গেমারদের নতুন পছন্দ অপো এফ১৯ প্রো

গেমারদের নতুন পছন্দ অপো এফ১৯ প্রো
গেমারদের নতুন পছন্দ অপো এফ১৯ প্রো

মোবাইল গেম দিনদিন জনপ্রিয় হচ্ছে। বিশেষত লকডাউনের মধ্যে তরুণদের একটা বড় অংশ ঘরে বসে পাবজির মতো জনপ্রিয় গেম খেলে সময় পার করছে। নিজেদের মধ্যে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন। তরুণতা যাতে নির্বিঘেœ মোবাইল গেম উপভোগ করতে পারেন তাই অপো দেশের বাজারে নিয়ে এসেছে মিডরেঞ্জ কিলার এফ১৯ প্রো স্মার্টফোন। দারুণ গেমিং অভিজ্ঞতার সাথে অসাধারণ ভিডিওগ্রাফি, ফটোগ্রাফি সহ দুর্দান্ত সব পারফরমেন্স পাওয়া যাবে ফোনটিতে। নিচে এমনই কিছু উল্লেখযোগ্য ফিচার তুলে ধরা হলো:

বাধাহীন গেমিং অভিজ্ঞতা:

এটা নি:সন্দেহে বলা যায়, ফোনটির ৮জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি রম ফোনটিকে দিয়েছে শক্তিশালী পারফরমেন্স ক্ষমতা। এর সাথে অক্টা-কোর মিডিয়া টেক হেলিও পি৯৫ এর মতো প্রসেসর তো রয়েছেই। অর্থাৎ শক্তিশালী হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার থাকার কারণে ফোনটি দিয়ে পাবজির মতো হাই-রেজ্যুলেশন গেম খেলা যাবে নির্বিঘেœ। তাছাড়া বড় স্টোরেজ ও ব্যাটারি থাকার কারণে দীর্ঘক্ষণ গেম খেলা যাবে অনায়াসে। কোথাও বাধাপ্রাপ্ত হবে না। খেলার সময় সাউন্ড, পারফরমেন্স, রেজ্যুলেশন সবকিছুই ঠিক থাকবে। ফোনটির আরেকটি বিশেষ দিক হচ্ছে এর সিস্টেম পারফরমেন্স অপটিমাইজার যা নিজে থেকেই কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করবে। আলাদা কোন বুস্টার বা অপটিমাইজার দরকার পড়ে না। তাহলে আর দেরি কেন-এফ১৯ প্রো দিয়ে গেম খেলা শুরু হয়ে যাক আজই।

গেম ফোকাস মুড এবং গেমিং শর্টকাট মুড

গেম ফোকাস মুড এবং গেমিং শর্টকাট মুড নামে ফোনটির দুটি অপশন রয়েছে। গেম খেলার সময় ফোকাস মুড চালু থাকলে কোন ধরনের ঝামেলা পোহাতে হয় না। কারণ এসময় ইনকামিং কল, নেভিগেশন গেসচার, অ্যালার্ম এমনকি অন-স্ক্রিন অ্যালার্ম বন্ধ থাকে।

সাধারণত মোবাইলে গেম লোড হতে একটু সময় লাগে। গেমিং শর্টকাট মুড এই সময়কে হ্রাস করে। এ শর্টকাট মুড গেম থেকে বের হয়ে যাওয়ার পরও ব্যাকগ্রাউন্ডে গেমটি সচল রাখে এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্পøাশ-স্ক্রিন লোগোস, গেম ইন্ট্রোস-টিপস বাদ দিয়ে দেয়। অপোর গেমিং ডেভেলপমেন্ট নীতিমালা মেনে চলে এমন সব গেমই গেমিং শর্টকাট মুড সাপোর্ট করে থাকে।

দুর্দান্ত পাঁচ ক্যামেরা

ফোনটিতে রয়েছে মোট পাঁচটি ক্যামেরা। চারটি রিয়ার ও একটি ফ্রন্ট ক্যামেরা। ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে দারুণ সব সেলফি তোলা যাবে। অন্যদিকে চারটি রিয়্যার ক্যামেরার একটি হচ্ছে ৪৮ মেগাপিক্সেলের। এটি দিয়ে যেকোন আলোতে চমৎকার সব ছবি ক্যাপচার করা যাবে। ব্যবহারকারী পাবেন পূর্ণাঙ্গ ফটোগ্রাফির স্বাদ।

ডুয়েল-ভিউ ভিডিও ফিচার:

ফোনটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে এর ডুয়েল ভিউ ভিডিও। মানে একই সময়ে ক্যামেরার দুই সাইডে ভিডিও ধারণ করা যাবে স্বত:স্ফূর্তভাবে। তাই মজার মজার ভিডিও, ভøগিং ও টিউটোরিয়াল করা যাবে ডুয়েল ভিউ ভিডিও ফিচারের মাধ্যমে।

এআই কালার পোট্রেট ভিডিও

এআই কালার পোট্রেট ভিডিও এআই কালার ফটোর মতোই। এফ১৯ প্রো এআই কালার পোট্রেট ভিডিও ধারনে সাহায্য করে। ফিচারটি ভিডিওতে মানুষকে সাবজেক্ট হিসেবে চিহ্নিত করে ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে আলাদা করে ফেলে। তারপর সাবজেক্ট হিসেবে কালারকে ধরে রাখে।

ফ্যাশনেবল ডিজাইন

৬.৪৩ ইি ডিজাইনের আল্ট্রা স্লিম ফোনটির ওজন মাত্র ১৭২ গ্রাম এবং পুরুত্ব ৭.৮ মিলিমিটার। তাই সারাদিন যেকোন কাজে নির্বিঘেœ বহন করতে পারবেন ফোনটি। সুপার এমোলেড পা হোল ডিসপ্লে ফোনটির স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৯০.৮ শতাংশ। তাই নিজের মতো করে এইচডি কোয়ালিটির ভিডিও কনটেন্ট উপভোগ করা যাবে।

দাম বাংলাদেশি গ্রাহকদের জন্য ফ্যান্টাস্টিক পার্পল এবং ফ্লুইড ব্লাক এই দুই কালারের চোখ ধাঁধানো ট্রেন্ডি ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৮,৯৯০ টাকা।

এফ১৯ প্রো
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়