ঢাকা | রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ |
৩২ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইতালির রোম যেতে বাড়ল সময়-খরচ

মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইতালির রোম যেতে বাড়ল সময়-খরচ
মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ঢাকা থেকে রোম যেতে হচ্ছে ঘুরপথে। তাতে বেড়েছে যাতায়াতের সময় ও খরচ

দীর্ঘ ৯ বছর পর ইতালির রোমে ফ্লাইট চালু করেছে রাষ্ট্রায়াত্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। গত ২৭ মার্চ মধ্যরাতে রাজধানী ঢাকার হজরত শাহজাহাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে প্রথম ফ্লাইটটি ছেড়ে গেছে রোমের পথে। কিন্তু বিপত্তি দেখা দিয়েছে ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকায়। ওই নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানের আকাশসীমা ব্যবহার করতে পারছে না বিমান। এতে রোম যাওয়ার জন্য ঘুরতে হচ্ছে তিনটি দেশ। তাতে সময় লাগছে অন্তত বাড়তি দুই ঘণ্টা।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, ইরানের আকাশসীমা ব্যবহার করেই ঢাকা-রোম ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা করা হয়েছিল। শিডিউলও করা হয়েছিল সেভাবেই। কিন্তু ইরানের আকাশসীমা ব্যবহার করতে গিয়ে তাদের যে ফি পরিশোধ করতে হবে, সেখানেই গোল বেঁধেছে। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকায় ইরানের সঙ্গে সেই লেনদেন করতে পারছে না বিমান বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে বিমানের পক্ষ থেকে অ্যারোটাইম হাবকে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী ইরানের আকাশপথ ব্যবহার করতে হলে বিমানকে ওভারফ্লাইট ফি ও এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল বাবদ চার্জ পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু ইরানের ওপর থাকা পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে এই ওভারফ্লাইয়িং ফি পরিশোধে ঢাকাকে অনুমোদন দিচ্ছে না যুক্তরাষ্ট্র। আর পেমেন্ট দিতে না পারায় ইরানের আকাশসীমাও ব্যবহার করা যাচ্ছে না।

এ পরিস্থিতিতে রোম ফ্লাইটের জন্য বিমানকে বিকল্প রুট খুঁজতে হয়েছে। বিমানের বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, গত ২৭ মার্চ বিমানে যে ফ্লাইটটি রোমে গেছে তা ইরানের আকাশপথ ব্যবহার করেনি। ঢাকা থেকে বিমান উড্ডয়নের পর ভারত-পাকিস্তানের আকাশসীমা পেরিয়ে আফগানিস্তান হয়ে তুর্কমেনিস্তান, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার আকাশপথ ব্যবহার করেছে ফ্লাইটটি। ইরানের আকাশপথ ব্যবহার করতে পারলে রোমে পৌঁছাতে যে সময় লাগত, ঘুরপথে যেতে তার চেয়ে অন্তত দুই ঘণ্টা সময় বেশি লেগেছে বিমানের ওই ফ্লাইটের।

বিমানের সূত্রগুলো বলছে, ইরানের আকাশপথ ব্যবহার করলে শুধু ইরানকে ফি দিলেই হতো। এখন সেখানে একই ফ্লাইটের জন্য তুর্কমেনিস্তান, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া— এই তিন দেশকে ফি পরিশোধ করে ফ্লাইট পরিচালনা করতে হবে বিমানকে। তাতে এই ফ্লাইটের খরচও বাড়বে।

বিমান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, এমনিতেই বিমান একটি লোকসানি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। সেখানে এরকম অযাচিত ব্যয় বিমানকে আরও বেশি ক্ষতির মুখে ফেলবে। বিমানকে তাই লাভজনক রুট খুঁজে বের করে ফ্লাইট পরিচালনার পরামর্শ দেন তারা।

এ বিষয়ে কথা বলতে বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) শফিউল আজিমের মোবাইল নম্বরে কল করলে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া গেছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি ইতালির রোমে অবস্থান করছেন।

জানতে চাইলে বিমানের গ্রাহক সেবা বিভাগের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘এসব বিমানের অভ্যান্তরীণ বিষয়। সমস্যা থাকবে, সমাধানও থাকবে। সেভাবেই পরিকল্পনা করা হয়েছে। ওভারচার্জ আর সময় বেশি লাগবে, এটা তো কমন বিষয়।’ এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বিমানের ফ্লাইট অপারেশন পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন তিনি।

পরে বিমানের পরিচালক (ফ্লাইট অপারেশন) মো. সিদ্দিকুর রহমানকে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। বিমানের জনসংযোগ কর্মকর্তা উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) তাহেরা খন্দকারকেও ফোন করে পাওয়া যায়নি।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিমানের আরেক কর্মকর্তা সারাবাংলাকে বলেন, ফ্লাইটটি মূলত পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ইরান, তুরস্ক, বুলগেরিয়া, সার্বিয়া ও বসনিয়ার আকাশ অতিক্রম করে রোমে পৌঁছাবে বলে পরিকল্পনা করা হয়েছিল। শেষ মুহূর্তে ইরানের আকাশপথ ব্যবহার ব্যবহার করতে না পারায় তুর্কমেনিস্তান, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া যোগ হয়েছে এই দেশের তালিকায়। আর এতে প্রায় দুই ঘণ্টা সময় বেশি লেগেছে।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, মূল পরিকল্পনায় যেখানে একটি দেশকে ওভারচার্জ দিতে হতো, এখন দিতে হবে তিন দেশকে। এখঅনে খরচও অনেকটা বেড়ে যাবে। ফলে টিকিটের দামেও পরিবর্তন আসতে পারে। কারণ টিকিটের দাম না বাড়ালে ঢাকা-রোম-ঢাকা ফ্লাইটে বিমান বড় লোকসানের মুখোমুখি হবে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের তথ্য বলছে, সব ধরনের ট্যাক্সসহ ঢাকা-রোম রুটে ওয়ান-ওয়ের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া ৬৪ হাজার ৩৫৫ টাকা, বিজনেস ক্লাসে সর্বনিম্ন ভাড়া এক লাখ ৪৪ হাজার ১০৫ টাকা এবং রাউন্ড ট্রিপ এক লাখ ৪ হাজার ৫৬৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অন্যদিকে রোম-ঢাকা রুটে ওয়ান-ওয়ের ভাড়া ইকোনমি ক্লাসে ৪৮ হাজার ৭৮৮ টাকা, বিজনেস ক্লাসে এক লাখ ২২ হাজার ৬৬৩ টাকা এবং রাউন্ড ট্রিপের ভাড়া যথাক্রমে ৮৯ হাজার ৮৫২ টাকা ও দুই লাখ ২২ হাজার ২৩৬ টাকা নির্ধারণ করেছেঝ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

২৭ মার্চ মধ্যরাতে রোমের পথে ছেড়ে যাওয়া প্রথম ফ্লাইটের টিকিটে অবশ্য বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা রেখেছিল বিমান। তবে শেষ পর্যন্ত ওই ফ্লাইটেরও সব টিকিট বিক্রি হয়নি। উলটো ফ্লাইটের উল্লেখযোগ্যসংখ্যক টিকিই বিক্রি হয়নি বলে জানান বিমানের ওই কর্মকর্তা।

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা,বিমান,ইতালি,রোম
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
Transcend
Vention