ঢাকা | শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ |
২৯ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

২৩ মে শুরু হচ্ছে বিভাগীয় বিপিও সম্মেলন

২৩ মে শুরু হচ্ছে বিভাগীয় বিপিও সম্মেলন
২৩ মে শুরু হচ্ছে বিভাগীয় বিপিও সম্মেলন

তিন বছর বিরতির পর ২৩ মে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও পিলিটেকনিক থেকে শুরু হচ্ছে বিপিও সামিট। তবে ২৪ মে নাটোরে এই সম্মেলন উদ্বোধন করবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সীমানা পেরিয়ে বিপিও প্রত্যয়ে ২০ জুলাই পর্যন্ত সাত বিভাগেই হবে এই সম্মেলন। শেষ হবে হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে ঢাকা সম্মেলনের মধ্য দিয়ে। সেই সম্মেলেনে থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সম্মেলনে থাকবে ক্যারিয়ার কাউন্সিল, সেমিনার ও চাকুরি মেলা। এই মেলার মাধ্যমে স্নাতক শিক্ষার্থীদের ঢাকামুখী না করে নিজ স্থানেই কর্মসংস্থান নিশ্চিত করে বিশ্বের কাজ করবে।

গতকাল রবিবার ঢাকার একটি রেস্টুরেন্টে সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান বাক্কো সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিভাগীয় সম্মেলনগুলো উদ্বোধন করবেন স্থানীয় মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা।

বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের (বিপিসি) নির্বাহী কর্মকর্তা মীর ফয়সাল খান, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির মহাসচিব মোঃ কামরুজ্জামান ভূূইয়া, বিপিও জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি মো. আবুল খায়ের, সহ-সভাপতি তানভীর ইব্রাহিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. তানজিরুল বাসার, অর্থ সম্পাদক পরিচালক আমিনুল হক, কাওসার আহমেদ, আবু দাউদ খান ও ডা. তানজিবা রহমান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এই সম্মেলনের মাধ্যমে এক হাজার তরুণের কর্মসংস্থান করা হবে। ২০২০ সালে ৭০ শতাংশ ব্যবসা কলমলেও এখন এই সঙ্কট কাটিয়ে উঠেছে এই খাত। ফলে নতুন উদ্যোমে এগিয়ে গিয়ে ২০২৫ সালের মধ্যে বিপিও শিল্পখাত থেকে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় হবে। নতুন করে কর্ম সংস্থান হবে ১ লাখ মানুষের।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তৌহিদ হোসেন বলেন, বিপিও খাতের ৩৫ শতাংশ কাজই হয় বিদেশী বাজারের জন্য। আর ৬৫ শতাংশ হয় দেশীয় বাজারের জন্য। এই বাজারের যোগ্য কর্মী গড়ে তুলতে বিপিও খাতে ৭ লাখ তরুণকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এদের বেতন ১১ হাজার টাকা দিয়ে শুরু হলেও যোগ্যতা অর্জনের পর ৩০ শতাংশই জব সুইচ করে। ক্যারিয়ার স্যাটিসিফেকশনে না থাকার কারণে এমনটা হচ্ছে।

বিপিও সম্মেলন
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
Transcend