ঢাকা | সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ |
২৯ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

হুয়াওয়ের মেট ৬০ তে হাইনিক্স মেমোরি ব্যাবহার নিয়ে তদন্ত

হুয়াওয়ের মেট ৬০ তে হাইনিক্স মেমোরি ব্যাবহার নিয়ে তদন্ত
হুয়াওয়ের মেট ৬০ তে হাইনিক্স মেমোরি ব্যাবহার নিয়ে তদন্ত

স্মার্টফোনের বাজারে নতুন করে প্রভাব বিস্তার করছে হুয়াওয়ের মেট ৬০ সিরিজ। বিক্রিও ঊর্ধ্বমুখী। তবে এর সঙ্গে সমালোচনাও রয়েছে। প্রশ্ন উঠছে ডিভাইসে যেসব উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলোর সরবরাহকারী কারা।

টেকটাইমসের খবরে বলা হয়, মেট ৬০ সিরিজে দক্ষিণ কোরিয়ার চিপ নির্মাতা কোম্পানি এসকে হাইনিক্সের মেমোরি ব্যবহারের বিষয়টি নির্দেশ করে যে কোনোভাবে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা এড়িয়ে গেছে এটি। তবে আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতির মাধ্যমে হুয়াওয়েকে মেমোরি সরবরাহ করার বিষয়টি নাকোচ করেছে হাইনিক্স।

গত সপ্তাহে মেট ৬০ টিয়ারডাউনের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সেখানে এসকে হাইনিক্সের মেমোরি চিপ ব্যবহার করা হয়েছে।

২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্র বেশকিছু দিক থেকে হুয়াওয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এর মধ্যে দেশটিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি রফতানি বন্ধ করার মতো বিষয় রয়েছে। ফলে স্মার্টফোন তৈরিতে ব্যবহৃত যন্ত্রাংশ সংগ্রহ করা হুয়াওয়ের জন্য কঠিন হয়ে পড়ে।

মেট ৬০ প্রোতে হাইনিক্সের চিপ ব্যবহার বলে দিচ্ছে, হুয়াওয়ে কোনোভাবে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা এড়াতে পেরেছে। আর এটি ওয়াশিংটনের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে কোম্পানিটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় থাকা কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে পণ্য সরবরাহ করা হয় না।

হুয়াওয়ের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর থেকেই ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে হাইনিক্স। এ বিষয়ে তদন্তও শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনাকে ঘিরে নতুন জল্পনা শুরু হয়েছে। প্রযুক্তিবিশারদ ও বাজার বিশ্লেষকদের মতে, থার্ড পার্টি বা ফ্রন্ট কোম্পানিকে ব্যবহারের মাধ্যমে হয়তো হুয়াওয়ে চিপ সংগ্রহ করেছে। কীভাবে হাইনিক্সের মেমোরি হুয়াওয়ের কাছে পৌঁছেছে সেটি এখনো পরিষ্কার নয়। তবে এটি নিশ্চিত, হুয়াওয়ের ওপর আরো বড় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

হুয়াওয়ের মেট ৬০,হাইনিক্স,তদন্ত
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
Transcend