শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - বাংলাদেশেই তৈরি হবে সকল ডিজিটাল ডিভাইস : মোস্তাফা জব্বার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - যে কারণে অনলাইন অ্যাকাউন্টে কঠিন পাসওয়ার্ড দিবেন | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - ফিশিং জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন জিমেইল ব্যবহারকারীরা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 19, 2017 - দেশের বাজারে লেনোভোর এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - হিটাচি প্রজেক্টরে ম্যাজিক অফার | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - বাংলাদেশে ডি-লিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের অংশীদার কম্পিউটার সোর্স | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - অপ্পোর নতুন ২ স্মার্টফোনে গ্রামীণফোনের ফ্রি ইন্টারনেট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর পার্টনার মিট | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - ইউটিউবের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে পর্নগ্রাফি ভিডিও | বুধবার, জানুয়ারী 18, 2017 - আসছে স্বল্প মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান ফোন |
প্রথম পাতা / ইন্টারভিউ / উদ্যোক্তাদের বিকল্প বিনিয়োগ করবে বিডিভেঞ্চার
উদ্যোক্তাদের বিকল্প বিনিয়োগ করবে বিডিভেঞ্চার

উদ্যোক্তাদের বিকল্প বিনিয়োগ করবে বিডিভেঞ্চার

bdventureসবাই নিজের মতো করে ক্যারিয়ার গঠন করতে চায়। কেউ কেউ মনে করেন চাকরি দিয়ে ক্যারিয়ার শুরুর চেয়ে ব্যবসা করাই ভালো। এমন মনোভাব নিয়েই অনেকে ব্যবসা শুরু করেন। পূর্ব অভিজ্ঞতা ও মূলধনের অভাবে এই ব্যবসা আর বেশিদিন পরিচালনা করা সম্ভব হয় না। কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে অর্থ সহায়তা নেওয়ার মতো ক্যাটাগরিও হয়তো অর্জন করতে পারেন না অনেকে। আলোর মুখ দেখার আগেই আতুড় ঘরে শেষ হয় অনেক ব্যবসা ও ঝরে পড়েন অনেক উদ্যোক্তা। আবার অনেক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান আছে যারা ব্যবসার অবস্থা বিবেচনা করে শর্তবিহীন অর্থ সহায়তা করে থাকে। এ নিয়ে ইত্তেফাকের সাথে কথা বলেছেন বিডি ভেঞ্চারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত হোসেন চৌধুরী।

সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন স্বীকৃত বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান বিডি ভেঞ্চার লিমিটেড। ব্যক্তি খাতের সম্ভাবনাময় স্টার্টআপে বিনিয়োগের জন্য তহবিল গঠনের কাজ করে এ প্রতিষ্ঠান। উদ্ভাবনী স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানগুলোকে মূলধন সরবরাহ করার লক্ষ্যে আড়াইশ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠনের ঘোষণা দেয় দেশের প্রথম ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠানটি। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির মূলধন ১৫০ কোটি টাকা, ভবিষ্যতে আরও ১০০ কোটি বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
উদ্ভাবনী শক্তির ওপর ভিত্তি করে বিশ্বে যত প্রতিষ্ঠান বড় হয়ে উঠছে তার একটি বড় অংশই ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানির সমর্থন পেয়েছে। ফেসবুক, ফ্লিপকার্টের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো এর উৎকৃষ্ট উদাহরণ। সাম্প্রতিক সময়ে দেশের পুঁজিবাজার ও আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রকরা ভেঞ্চার ক্যাপিটালের মতো বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল গড়ে তুলতে সহায়ক বিধিবিধান প্রণয়ন করেছেন। শওকত হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘দেশের আইসিটি, আইসিটিভিত্তিক অন্যান্য সেবা, স্বাস্থ্যসেবা, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণসহ কৃষিভিত্তিক বিভিন্ন শিল্প ও অন্যান্য খাতের বর্ধনশীল স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানকে পুঁজি সরবরাহ করব আমরা।’
যেকোনো কোম্পানি বা বিনিয়োগ প্রকল্পের অনুকূলে ভেঞ্চার প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগের পরিমাণ ১০ শতাংশ থেকে সর্বোচ্চ ৪৯ শতাংশ পর্যন্ত।
পাবলিক কোম্পানি ও প্রাইভেট কোম্পানির উপর বিনিয়োগের প্রত্যয় তাদের। কী ধরনের অভিজ্ঞতা বা যোগ্যতা থাকলে ভেঞ্চার ক্যাপিটালের সহযোগিতা পাওয়া যায় জানতে চাইলে শওকত হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘তেমন কোনো অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয় না, ব্যবসা পরিচালনার বয়স মাত্র ৬ মাস হলেই প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা সেটা প্রকল্পের আওতায় ধরি।’ তবে প্রতিষ্ঠানের সার্বিক দিকগুলো যাচাই বাছাই করেন তারা। এর কারণ হিসেবে তিনি জানান, অর্থ বিনিয়োগ করলেই তো হবে না, সঠিক যায়গায় বিনিয়োগ হলো কি না তাও তো দেখা দরকার।’
বিডিভেঞ্চারের অর্থায়ন বা বিনিয়োগ ও শেয়ার হোল্ডারদের প্রসঙ্গে শওকত হোসেন জানান, বিডিভেঞ্চারে যারা সংশ্লিষ্ট আছেন তারা সবাই কর্পোরেট শেয়ারহোল্ডার। বিনিয়োগের পূর্বে বোর্ড মিটিং করে সিদ্ধান্ত সাপেক্ষে অর্থায়ন করা হয়।
ব্যাংকিং অর্থায়ন ও ভেঞ্চার ক্যাপিটালের অর্থায়নের তারতম্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, ব্যাংকিং সেক্টরগুলো সব ধরনের প্রতিষ্ঠানেই অর্থ সহায়তা দিয়ে থাকে। তারা যাচাই করে না ওই প্রতিষ্ঠানের কর্ণধারের ব্যবসাটি পরিচালনার যোগ্যতা আছে কি নেই। আবার বিনিয়োগের বিপরীতে সমমূল্যের সম্পদ গচ্ছিত রেখে বিনিয়োগ নিতে হয়। ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান এমনটি করে না। ব্যাংক যেমন লাভের অংশ সে কত নিবে তা নির্ধারণ করে দেয়, ভেঞ্চার ক্যাপিটাল তেমনটি করে না। ভেঞ্চার ক্যাপিটাল লাভ ও লোকসানের সমান অংশীদার, এ জন্য অনেক যাচাই করে যাদের কোয়ালিটি আছে কিন্তু অর্থের অভাবে পারছে না তাদেরই বিনিয়োগ প্রদান করে বিডিভেঞ্চার।
প্রতিষ্ঠান গঠনের পরিকল্পনা সম্পর্কেও আলোচনা হয় তার সাথে। তিনি জানান, ২০১২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বিডিভেঞ্চার। বিশ্বের অন্য দেশগুলোর দিকে তাকালে দেখা যায় এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা অনেক। আমাদের দেশে তুলনামূলক কম। উদ্যোক্তারা যেন অর্থের অভাবে ঝরে না যায় এবং যোগ্যদের উপরে উঠার সিঁড়িটা যেন মজবুত হয়, সে লক্ষ্যেই বিডিভেঞ্চার গঠিত। এ পর্যন্ত ৩টি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করেছে বিডিভেঞ্চার। এগুলো হলোÑডক্টরওলাডটকম, ইওন ফুডস লিমিটেড এবং সাস্টেইনেবল পাওয়ার লিমিটেড। এতদিন ভেঞ্চার ক্যাপিটাল নীতিমালা ছিল না। সম্প্রতি তাও হয়েছে। জবাবদিহিতার ব্যবস্থা যদি আরও ভালো হয় তাহলে বিনিয়োগের পরিমাণ আরও বাড়বে। সরকার যদি এই খাতের ট্যাক্সের পরিমাণ কমিয়ে দেয় তা হলে উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানগুলোর আগ্রহ বাড়বে বলেও জানান তিনি।
bdventure2ভেঞ্চার ক্যাপিটালের বিভিন্ন প্রক্রিয়া শেষ করে অর্থায়ন করতে সময় লাগে প্রায় ৮-৯ মাস পর্যন্ত। প্রস্তাবনার পর ২-৩ মাসের মধ্যে আগ্রহী উদ্যোক্তাকে জানিয়ে দেওয়া হয় তার প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ হবে কি না।
আমাদের দেশে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান অনেক কম। আবার যারা এই ধরনের বিনিয়োগ করেছে তারা অনেকেই তাদের মূলধন গুটিয়ে নিয়েছে।
নতুন উদ্যোক্তাদের উদ্যেশ্যে তিনি বলেন, ‘এ যুগের তরুণদের মধ্যে যে উদ্যম দেখা যায় এখানে সঠিক বিনিয়োগ করা সম্ভব হলে ভালো কিছু পাওয়া যাবে। প্রত্যেক উদ্যোক্তারই নির্দিষ্ট পরিকল্পনা থাকা দরকার। যখন যে সুযোগ আসে তার সঠিক ব্যবহার করা, ঝুঁকি দেখলে তা এড়িয়ে যাওয়া বা এর প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহণ করা উদ্যোক্তাদেরই কাজ। তাদের জন্য প্রয়োজনে পাশে রয়েছে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল। উদ্যোক্তারা যদি সঠিকভাবে অর্থ কাজে লাগায় এবং নির্ধারিত সময়ে ফেরত দেয় তাহলে এই প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে নতুন প্রতিষ্ঠান সৃষ্টিতে উৎসাহ যোগাবে।’
ঋণের প্রয়োজন হোক বা নাই হোক, ব্যবসা পরিচালনার জন্য দরকার পরিকল্পনা। এটি হতে পারে তিন থেকে পাঁচ বছরের আগাম পরিকল্পনা। অনেক উদ্যোক্তারা না বুঝে শখের বশে ব্যবসা শুরু করেন। তারা মনে করেন সফল হলে হলাম না হলে না। এ ধরনের চিন্তা ভাবনা পরিহার করা, প্রয়োজনে বিনিয়োগ যুক্ত করলে পার্টনারের অর্থ ফেরত দেওয়ার মনোভাব সৃষ্টি করা দরকার। এতে করে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর বিনিয়োগের আগ্রহ বাড়বে বলেও জানান শওকত হোসেন চৌধুরী।
তিনি বলেন, ‘সফল হতে প্রয়োজন যা করবেন তার সম্পর্কে সঠিক ধারণা এবং সঠিক প্রশিক্ষণ। যার ধ্যানজ্ঞান জুড়ে থাকে তার ব্যবসা বা তার সংশ্লিষ্ট কাজ, তার সফল হবার সম্ভাবনা অনেক।’

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top