ঢাকা | রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ |
৩৩ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

দেশে গড়ে তোলা হবে উদ্যক্তা স্কুলঃ ইকবাল বাহার

দেশে গড়ে তোলা হবে উদ্যক্তা স্কুলঃ ইকবাল বাহার
দেশে গড়ে তোলা হবে উদ্যক্তা স্কুলঃ ইকবাল বাহার

প্রযুক্তি আর নৈতিকতার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আগামী দুই বছরের মধ্যে ৩ লাখ উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে দেশেই ১০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে কাজ শুরু করেছে নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশন। এরইমধ্যে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দায়িত্ববোধ সম্পন্ন ইতিবাচক মানসিকতার প্রায় ৪ লাখ উদ্যোক্তার একটি নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছেন এই ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ইকবাল বাহার জাহিদ।

দেশের ৬৪ জেলা পেরিয়ে বিশ্বের ৫০টি দেশে অনলাইনে সংযুক্ত করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশীদের। নিজের উদ্ভাবিত ১৬টি বিষয়ে মাত্র ৯০ দিনের প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রতিনিয়ত বিস্তার ঘটাচ্ছেন এই নেটওয়ার্ক।

গত সোমবার ১৭ এপ্রিল রাজধানীর বাংলামোটরস্থ একটা রেস্টুরেন্টে সাংবাদিকদের সঙ্গে ইফতার ও দোয়া মহাফিল অনুষ্ঠানে এমনটাই জানিয়েছেন লাখো তরুণের স্বপ্নদ্রষ্টা ইকবাল বাহার জাহিদ।

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন এনবিএমইজিফের প্রতিষ্ঠাতা , মেন্টর ইকবাল বাহার। তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে ফাউন্ডেশানের কার্যক্রম, প্রশিক্ষনার্থির সংখ্যা, সফল উদ্যক্তা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন। এ সময় একটি অডিও ভিজ্যুয়ালের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে কিভাবে কাজ করে আসছে তার কিছু অংশ দেখানো হয়।

ইকবাল বাহার বলেন, ২০১৮ সালে ফেসবুকভিত্তিক কমিউনিটি গ্রুপ থেকে আমরা যাত্রা শুরু করেছিলাম। বর্তমানে এটিই উদ্যোক্তা তৈরির সেরা প্রশিক্ষণ প্লাটফর্ম। এনবিএমইজিফ বাংলাদেশের একমাত্র অলাভজনক ফাউন্ডেশন যেখানে ‘প্রতিদিন’ উদ্যোক্তা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় বিনামূল্যে ‘। মাত্র ৫ বছরে প্রতিষ্ঠানটি থেকে প্রায় সাত লাখ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন বলেও-উল্লেখ করেন ইকবাল বাহার।

তিনি আরও বলেন, “নিজের বলার মত গল্প” ফাউন্ডেশনে প্রশিক্ষণ নিয়ে ইতিমধ্যে বদলে গেছে লাখো তরুণ-তরুণীর জীবন। “চাকরি করবোনা চাকরি দিবো” এই ব্রত নিয়ে আমি প্রতিষ্ঠা করেছিলাম এনবিএমইজিএফ। আমার ছাত্ররা এখন উদ্যোগ নিয়ে নিজের প্রতিষ্ঠানে অন্যদের চাকরি দিচ্ছে।

এনবিএমইজিএফ এখন শুধু উদ্যক্তা তৈরিতেই সীমাবদ্ধ নেই বরং আমাদের প্রশিক্ষিত প্রতিটি উদ্যক্তা যেনো সাবলিল্ভাবে নিজের ব্যবসা পরিচালনা করতে পারে সেই মেন্টরিংও করা হয়।

এখন নিজের বলার মত গল্প প্লাটফর্মটি মার্কেটপ্লেসে রুপ নিয়েছে। যেখানে সদস্যরা কোনো বিপণন খরচ ছাড়াই লক্ষ লক্ষ টাকার পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে।”

সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের জবাবে ইকবাল বাহার জানান, তিনি তার কনটেন্টগুলো সবার দক্ষতায় কাজে লাগাতে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমটি অচিরেই ইনস্টিটিউশনাল ফর্মে নিয়ে যাবেন। বলেন, আমি স্বপ্ন দেখি দেশে একটি উদ্যক্তা স্কুল প্রতিষ্ঠার যা আগামী ৫ বছরের মধ্যে গড়ে তুলব।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো জানান, নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশন কারো অনুদান নেয় না। নিজেদের চাঁদায় চলে। স্পন্সরও করতে পারে কেবল সদস্যরাই। তাই এই ফাউন্ডেশনটি অনেকটাই ব্যতিক্রম।

ইকবাল বাহার,নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশন
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
Transcend