কাজ করার আছে’
‘ই-কমার্স এবং ই-ক্যাব নিয়ে সুনির্দিষ্ট, গঠনমূলক অনেক কাজ করার আছে’

‘নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি বলে বলছি না, সত্যিই ই-কমার্স খাত এবং ই-ক্যাব নিয়ে অনেক কাজ করার আছে। ই-কমার্সকে নীতি নির্ধারক পর্যায় পৌঁছাতে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে হবে। আমি ই-কমার্স এবং ই-ক্যাব নিয়ে কাজ করতেই এবার নির্বাচনে আগ্রহী হয়েছি, আমি কাজ করতে চাই সবার জন্য’-এমনটাই বলেন জীশান কিংশুক হক।

আরটিএস এন্টারপ্রাইজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জীশান কিংশুক হক। সিন্দাবাদের কো-ফাউন্ডার তিনি। ই-ক্যাব নির্বাচনে দ্য চেঞ্জ মেকার্স প্যানেল থেকে প্রার্থী হয়েছেন। ই-ক্যাবকে একটি শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করতে তিনি আছেন দ্য চেঞ্জ মেকার্সে।

দায়িত্বের ঝুলিটা কাঁধে চাপিয়ে ছুটছেন ই-কমার্স ব্যবসায়ী, সংশ্লিষ্ট সবার কাছে। যাচ্ছেন ই-ক্যাবের সব সদস্যদের কাছে। তাদের আগামীর দাবি-আগ্রহ-অধিকারের কথা শুনতে। যাদের কথা কেউ শোনেনি, যাদের কখনও মূল্যায়ন করা হয়নি তাদের কাছে। কারণ পরিবর্তনে বিশ্বাসী এই মানুষটি পরিবর্তনের পক্ষে। জীশান কিংশুক হক সত্যিই কাজ করতে চান। তাই ভোট বা নির্বাচনে ই-ক্যাব সদস্যরা তাকে কোন পর্যায় রাখবেন তার দায়িত্ব তিনি সদস্যদের কাছে দিয়েছেন। রায় যেহেতু সদস্যদের কাছে, জীশান কিংশুক হক সেই রায়ের প্রত্যাশায় এগিয়ে যেতে চান।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম আয়োজিত সামিটের একটি সেশনে অংশ নেন আরটিএস এন্টারপ্রাইজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জীশান কিংশুক হক। তিনি ই-কমার্স খাতের বিদ্যমান মিথ ভেঙে দেওয়ার পাশাপাশি উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের সঙ্গে বাস্তব জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি প্রযুক্তিবান্ধব দেশ। প্রযুক্তি বলতে শুধু একটি অ্যাপ বা অগমেন্টেড রিয়েলিটিকেই বুঝায় না। রিয়েল-টাইমে গ্রাহকদের সঙ্গে যোগাযোগ করার একটি সুবিধাজনক এবং সাশ্রয়ী উপায় হিসেবে ইউএসডি সলিউশন প্রদান করেও মাসে শত শত কোটি টাকার লেনদেন ক্ষেত্র তৈরি হতে পারে। সেই ক্ষেত্রে অগমেন্টেড রিয়েলিটির সুবিধা পাওয়া না গেলে এর সমাধান হিসেবে ফেসবুক লাইভকে বিবেচনা করা যেতে পারে বলে উল্লেখ করেন জীশান।

তিনি আরও বলেন, ই-কমার্সের ক্ষেত্রে রাজস্ব এবং গ্রাহক সংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ হলেও এই খাতের উদ্যোক্তাদের সবসময় প্রান্তিক পর্যায়ের ক্রেতাদের বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। এসব ক্রেতাদের মধ্যে কারা বারবার কেনাকাটা করছেন এবং কারা একবার লেনদেন করেই চলে যাচ্ছেন তা নিয়ে ভাবতে হবে।

‘ই-কমার্স,ই-ক্যাব
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়