ঢাকা | রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ |
২০ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউটের মেন্টাল হেলথ পার্টনার হল ‘মনের বন্ধু’

স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউটের মেন্টাল হেলথ পার্টনার হল ‘মনের বন্ধু’
স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউটের মেন্টাল হেলথ পার্টনার হল ‘মনের বন্ধু’

বাংলাদেশের অন্যতম মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ‘মনের বন্ধু’ এবং দেশের অন্যতম ইলেকট্রনিকস পণ্যনির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে। এক অনুষ্ঠানে মনের বন্ধুর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) তৌহিদা শিরোপা ও স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়োনমু কু নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এ উপলক্ষে ২৬ জানুয়ারি শুক্রবার বিকালে মনের বন্ধুর অফিসে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন মনের বন্ধুর হেড অফ মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রাম অ্যান্ড লিড সাইকো সোশ্যাল কাউন্সিলর কাজী রুমানা হক, প্রজেক্ট পোর্টফোলিও ম্যানেজার স্যাফায়ার হোসেন খান, সিনিয়র সাইকো সোশ্যাল কাউন্সিলর মেহেদী মোবারক, কনটেন্ট ক্রিয়েটর অ্যান্ড সোশ্যাল মিডিয়া কোয়াডিনেটর নওশাবা হৃদিতা, স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের হেড অফ এইচআর মো. সাইফুল ইসলাম, সিনিয়র ম্যানেজার (জেনারেল ম্যাানেজার অ্যাফেয়ার্স অপারেশন) তাহসিন মাওলা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, যুগান্তকারী এ পার্টনারশিপের মাধ্যমে ‘মনের বন্ধু’ এখন থেকে স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের 'অফিসিয়াল মেন্টাল হেলথ পার্টনার' হিসেবে কাজ করবে। ফলে স্যামসাংয়ের সকল কর্মী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা মনের বন্ধুর সকল মানসিক স্বাস্থ্যসেবায় বিশেষ ছাড় উপভোগ করবেন। এই সমঝোতার লক্ষ্য হল স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডে কর্মীদের মধ্যে মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সচেতনতা প্রচার করা, মানসিক সুস্থতা বৃদ্ধি করা এবং কর্মচারীদের জন্য একটি সহায়ক কাজের পরিবেশ তৈরি করা।

মনের বন্ধুর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও তৌহিদা শিরোপা বলেন, ‘স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের অফিসিয়াল মেন্টাল হেলথ পার্টনার হতে পেরে মনের বন্ধু গর্বিত। আমরা বিশ্বাস করি যে মানসিক স্বাস্থ্য একটি মানবাধিকার এবং সামগ্রিক সুস্থতায় এর প্রয়োজন অপরিহার্য। এই সমঝোতা স্মারক বিশ্বব্যাপী একটি সুস্থ কর্মক্ষেত্র তৈরির জন্য একটি নতুন মান নির্ধারণ করেছে। আমরা স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাই যে তারা এরকম একটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তাদের কর্মীদের মানসিক স্বাস্থ্যকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে।’

স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেডের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওয়োনমু কু বলেন ‘কর্মীদের সার্বিক সুস্থতা আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই, স্যামসাং সহকর্মীদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্যসেবাকে আরও সহজলভ্য করতে আমরা ‘মনের বন্ধু’ কে ‘অফিসিয়াল মেন্টাল হেলথ পার্টনার’ বানাতে পেরে আনন্দিত। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রচলিত ধারণা দূর করা জরুরি এবং সবার জন্য এমন কাজের পরিবেশ তৈরি করার আশা করি যেখানে কর্মীদের মানসিক সুস্থতাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়।’

উল্লেখ্য, মনের বন্ধু এবং স্যামসাং আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ লিমিটেড উভয়ই মানুষের সামগ্রিক সুস্থতা নিশ্চিতকরণে মানসিক স্বাস্থ্যের গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে থাকে, এবং নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে কর্মীদের জন্য একটি ইতিবাচক পরিবেশ তৈরি করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই, কর্মক্ষেত্রে মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা এবং সচেতনতা প্রচারে এই যৌথ উদ্যোগটি একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে।

স্যামসাং,আর অ্যান্ড ডি ইনস্টিটিউট,মেন্টাল হেলথ,মনের বন্ধু
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
Transcend
Vention