ঢাকা | সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ |
৩০ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

নারী উদ্যোক্তা উন্নয়নে সফ্ট স্কিল ট্রেনিং প্রোগ্রামের সমাপ্তি

উদ্ভাবন দিয়ে বিশ্বজয়ের প্রত্যয় আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর

উদ্ভাবন দিয়ে বিশ্বজয়ের প্রত্যয় আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর
উইয়ের অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

‘উই’কে বাংলাদেশের অনন্য মডেল উল্লেখ করে এ ধরনের ‘উদ্ভাবন দিয়ে বিশ্বজয় করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে স্মার্ট প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রযুক্তিনির্ভর এই নারী উদ্যোক্তাদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থেকে জীবনমুখী শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয় ভাইয়ের পরামর্শে ২০১৬ সালে ইনোভেশন ডিজাইন এন্ট্রাপ্রেনিওরশিপ একাডেমি তৈরি করা হয়। সেখান থেকে সফট স্কিল প্রশিক্ষণ নিয়ে এখন স্বল্পশিক্ষিত তরুণ-তরুণীরা ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তা হচ্ছে।

স্বাধীনতার অকৃত্রিম বন্ধু ভারত ও উই-এর মাধ্যমে বিপুলসংখ্যক নারী অল অ্যাবাউট সফট স্কিলের মতো পদক্ষেপ নিয়ে এই প্রধানমন্ত্রীর সাশ্রয়ী, বুদ্ধিদীপ্ত, উদ্ভাবনী ও উন্নত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সহায়তা করছে।’

গতকাল বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল অডিটোরিয়ামে উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ট্রাস্ট (উই) আয়োজিত অল অ্যাবাউট সফট স্কিল ট্রেনিং সিরিজ গ্র্যাজুয়েশন শ্রিমনি ২০২২ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় আগামী ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মদিন উপলক্ষে উই-এর ৩০০ নারীকে ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

বক্তব্য শেষে উইমেন ই-কমার্স এন্ট্রাপ্রেনিওরশিপ সামিটের ডিজিটাল নিবন্ধনের উদ্বোধন করেন জুনাইদ আহমেদ পলক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

উই প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইডিয়া প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. আলতাফ হোসাইন ও উই গ্লোবাল অ্যাডভাইজার সৌম্য বসু। বক্তব্যে বিক্রম দোরাইস্বামী উপস্হিত নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, আমাদের ব্যবসায় ও উপস্হাপনায় নিজস্বতা থাকতে হবে। গুগল করে নয়; নিজের মতো করে প্রোপোজাল তৈরি করতে হবে। আমরা কপি করব না, নতুন নতুন উদ্ভাবনের দিকে যাব। অনুষ্ঠানে উই মাস্টার ক্লাসে অংশগ্রহণকারী ১৪ জনকে ‘অল অ্যাবাউট সফট স্কিল’ উপস্হাপনা পরিবেশন করেন। এরপর অতিথিদের সম্মাননা স্মারক দেওয়ার পর ৩৫০ জন মাস্টার গ্র্যাজুয়েটদের মধ্যে সনদ বিতরণ করা হয়। এই পুরো আয়োজনটি করতে সহযোগিতা করেছে দৈনিক ইত্তেফাক।

উই,সফট স্কিল ট্রেনিং,বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়